scorecardresearch

বড় খবর

কোটি টাকার অফারের সঙ্গে বিদেশভ্রমণের সুযোগ, অভিযোগ তুলে নিতে মহিলা কোচকে চাপ

চণ্ডীগড় পুলিশ জানিয়েছে হরিয়ানার ক্রীড়া মন্ত্রী সন্দীপ সিংয়ের বিরুদ্ধে সেক্টর ২৬ থানায় ৩৫৪, ৩৫৪এ, ৩৫৪বি, ৩৪২ এবং ৫০৬ ধারার অধীনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে

কোটি টাকার অফারের সঙ্গে বিদেশভ্রমণের সুযোগ, অভিযোগ তুলে নিতে মহিলা কোচকে চাপ

মহিলা কোচকে যৌন হয়রানি! মারাত্মক অভিযোগ অলিম্পিয়ান মন্ত্রীর বিরুদ্ধে, উত্তাল রাজ্য-রাজনীতি। এর মাঝেই মহিলা কোচকে বিপুল পরিমাণে টাকা ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ। মহিলা কোচ যা নিয়ে ইতিমধ্যেই পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন। পাশাপাশি তিনি এও বলেন, তাকে নানা ভাবে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন মহল থেকে চাপ দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী তদন্তকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। ঘটনাটি ঘটেছে চণ্ডীগড়ে। আমাকে চুপ থাকার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে।

ইতিমধ্যেই সিট মহিলা কোচকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। সে সময়, অভিযোগকারী্নি বলেন, হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খটকার সন্দীপ সিংয়ের পক্ষ নিচ্ছেন এবং তদন্তকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। চণ্ডীগড় পুলিশ আমার ওপর কোন চাপ দেয়নি। হরিয়ানা পুলিশ আমার ওপর চাপ সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। আমাকে চুপ করার জন্য আমার মুখ বন্ধ করার জন্য, আমার কাছে ক্রমাগত ফোন আসছে।  বিদেশে ঘুরতে যাওয়ার লোভ দেখানোর পাশাপাশি এক কোটি টাকা ঘুষের প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে।

পরে সংবাদ মাধ্যমের সামনে ওই মহিলা কোচ বলেন, তদন্তের শুরু থেকেই পুলিশকে সহযোগিতা করে আসছি। এখনও পর্যন্ত, চণ্ডীগড় পুলিশের ভুমিকায় তাতে আমি সন্তুষ্ট। আমি এসআইটির সামনে হাজির হয়ে আমার বয়ান পেশ করেছি। তারা তা রেকর্ড করেছে এবং আমার সেল ফোন জমা দিয়েছি। ন্যায়বিচার না পাওয়া পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবো। মন্ত্রী [সন্দীপ সিং] এখনও সরকারে আছেন। কিছু অজানা লোক আমাকে এক কোটি টাকা ঘুষের প্রস্তাব দিয়েছে, ঘটনার কথা ভুলে গিয়ে এক মাসের জন্য বিদেশে যাওয়ার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে।”

সন্দীপ সিং, একজন অলিম্পিয়ান এবং প্রাক্তন ভারতীয় হকি দলের অধিনায়ক। বর্তমানে হরিয়ানা সরকারের ক্রিড়ামন্ত্রী। তার বিরুদ্ধে শনিবার রাতে সেক্টর ২৬ থানায় এফআইআর দায়ের করে পুলিশ। মহিলা কোচের অভিযোগের ভিত্তিতে এই এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। মহিলা তার অভিযোগে জানান, ফেব্রুয়ারি থেকে নভেম্বরের মধ্যে অফিস ও অন্যান্য জায়গায় বেশ কয়েকবার সন্দীপ সিং আমাকে যৌন হয়রানি করেন। একবার, তিনি আমাকে সেক্টর ৭-এ তার সঙ্গে দেখা করতে বলেছিলেন। তিনি বেশিরভাগ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার সঙ্গে যোগাযোগ রেখে গেছেন। চণ্ডীগড়ের বাড়িতে তিনি আমার সঙ্গে অশালীন আচরণ করেন। আমি চণ্ডীগড় পুলিশকে সেদিনের সেই ঘটনার ব্যপারে বিশদে জানিয়েছি।”

আরও পড়ুন: [ জীবন বাজি রেখেই জঙ্গিদের ‘তাক করে গুলি’, চিনে নিন রাজৌরির এই ‘হিরো’কে ]

যদিও অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। শুক্রবার চণ্ডীগড় পুলিশ সদর দফতরে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা কোচ। তিনি পুলিশ সুপার (সিটি) শ্রুতি অরোরার কাছে তাঁর লিখিত অভিযোগ জমা দেন। পরে, তিনি এসপি অরোরা সহ সিনিয়র পুলিশ সুপার (ইউটি) মনীষা চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করেন । বেশ কিছু সময় ধরে আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

র মাঝেই হরিয়ানার ক্রীড়ামন্ত্রী সন্দীপ সিং মন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন। জুনিয়র মহিলা কোচের শ্লীলতাহানির অভিযোগে মন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন সন্দীপ সিং। তিনি বলেন, ‘তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত নৈতিকতার দায়ে আমি পদত্যাগ করছি’। হরিয়ানার ক্রীড়া মন্ত্রী সন্দীপ সিং রবিবার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খাট্টারের কাছে তার পদত্যাগপত্র জমা দেন।

যৌন হয়রানির দায়ে হরিয়ানার ক্রীড়া মন্ত্রী সন্দীপ সিংয়ের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করার একদিন পরে, চণ্ডীগড় পুলিশ শনিবার তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি এবং ভয় দেখানো এবং আটকে রাখার অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। চণ্ডীগড় পুলিশ জুনিয়র মহিলা কোচের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছে। চণ্ডীগড় পুলিশ জানিয়েছে হরিয়ানার ক্রীড়া মন্ত্রী সন্দীপ সিংয়ের বিরুদ্ধে সেক্টর ২৬ থানায় ৩৫৪, ৩৫৪এ, ৩৫৪বি, ৩৪২ এবং ৫০৬ ধারার অধীনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Coach who accused haryana minister of sexual harassment