scorecardresearch

বড় খবর

তিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরই দিক ভ্রান্ত হয়েছে কংগ্রেস, নিজের বইয়ে লিখেছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়

প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন মনমোহন সিং ইউপিএ জোটকে বাঁচাতেই বেশি সময় ব্যয় করেছিলেন, যা প্রশাসনের উপর খারাপ প্রভাব ফেলেছিল বলে মনে করতেন প্রয়াত দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি।

তিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরই দিক ভ্রান্ত হয়েছে কংগ্রেস, নিজের বইয়ে লিখেছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়

তিনি রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরেই কংগ্রেস দিক ভ্রান্ত হয়ে পড়েছিল। প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন মনমোহন সিং ইউপিএ জোটকে বাঁচাতেই বেশি সময় ব্যয় করেছিলেন, যা প্রশাসনের উপর খারাপ প্রভাব ফেলেছিল বলে মনে করতেন প্রয়াত দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। আগামী বছর জানুয়ারিতে প্রকাশিত হতে চলেছে প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের বই ‘‌দ্য প্রেসিডেন্সিয়াল ইয়ার্স’। সেখানেই এই বিষয়গুলোর উল্লেখ রয়েছে।

এই বইটিতে ২০১৪ সালে কংগ্রেসের হারের জন্য কার্যত সোনিয়া গান্ধী ও মনমোহন সিংকেই নিশানা করা হয়েছে। এছাড়াও উল্লেখ রয়েছে যে, প্রথম পাঁচ বছরে প্রদানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সরকার পরিচালনার ধরণ অনেকটাই ‘একনায়কচিত’।

গত ৬ বছর ধরেই লাগাতার শক্তিক্ষয় হয়ে চলেছে কংগ্রেসের। সদ্য বিহার বিধানসভা ভোটের ফল সহ অন্যান্য রাজ্যেও খারাপ ফল হয়েছে দলের। দলের বিশ্রী ফলাফলের জন্য শীর্ষ নেতৃত্বকেই দায়ী করেছেন বহু কংগ্রেস শীর্ষ নেতা। যা নিয়ে দলের অন্দরেই বিতর্ক তুঙ্গে। প্রায়ত প্রণববাবুর লেখা বই সেই বিতর্ক আরও উসকে দিতে পারে বলেই মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

শুক্রবার ছিল প্রয়াত রাষ্ট্রপতির ৮৫ তম জন্মদিন। ওইদিনই প্রকাশ্যে এল ‘‌দ্য প্রেসিডেন্সিয়াল ইয়ার্স’–এ লেখা প্রণব মুখোপাধ্যায়ের বক্তব্য। সেখানে উল্লেখ, ‘কংগ্রেসের অনেক সদস্যই মনে করেছিলেন যে ২০০৪ সালে আমি প্রধানমন্ত্রী হলে ২০১৪-র ভরাডুবি এড়ান যেত। যদিও আমি তাতে বিশ্বাস করি না। আমি বিশ্বাস করি যে আমার রাষ্ট্রপতি হওয়ার পরই কংগ্রেস রাজনৈতিকভাবে দিক ভ্রান্ত হয়ে পড়েছিল। সোনিয়া গান্ধী দলের সব দিক সামলাতে পারছিল না। সংসদে বেশিরভাগ সময়ই ডঃ মনমোহন সিং অনুপস্থিত থাকায় সাংসদদের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক রাখতে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। যার দরুন ফলাফল খারাপ হয়েছে।’

প্রণববাবুকে কেন প্রদানমন্ত্রী করল না কংগ্রেস? যা নিয়ে নানা মত রয়েছে। প্রণবমুখোপাধ্যায় তাঁর বইয়ের তৃতীয় খণ্ডে জানিয়েছেন যে, তাঁর বিশ্বাস ২০১২ সালে কংগ্রেস থেকে প্রধানমন্ত্রীর হওয়ার যোগ্য দাবিদার ছিলেন তিনিই। তবে, ২০১২ সালের ২রা জুন সোনিয়া তাঁকে বলেছিলেন রাষ্ট্রপতি হিসাবে তাঁর নাম বিবেচনা করা হচ্ছে। প্রথমিকভাবে গররাজি থাকায় ইউপিএ চেয়ারপার্সন রাষ্ট্রপতি পদের জন্য তাঁর চেয়ে যোগ্য বিকল্প নামেরও সন্ধান দেওয়ার কথা বলেছিলেন।

সেই বৈঠকে ডঃ মনমোহন সিংকে রাষ্ট্রপতি করার প্রস্তাব সোনিয়াকে দিয়েছিলেন প্রণব। তাঁর মনে হয়েছিল, মনমোহনের অনুপস্থিতিতে তাঁকেই প্রধানমন্ত্রী হিসাবে বিবেচনা করবে কংগ্রেস নেতৃত্ব। সোনিয়া গান্ধী এই প্রস্তাব গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করেছিলেন বলে জানতে পেরেছিলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Congress lost political focus after i became president pranab mukherjee