বড় খবর


টুলকিট কাণ্ডে অভিযুক্ত দিশা রবির জেল হেফাজতের নির্দেশ আদালতের

পরিবেশকর্মীকে নিজেদের হেফাজতে চেয়ে আবেদন করেছিল দিল্লি পুলিশ।

পরিবেশকর্মী দিশা রবি

টুলকিট-কাণ্ডে শুক্রবার পরিবেশকর্মী দিশা রবিকে তিন দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল দিল্লির আদালত। তার আগে পাতিয়ালা হাউস কোর্টে দিশাকে নিজেদের হেফাজতে চেয়ে আবেদন করে দিল্লি পুলিশ। তাঁকে জেরা করে এই ষড়যন্ত্রের পিছনে আরও কয়েকজনের নাম বের করতে চায় পুলিশ। কিন্তু আদালত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে।

এদিন সরকারি কৌঁসুলি আদালতকে জানান, পুলিশি জেরায় দিশা অন্য অভিযুক্ত শান্তনু এবং নিকিতা জ্যাকবের বিরুদ্ধে দায় ঠেলেছে। তাই দিশাকে শান্তনুর মুখোমুখি বসিয়ে ২২ ফেব্রুয়ারি জেরা করতে চায় পুলিশ। সেই কারণে তিন দিনের জন্য নিজেদের হেফাজতে দিশাকে চায় পুলিশ। পুলিশের দাবি, দিশা, শান্তনু এবং নিকিতারা মিলে একটি টুলকিট তৈরি করেন কৃষক আন্দোলনের জন্য যেটা পরে শেয়ার করেছিলেন পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ।। গ্রেটাকে সেই টুলকিট টেলিগ্রাম অ্যাপের মাধ্যমে পাঠান দিশা।

এদিকে, এদিনই দিল্লির আদালত নির্দেশ দিয়েছে, দিশা এবং টুলকিট সংক্রান্ত গোপন মেসেজ সংবাদমাধ্যমের কাছে ফাঁস না করে সাংবাদিক সম্মেলন করতে পারবে পুলিশ। দিশার তরফে এই বিষয়ে একটি পিটিশন দাখিল করা হয়ে আদালতে। সেই আবেদন খারিজ করেছে আদালত। বরং নির্দেশ দিয়েছে, সংবাদমাধ্যমের সম্পাদকরা যেন নিয়মের দায়েরে থেকে এই সংক্রান্ত খবর পরিবেশন করেন। পুলিশও যেন কোনও মেসেজ চ্যাট ফাঁস না করে।

অন্যদিকে, টুলকিট-কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত নিকিতা জ্যাকবকে ২১ দিনের জন্য স্বস্তি দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। বুধবার হাইকোর্টের ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চ এই আইনজীবীর তিন সপ্তাহের অন্তর্বর্তী জামিন গ্রাহ্য করেছে। এই মামলায় দিল্লি পুলিশের হাতে গ্রেফতারি এড়াতে বম্বে হাইকোর্টে দ্বারস্থ হয়ে অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করেন নিকিতা। সেই আবেদনের শুনানিতে ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চ বলেছে, ‘বুধবার থেকে শুরু করে আগামী ২১ দিন পর্যন্ত এই রক্ষাকবচ। এই সময়ের মধ্যে আবেদনকারী সংশ্লিষ্ট আদালতের দ্বারস্থ হয়ে স্বস্তির মেয়াদ বাড়াতে আবেদন করতে পারবেন।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Disha ravi sent to 3 day judicial custody in toolkit case

Next Story
প্রথম ধাপের সেনা সরানোর প্রক্রিয়া শেষ, শনিবারই দশম রাউন্ডের বৈঠকে ভারত-চিন
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com