scorecardresearch

বড় খবর

কৃষিক্ষেত্রে খরচ আকাশছোঁয়া, ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর আবেদন!

বিশ্বব্যাপী সার এবং অন্য জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় খারিফ ফসল উৎপাদনের খরচ এবার আরও বাড়বে।

Minimum Support Price (MSP), Agricultural Costs and Prices, paddy, Paddy procurement, Indian Express, India news, current affairs, Indian Express News Service, Express News Service, Express News, Indian Express India News
কৃষিক্ষেত্রে খরচ আকাশছোঁয়া, ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর আবেদন

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার তরফে ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে বিভিন্ন খারিফ ফসলের জন্য ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর অনুমোদন দিয়েছে। এর ফলে উপকৃত হতে চলেছেন কয়েক লক্ষ্য কৃষক। ২০২২-২৩ অর্থ বছরের জন্য সাধারণ গ্রেড জাতের ধানের (Paddy) এমএসপি আগের বছরের ১ হাজার ৯৪০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২ হাজার ৪০ প্রতি কুইন্টাল করা হয়েছে। ‘এ’ গ্রেড জাতের ধানের সহায়ক মূল্য ১ হাজার ৯৬০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২ হাজার ৬০ টাকা প্রতি কুইন্টাল করা হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাব, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, তামিলনাড়ু, ছত্তিশগড়, বিহার এবং আসাম হল প্রধান ধান উৎপাদনকারী রাজ্য। ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বিশেষ ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ ২০২১-২২ অর্থবর্ষে এর ফলে প্রায় ১ কোটি ১৭ লক্ষ্য কৃষক বিশেষ ভাবে উপকৃত হয়েছেন। খাদ্যমন্ত্রকের জারি করা এক বিবৃতি অনুসারে বলা হয়েছে ,”মে, ২০২২পর্যন্ত খারিফ ফসলের জন্য ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর ফলে প্রায় ১১৭.৫০ লক্ষ্য কৃষক উপকৃত হয়েছে”।

ধানের মতো, বেশিরভাগ রাজ্য অন্যান্য খরিফ ফসলের ওপর ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ানোর ব্যপারে ইতিমধ্যে কেন্দ্রের কাছে আবেদন করেছে। ধান হল প্রধান খারিফ ফসল। আবহাওয়া দফতর পূর্বাভাস দিয়েছে যে এবার দেশে বর্ষা স্বাভাবিক হবে। গত তিন বছরে স্বাভাবিক থেকে ভালো বর্ষা খারিফের খাদ্যশস্যের উৎপাদনে সহায়তা করেছে, গড়ে উৎপাদন ২.৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এবার খারিফের উৎপাদন ২.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে পারে। তবে বিশ্বব্যাপী সার এবং অন্য জিনিসপত্রের দাম বেড়ে যাওয়ায় খারিফ ফসল উৎপাদনের খরচ এবার আরও বাড়বে। সামনেই বর্ষা তার আগে সরকারের এই ঘোষণা কৃষকদের মনোবল চাঙ্গা করবে বলে মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞেরা।

আরও পড়ুন: কাশ্মীরে সেনা-পুলিশের বিরাট সাফল্য, চলতি বছরেই খতম শ’খানেক জঙ্গি!

কেন্দ্রের বক্তব্য, ১৪ টি খরিফ শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য নতুন করে বেঁধে দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ওই সব ফসলের বিভিন্ন প্রজাতির শস্যেরও দামও বৃদ্ধি করা হয়েছে। পাঁচটি রাজ্য – অন্ধ্র প্রদেশ (প্রতি কুইন্টাল ৩,৩৩৪ টাকা), গুজরাট (৫০০০টাকা), কর্ণাটক (৫,৬৫১ টাকা), মহারাষ্ট্র (৪,৩৩১ টাকা) এবং তেলেঙ্গানা (৭,৭১২ টাকা) – জোয়ারের জন্য একটি উচ্চ এমএসপি ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। বাজরার পুরনো সহায়ক মূল্য ছিল কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার ২৫০ টাকা। নতুন সহায়ক মূল্য হয়েছে কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার ৩৫০ টাকা। মুগ ডালের পুরনো সহায়ক মূল্য ছিল কুইন্টাল প্রতি ৭ হাজার ২৭৫ টাকা। তা বাড়িয়ে করা হয়েছে কুইন্টাল প্রতি ২ হাজার ৭৫৫ টাকা। একইরকম ভাবে তুর ডাল, বাদাম, সূর্যমুখী ফুলের বীজ, তুলা, সয়াবিন-সহ মোট ১৪টি খরিফ শস্যের দাম নতুন করে বেঁধে দিয়েছে কেন্দ্র।

কমিশন ফর এগ্রিকালচারাল কস্টস অ্যান্ড প্রাইস (সিএসিপি) এর একটি প্রতিবেদন অনুসারে বলা হয়েছে ১৫ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ধানের এমএসপি প্রতি কুইন্টাল ২ হাজার টাকা থেক বাড়িয়ে ৪,৫১৩ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে। যেহেতু কৃষিক্ষেত্রে খরচ এখন আকাশছোঁয়া।  

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: 14 of 15 states had asked for higher msp for paddy