FIFA World Cup 2018: উদ্বোধনী ম্যাচে রাশিয়া-সৌদি আরব, রইল কিছু অজানা তথ্য়

FIFA World Cup 2018: বৃহস্পতিবার, অর্থাৎ আজ থেকে, পথ চলা শুরু ২১ তম বিশ্বকাপের। ফুটবল গ্রহে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াইয়ে নামবে ৩২টি দেশ। মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে এদিন যদিও একটিই ম্যাচ।

By : IE Bangla Sports Desk | kolkata Published: Jun 14, 2018, 8:25:12 AM

বৃহস্পতিবার, অর্থাৎ আজ থেকে পথ চলা শুরু ২১ তম বিশ্বকাপের। ফুটবল গ্রহে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াইয়ে নামবে ৩২টি দেশ। মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে এদিন যদিও একটিই ম্যাচ। বর্ণাঢ্য উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরেই মুখোমুখি হবে আয়োজক দেশ রাশিয়া ও সৌদি আরব। আসুন দেখে নেওয়া যাক এই দুই দল সম্পর্কে আটটি অজানা তথ্য।

১) এবার যে ৩২টি দল অংশ নিচ্ছে তারমধ্যে ফিফা ক্রমতালিকায় রাশিয়া ও সৌদি আরবই একেবারে নিচের দিকে। রাশিয়ার র‌্যাঙ্কিং ৭০, এবং সৌদি আরব তিন ধাপ এগিয়ে ৬৭ নম্বরে। মিনো (minnow) নেশনের তকমাধারী ঠিকই, কিন্তু দু’দলই যথেষ্ট সম্ভাবনাময়।

২) এই বিশ্বকাপে একমাত্র রাশিয়া টিমেই খেলবেন যমজ ফুটবলার। অ্যান্টন মিরানচাক ও আলেকসি মিরানচাক রয়েছেন রাশিয়ার জাতীয় স্কোয়াডে। দু’জনেই খেলেন লোকোমোটিভ মস্কোর জার্সিতে। এই ক্লাবের সাফল্যের পিছনে এই দুই অ্যাটাকিং মিডিও-র ভূমিকা উল্লেখযোগ্য়।

৩) সৌদি আরব এশিয়ার অন্যতম সফল টিম। তিনবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে তারা। ১৯৯৪ থেকে মোট তিনবার বিশ্বকাপের জন্য কোয়ালিফাই করেছে তারা।

৪) বিশ্বকাপের প্রতিটি দলের মধ্যে সৌদির ফুটবলাররাই গড়ে উচ্চতায় খাটো (১৭৬.২)। রাশিয়ান টিমের গড় উচ্চতা ১৮৪.৩।

আরও পড়ুন: FIFA World Cup 2018: ১২ দিন বাকি থাকতেই দেখে নিন ১২টি স্টেডিয়াম

৫)  সৌদির স্কোয়াডের গড় বয়স ২৮.৭। অন্যদিকে রাশিয়ার ২৮.১। দুই টিমেই অভিজ্ঞতা এবং তারুণ্যের দারুণ মিশেল রয়েছে। যা যে কোনও দলের জন্য অ্যাডভান্টেজ। এখন দেখার কীভাবে তারা সেটা কাজে লাগাতে পারে!

৬) সোভিয়েত ইউনিয়ন ঙ্গেবং রাশিয়া মোট ১০ বার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেছে। কিন্তু কখনই গ্রুপ পর্যায় অতিক্রম করতে পারেনি। ১৯৬৬-তে সোভিয়েত ইউনিয়ন চার নম্বরে শেষ করেছিল। এটাই তাদের সেরা পারফরম্যান্স।

৭) ১৯৯৪ বিশ্বকাপে রাশিয়ার মুখ উজ্জ্বল করেছিলেন ওলেগ সালেনকো। ক্যামেরুনের বিরুদ্ধে পাঁচ গোল করেছিলেন তিনি। এখনও পর্যন্ত তিনিই একমাত্র ফুটবলার যিনি এই নজির গড়েছেন।

৮) সৌদি আরবের গোলকিপার মহম্মদ আল-দিয়েয়ার বিশ্বকাপে এক বিরল নজির রয়েছে। ১৯৯৪-২০০৬ পর্যন্ত চারটি বিশ্বকাপ খেলে তিনি ২৫টি গোল হজম করেছেন। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এত গোল খাওয়ার রেকর্ড আর কারোরই নেই।

(তথ্য সৌজন্যে: সোনি স্পোর্টস)