scorecardresearch

বড় খবর

কোভিড আক্রান্তদেরও বিশেষ প্রয়োজনে অস্ত্রোপচার, নির্দেশ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের

সরকারের তরফে নতুন এই নির্দেশ যে নতুন বিতর্কের জন্ম দেবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

করোনায় আক্রান্ত কোন রোগীর অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হলে তাকে ফেরানো যাবে না এবার থেকে এমনই নির্দেশ জারি করল দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

করোনায় আক্রান্ত কোন রোগীর অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হলে তাকে ফেরানো যাবে না এবার থেকে এমনই নির্দেশ জারি করল দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রক। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন জরুরি প্রয়োজনে করোনা আক্রান্ত রোগীর অস্ত্রোপচারের দরকার হলে তাকে কোন ভাবেই ফেরানো যাবে না। এর কারণ হিসাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে বর্তমানে কোভিডের প্রকোপ অনেক কম সেই সঙ্গে কোভিডের তৃতীয় ঢেউ সেভাবে শরীরে জটিলতা সৃষ্টি করেনি।

বর্তমান তথ্য অনুসারে, কোভিডের অন্যান্য ঢেউয়ের তুলনায় তৃতীয় ঢেউকালে কোভিড পজিটিভ রোগীদের মধ্যে জটিলতা বা মৃত্যুহার তুলনায় অনেক কম। সেই তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে যাদের ক্ষেত্রে অস্ত্রোপচার অত্যন্ত জরুরি, তাদের মধ্যে কেউ কোভিড পজিটিভ হলেও তার অস্ত্রোপচার করা যেতে পারে।

সরকারের তরফে থেকে এই মর্মে হাসপাতালগুলিকেও নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। নির্দেশে বলা হয়েছে যে কোনও কোভিড রোগীদের অস্ত্রোপচার প্রয়োজন হলে কোন ভাবেই তাকে ফেরানো চলবে না। নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের অস্ত্রোপচারের ক্ষেত্রে ঝুঁকি ঠিক কতখানি এই বিতর্কের মধ্যেই সরকারের তরফে নতুন এই নির্দেশ যে নতুন বিতর্কের জন্ম দেবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

ইতিমধ্যেই করোনা তৃতীয় ঢেউ কালে একের পর এক ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্য কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সেক্ষেত্রে নয়া এই নির্দেশ কতটা কার্যকর হবে সে বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চিকিৎসক সমাজ। যদিও এই নির্দেশিকা ঘিরে কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানিয়েছেন, কোভিড আক্রান্তের অস্ত্রোপচার রোগীকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিতে পারে। সেই সঙ্গে চিকিৎসক স্বাস্থ্য কর্মীদেরও সংক্রমণের আশঙ্কাকে বাড়িয়ে তুলতে পারে বহুগুণে। যদিও করোনার দ্বিতীয় ঢেউকালে হাসপাতালগুলিতে কোভিড রোগীদের অস্ত্রোপচার সম্পূর্ণরূপে বন্ধ ছিল। 

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Covid 19 infected patient should not be denied surgery if needed health ministry