scorecardresearch

বড় খবর

Explained: সেনা নিয়োগে ‘অগ্নিপথ’, কী এই প্রকল্প, কীভাবে করবে নিয়োগ?

বর্তমান সরকার দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে সংস্কারের কথা বলছে। সেই সংস্কারের অঙ্গ হিসেবে ইতিমধ্যেই নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পে ছাড় দিয়েছে।

Explained: সেনা নিয়োগে ‘অগ্নিপথ’, কী এই প্রকল্প, কীভাবে করবে নিয়োগ?

মঙ্গলবারই ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। দু’বছর ধরে দেশে সেনা নিয়োগ বন্ধ। ভারতীয় সেনাবাহিনীতে দেড় লক্ষ শূন্যপদ রয়েছে। যা নিয়ে বিরোধীরা বারবার কটাক্ষ করছে সরকারকে। তার মধ্যেই ঘোষিত হল নতুন প্রকল্প। যা কার্যত সেনার মধ্যেই আলাদা বাহিনীর জন্ম দিতে চলেছে। এই প্রকল্পে নিযুক্ত জওয়ানদের বলা হবে ‘অগ্নিবীর’।

বর্তমান সরকার দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে সংস্কারের কথা বলছে। সেই সংস্কারের অঙ্গ হিসেবে ইতিমধ্যেই নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পে ছাড় দিয়েছে। মঙ্গলবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন, শীঘ্রই নতুন প্রকল্প কার্যকর হবে। বর্তমানে জুন মাস চলছে। বছরের অর্ধেক সময় পেরোতে চলেছে। তার মধ্যেই ঘোষণা হল ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পের।

কী এই ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্প?

নতুন প্রকল্পে বছরে ৪৫ থেকে ৫০ হাজার ‘অগ্নিবীর’ নিয়োগ হবে। বেশিরভাগেরই কর্মজীবনের মেয়াদ থাকবে মাত্র চার বছর। প্রতিবছর যা নিয়োগ হবে, তার মাত্র ২৫ শতাংশ আরও ১৫ বছর কাজের সুযোগ পাবেন। বর্তমানে দেশের সেনাবাহিনীতে জওয়ানের সংখ্যা ১৩ লক্ষেরও বেশি। নতুন প্রকল্পে সেখানে বছরে নিয়োগ হবে মাত্র ১২ হাজার জওয়ান। বছরে দু’বার নিয়োগ হলে, সংখ্যাটা দাঁড়াবে ২৪ হাজার।

তাও মাত্র ১৫ বছরের জন্য। এতে পেনশন নিয়ে সরকারের উদ্বেগ কমবে। পেনশন নিয়ে সেনাকর্মীদের দাবি দীর্ঘদিনের। নতুন প্রকল্পের সাহায্যে সেই দাবিকেও ঘুরিয়ে পাশ কাটানো যাবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু, এতে স্থায়ী সেনার সংখ্যা কমবে বলে তাঁরা উদ্বিগ্ন।

আরও পড়ুন- আমেরিকায় মুদ্রাস্ফীতির কালো মেঘ, ভারতের শেয়ার বাজারে অন্ধকার আরও গাঢ়, কেন?

‘অগ্নিবীর’ নিয়োগের যোগ্যতা

এই নতুন প্রকল্প নন-কমিশনড অফিসার তথা জওয়ানদের জন্য। নতুন প্রকল্পে যোগ দিতে বয়স হতে হবে সাড়ে ১৭ থেকে ২১ বছর। সেনায় শারীরিক, মানসিক এবং শিক্ষার যে মাপকাঠি থাকে, সেই মাপকাঠিতেই নিয়োগ হবে। যেভাবে দেশজুড়ে নানা সেনা ছাউনিতে নিয়োগ চলে, নিয়োগ হবে সেভাবেই। বছরে সর্বোচ্চ দু’বার নিয়োগ হতে পারে।

প্রার্থী বাছাইয়ের পর কী হবে?

একবার নিয়োগ হয়ে গেলে চলবে ছয় মাসের প্রশিক্ষণ। সাড়ে তিন বছরের জন্য নিয়োগ করা হবে ‘অগ্নিবীর’দের। মাইনে হবে মাসিক ৩০ হাজার টাকা। অতিরিক্ত সুযোগ-সুবিধা পাবেন নিযুক্তরা। এই মাসিক ৩০ হাজার টাকা মাইনেটাই চার বছরের শেষের দিকে হবে মাসিক ৪০ হাজার টাকা। এই চার বছরে মাইনের ৩০ শতাংশ টাকা চলে যাবে ‘সেবা নিধি’ প্রকল্পে।

সরকারও ‘সেবা নিধি’ প্রকল্পে সমান টাকা দেবে। দুটো মিলে যে মোট অর্থ, তা ওপর সুদও পাবেন জওয়ানরা। সব মিলিয়ে, চার বছরের শেষে করমুক্ত ১১.৭১ লক্ষ টাকা পাবেন জওয়ানরা। সঙ্গে থাকবে ৪৮ লক্ষ টাকার জীবনবিমা। যা আহত বা মৃত্যু হলে পাবেন ‘অগ্নিবীর’ বা তাঁর পরিবার। চার বছরের এই কর্মজীবনে কোনও অবসরকালীন সুযোগ-সুবিধা থাকবে না।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Explained news download Indian Express Bengali App.

Web Title: What is the agnipath scheme how it will work