scorecardresearch

বড় খবর

গুজরাটে সেতু বিপর্যয়ে মৃত বেড়ে ১৩৩, চিকিৎসাধীন ৯৩, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় জারি উদ্ধারকাজ

রবিবার সন্ধেয় গুজরাটের মোরবি জেলায় মাচ্ছু নদীর উপর থাকা ঝুলন্ত ব্রিজটি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে।

গুজরাটে সেতু বিপর্যয়ে মৃত বেড়ে ১৩৩, চিকিৎসাধীন ৯৩, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় জারি উদ্ধারকাজ
সেতু বিপর্যয়ে বেড়েই চলেছে মৃতের সংখ্যা।

গুজরাটের মোরবি জেলায় সেতু বিপর্যয়ে মৃত্যু মিছিল। মাচ্ছু নদীর উপর ব্রিজ ভেঙে পড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৩। গতকাল রাত থেকে একটানা চলছে উদ্ধারকাজ। রাতভর উদ্ধারকাজ চালিয়ে নদী থেকে বহু মানুষের নিথর দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ৯৩ জন। সেনাবাহিনী-নৌবাহিনী-বিমানবাহিনীর যৌথ দল উদ্ধারাভিযান জারি রেখেছে।

গান্ধীনগর থেকে প্রায় ২৪০ কিলোমিটার দূরে গুজরাটের মোরবি শহরের কাছে গতকাল সন্ধেয় ভয়ঙ্কর এই দুর্ঘটনা ঘটে। মাচ্ছু নদীর উপর শতাব্দী প্রাচীন ঝুলন্ত ব্রিজটি রবিবার সন্ধ্যায় হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। ব্রিজটির সংস্কারের কাজ চলার পর প্রায় সাত মাস বন্ধ ছিল। মাত্র চারদিন আগে ব্রিজটি আবার খুলে দেওয়া হয়েছিল। মোরবির চিফ ডিস্ট্রিক্ট মেডিক্যাল অফিসার পি কে দিধরেজিয়া জানিয়েছেন, সেতু বিপর্যয়ের জেরে মোরবি সিভিল হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ৭৯ জন আহতের মধ্যে অন্তত ৬০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মোরবি সিভিল হাসপাতালে বিপর্যয়ের জেরে আহতদের চিকিৎসা চলছে। আহতদের চিকিৎসায় যাতে কোনও ত্রুটি না হয় সেব্যাপারে খোঁজ নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল। মোরবিতে ছুটে আসা স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হর্ষ সাংঘভি জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার সময় সেতুতে প্রায় দেড়শো জন লোক ছিলেন। জানা গিয়েছে, রবিবার সন্ধেয় দুর্ঘটনার সময় ব্রিজটিতে বেশ কিছু মহিলা ও শিশু ছিল। তখনই নদীর উপর ঝুলন্ত অবস্থায় থাকা ওই ব্রিজটি ভেঙে পড়ে।

গুজরাটের রাজকোটের সাংসদ মোহন কুন্দারিয়া বলেন, “৬০ টিরও বেশি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার অভিযান এখনও চলছে। দমকল বিভাগ, এনডিআরএফ (ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স) এবং ডুবুরিরা উদ্ধারকাজে সামিল রয়েছেন। নিচের দিকে একটি চেক ড্যাম ভাঙার চেষ্টা চলছে যাতে সেতুটি যেখানে দাঁড়িয়েছিল সেখানে জলের স্তর কমে যায়।”

আরও পড়ুন- CBI তদন্তে সাধারণ সম্মতি তুলে নিয়েছে রাজ্য, হাইকোর্টে বিস্ফোরক তথ্য অ্যাডিশনাল AG-র

অন্যদিকে, রাজ্যের পঞ্চায়েত প্রতিমন্ত্রী এবং মোরবির স্থানীয় বিধায়ক ব্রিজেশ মের্জা বলেন, “ব্রিজ ভেঙে নদীতে পড়ে যাওয়ার পরে প্রায় ৭০-৮০ জন আহত হয়েছেন। উদ্ধার অভিযান চলছে। আহতদের দ্রুত মোরবিতে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।” মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, তিনটি এনডিআরএফ দল, ৫০ জন নৌবাহিনীর কর্মী, ৩০ জন আইএএফ কর্মী, ভারতীয় সেনাবাহিনীর দুটি কলাম এবং সাতটি ফায়ার ব্রিগেডের টিম মোরবিতে উদ্ধারকাজে সামিল রয়েছে। মোরবি সিভিল হাসপাতালে একটি আলাদা ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে।

ব্রিজ বিপর্যয়ে মৃতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ৪ লক্ষ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেছেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল। আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার ঘোষণা করেছেন তিনি। অন্যদিকে, গুজরাটের এই বিপর্যয়ে আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দফতরও।

মোরবিতে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো প্রত্যেকের নিকটাত্মীয়দের প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিল থেকে ২ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়া হচ্ছে। আহতদের দেওয়া হবে ৫০ হাজার টাকা। এই মুহূর্তে তিন দিনের সফরে গুজরাটেই রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর রাজ্যের এই বিপর্যয়ে মৃতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: 130 killed as bridge collapses in gujarat updates