সম্পাদকীয়

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১৩)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১৩)

তিন মাসের বেশি সময় ধরে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলার জন্য লিখে চলেছেন দেবেশ রায়। আজ তাঁর বিষয় শামিম আহমেদের উপর আক্রমণ।

বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণে দেশ যেন বিলেতের উপনিবেশ

বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণে দেশ যেন বিলেতের উপনিবেশ

ব্রিটেনে-বসবাসকারী শিখজনগোষ্ঠীর সমানাধিকার ও মানবাধিকারের চেয়ে ব্রিটেনবন্ধু মালিয়া স্বভাবতই অপেক্ষাকৃত-বেশি সুবিধা পাবেন। কেননা, তিনি বন্ধুদেশের প্রাক্তন-সাংসদ, ধনকুবের, পানামা-নথি ও প্যারাডাইস-নথিভুক্ত।

দোষ কারো নয় গো মা!

দোষ কারো নয় গো মা!

যাঁরা সর্বস্বান্ত হলেন, তাঁদের প্রতি পূর্ণ সহানুভূতি নিয়েই বলতে হচ্ছে, এখন 'যত দোষ নন্দ ঘোষ' বলে সরকারের দিকে আঙ্গুল তুললে শোনার লোক খুব বেশি পাওয়া মুশকিল।

ওষুধ নিষেধ

ওষুধ নিষেধ

কলেজে বা ফেসবুকে জনপ্রিয় হবার জন্য যেমন কেউকেউ বিচিত্র আচরণ করে "অন্যদের থেকে আলাদা" হতে চেষ্টা করেন, ওষুধ বিক্রেতা কোম্পানির দলও তেমনি বিচিত্র কিছু কম্বিনেশন তৈরি করে নিজেদের স্বতন্ত্র গুরুত্ব প্রতিষ্ঠা করে বাজার ধরার চেষ্টা করেন।

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১২)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১২)

আমার ভয় – উচ্চ পর্যায়ের বিশেষজ্ঞ কমিটি নিয়ে। উচ্চ পর্যায় মানে তো পদাধিকারীর উচ্চতা। সেটাই সন্দেহের। তাঁরা তো নিজেদের পদের নিরাপত্তা দেখবেন, ব্রিজের নিরাপত্তা দেখবেন কেন?

সকলই মিলাবে পুজোর অনুদানে

সকলই মিলাবে পুজোর অনুদানে

২০১২ সালে যখন দক্ষিণ ২৪-পরগনার উস্তিতে বিষমদ খেয়ে ১৭২ জনের মৃত্যু হয়, তখনও মুখ্যমন্ত্রী সব নীতিনিয়ম তুচ্ছ করে মৃতদের পরিবার ও বিষগ্রস্তদের এমনই সপ্রাণ-অনুদান দিয়েছিলেন। তিনি তখন মনে রাখেননি এমনকী ভারতীয় দণ্ডবিধির প্রাসঙ্গিকতাও।

ব্রহ্মাণ্ড থেকে সমাজ, বিজ্ঞান যেখানে যেমন; আলোচনায় ডঃ সব্যসাচী সিদ্ধান্ত

ব্রহ্মাণ্ড থেকে সমাজ, বিজ্ঞান যেখানে যেমন; আলোচনায় ডঃ সব্যসাচী সিদ্ধান্ত

"প্রভাব মুক্ত হয়ে একটি শিশুর মৌলিক চিন্তা করার ক্ষমতা তৈরি হওয়া দরকার। তবেই আজ থেকে দশ-কুড়ি-ত্রিশ বছর বাদে সমাজ তার ফল পাবে।"

মন্দিরের অব্যবহৃত ভান্ডারই হোক কেরালার পুনর্নিমানের ভীত

মন্দিরের অব্যবহৃত ভান্ডারই হোক কেরালার পুনর্নিমানের ভীত

বর্তমানে এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে আবারও মন্দিরের ধনভাণ্ডারের ব্যবহার করে পুনর্নির্মাণের সুযোগ রয়েছে। অন্যত্র তহবিলের সন্ধানের পরিবর্তে, মন্দির তহবিল ব্যবহার করা উচিত রাজ্য সরকারের।

ফেসবুকে মৃত্যু হুমকি ও অকিঞ্চিৎকরের সমাধান প্রয়াস

ফেসবুকে মৃত্যু হুমকি ও অকিঞ্চিৎকরের সমাধান প্রয়াস

সোশাল মিডিয়ায় হত্যা, ধর্ষণের হুমকির কথা আমরা বার বার শুনি। ক দিন আগেই ফেসবুকে এক ফোটগ্রাফারকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছিল। তার প্রতিবাদে সোচ্চার হতে ধর্ষণ ও হত্যার হুমকি পেলেন মা-মেয়ে দুজনেই। নিজের অভিজ্ঞতার কথা লিখলেন...

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১১)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১১)

ঐতিহাসিক নীহাররঞ্জন রায় তাঁর 'বাঙালীর ইতিহাস'-এর আদিপর্বে প্রমাণ করেছিলেন - বাঙালি মুসলমান, নমশূদ্র ও ব্রাহ্মণদের মধ্যে শরীরতত্ত্বের কোনো পার্থক্য নেই।

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১০)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ১০)

আর্যদের সমাজপতি ব্রাহ্মণ সর্বত্রই সমাজের বিধায়ক বলে স্বীকৃত হলেও, নিরামিশাষী ব্রাহ্মণরা বা ব্রাহ্মণেতররাও আমিষভোজী ব্রাহ্মণদের স্বীকৃতি দেয় না - এক পংক্তিতে বা টেবিলে খায় না পর্যন্ত।

এলগার পরিষদ কাণ্ডে বাংলার বিদ্বজ্জনদের হিরণ্ময় নীরবতা

এলগার পরিষদ কাণ্ডে বাংলার বিদ্বজ্জনদের হিরণ্ময় নীরবতা

দেশের পরিচিত নাগরিক অধিকার সংগঠন পিইউসিএল-এর পশ্চিমবঙ্গ শাখার প্রাক্তন সম্পাদক তথা সাংবাদিক দেবাশিস আইচ তাঁর রিপোর্টাজের জন্যও বহুল পরিচিত। দেশজোড়া ধরপাকড়ের সময়ে বাংলার বুদ্ধিজীবীদের অবস্থান নিয়ে জানালেন তাঁর নিজস্ব মতামত।

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ৯)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ৯)

কোনো এক প্রধানমন্ত্রী আসামের কোনো এক রাজনৈতিক দল বা সরকারের সঙ্গে কোনো ‘চুক্তি’ সম্পাদন করলে ও সুপ্রিম কোর্ট সেই চুক্তিকে মান্যতা দিয়ে নাগরিকপঞ্জি তৈরির নির্দেশ দিলে ও তত্ত্বাবধান করলেও সেই পুরো পদ্ধতিই অসাংবিধানিক হতে পারে।

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ৮)

দেবেশ রায়ের নিরাজনীতি (পর্ব ৮)

নাগরিক পঞ্জি, সরকার বা সুপ্রিম কোর্ট নির্দিষ্ট যে-সংগঠন তৈরি করেছেন তাঁরা প্রাথমিক ভাবে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন - ভোটার লিস্টের নামগুলির মধ্যে একটা D শ্রেণী আরোপ করে।

লাল কেল্লা থেকে, ২০১৯ এর উদ্দেশ্যে

লাল কেল্লা থেকে, ২০১৯ এর উদ্দেশ্যে

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রাক নির্বাচনী বছরে যে কোনো সরকারের হাত পা বাঁধা অবস্থার প্রতিফলন। কিছু আকাশছোঁয়া মুহূর্ত ছিল, আবার ছিল কিছু ভ্রান্তিও।

আধ্যাত্মিক অরবিন্দের আগে রাজনীতিক অরবিন্দ

আধ্যাত্মিক অরবিন্দের আগে রাজনীতিক অরবিন্দ

অরবিন্দের প্রগাঢ় রাজনৈতিক দর্শন সম্পর্কে গবেষকদের নিস্পৃহতায় দক্ষিণপন্থীদের সুবিধে হয়েছে তাঁকে ‘আমাদের লোক’ বলে চিহ্নিত করতে, স্পষ্ট লিখেছেন সুগত বসু।

 অলীকরা যেটাকে জয় বলে চালাতে চাইছে, সেটার কোনো মানে নেই

 অলীকরা যেটাকে জয় বলে চালাতে চাইছে, সেটার কোনো মানে নেই

চুক্তিপত্রে ক্ষতিপূরণের কথা বলা হলেও, তা বিশদ করা নেই। বিশেষত যাদের জমির ওপর দিয়ে তার যাচ্ছে, তাদের ক্ষতিপূরণ। এটা সবচেয়ে অবহেলিত জায়গা আমাদের দেশে। এইটা নিয়ে আন্দোলনকারীদের কথা বলা, চাপ সৃষ্টি করা উচিত ছিল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement