scorecardresearch

শিশিরের গোল্ড কার্ডে বার্সার বঙ্গে আগমনী বার্তা

ফুটবল নেক্সট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা কৌশিক মৌলিক বার্সার যে টিমটা আসবে তাঁদের কয়েকজনের নাম বললেন। প্যাট্রিক ক্লুইভার্ট, ফ্রাঙ্ক দে বোয়ের, এডমিলসন, জিয়ানলুকা জামব্রোতা ও এরিক অবিদালের নাম বার্সা থেকে পাঠানো হয়েছে বলেই জানালেন তিনি।

শিশিরের গোল্ড কার্ডে বার্সার বঙ্গে আগমনী বার্তা

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ভারতীয় ফুটবলের আরও একটা রেড লেটার ডে হতে চলেছে। ইতিহাস লিখতে চলেছে দেশের ফুটবল মক্কা কলকাতা। মোহনবাগানের হাত ধরে বার্সেলোনা আসছে বাংলায়। পুজোর আগেই কলকতাবাসীর মন ভাল হয়ে যাওয়ার জন্য এই খবরটাই যথেষ্ট। ফুটবলের ফ্রাইডে ব্লকব্লাস্টার দেখবে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন। কয়েক মাস আগে যে মাঠ সাক্ষী থেকেছে যুব বিশ্বকাপের। সে মাঠেই ব্যারেটোদের বাগান খেলবে জিয়ানলুকা জামব্রোতাদের সঙ্গে।

রবিবাসরীয় বৃষ্টিভেজা কলকাতায় এই ঐতিহাসিক ম্যাচ, Clash of the Legends-এর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হল। মার্লিন গ্রুপ ও ফুটবল নেক্সট ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে বার্সার কিংবদন্তি প্রাক্তনীরা ফুটবলপাগল শহরে পা রাখবেন। বাগান সচিব অঞ্জন মিত্র বলছেন, “অতীতে পেলে, অলিভার কান ও রজার মিল্লা খেলে গেছেন এই ক্লাবের বিরুদ্ধে। বার্সেলোনা আসছে শুনেই খুশি হয়েছি। ক্লাব আরও একটা ইতিহাস লিখতে চলেছে। এই ম্যাচ খেলবে বলে ব্যারেটো পাকা কথা দিয়েছে।”

মোহনবাগানের প্রাক্তন ফুটবলার এবং বর্তমানে টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য শিশির ঘোষ দল গড়ার গুরুদায়িত্ব সামলাচ্ছেন। তিনি বললেন, “ব্যারেটোই শুধু কথা দিয়েছে। বাকি কাদের আনা যায় সেটা নিয়েই এখন কথাবার্তা চলছে। তাড়াতাড়ি তাদের নাম জানিয়ে দেব।” আগামী ২৯ জুলাই মোহনবাগান দিবস। সেদিন মোহনবাগানেরও একটা কিংবদন্তি দল ঘোষণা করা হবে বলেও জানান অঞ্জন-শিশির।

এদিন ফুটবল নেক্সট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা কৌশিক মৌলিক বার্সার যে টিমটা আসবে তাঁদের কয়েকজনের নাম বললেন। প্যাট্রিক ক্লুইভার্ট, ফ্রাঙ্ক দে বোয়ের, এডমিলসন, জিয়ানলুকা জামব্রোতা ও এরিক অবিদালের নাম বার্সা থেকে পাঠানো হয়েছে বলেই জানালেন তিনি। ঘটনাচক্রে ইতালির ডিফেন্ডার ও বিশ্বকাপ জয়ী জামব্রোতা ২০১৬-তে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের দায়িত্বে ছিলেন। আইএসএল-এর হাত ধরে ভারতীয় ফুটবলের স্বাদ পেয়েছেন।

এদিনের মঞ্চ থেকেই আবার বাগান গোল্ড কার্ড প্রকাশ করল। এই ক্লাবের জীবিত সব অধিনায়কের কাছে পৌঁছে যাবে এই কার্ড। এর ফলে তাঁরা মোহনবাগান ম্যাচ ভিভিআইপি গ্যালারিতে বসেই আজীবন দেখতে পারবেন। শুরুটা ১৯৮৯-এর ক্যাপ্টেন শিশিরের হাত দিয়েই হল। এই সম্মান পেয়ে তিনি স্বভাবতই খুশি হয়েছেন। অঞ্জন বাবুর হাত থেকে এই কার্ড পেলেন তিনি।

এই ম্যাচের আগে একটি চ্যারিটি ডিনারের আয়োজন করা হয়েছে। ম্যাচ থেকে সংগৃহীত অর্থ ব্যবহৃত হবে লিভার ফাউন্ডেশনের উন্নয়নে। বোঝাই যাচ্ছে যে, সবমিলিয়ে একটা মহাযজ্ঞের আয়োজন হতে চলেছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Barcelona mohunbagan play kolkata