বড় খবর

Farmers’ Movement-র ৭ মাস, কোভিড কমতেই দিল্লির রাজপথে কৃষকরা, বন্ধ থাকল মেট্রো

Farmers’ Movement: এদিন খেতি বাঁচাও, লোকতন্ত্র বাঁচাও স্লোগানের ব্যানারে এই প্রতিবাদ মিছিল আয়োজন করা হয়েছিল।

Farmers Movement, Delhi border
দিল্লি-গাজিপুর সীমান্তের উদ্দেশে ট্রাক্টর র‍্যালি কৃষকদের। এক্সপ্রেস ফাইল ফটো

Farmers’ Agitation in Delhi Border: দেশব্যাপী দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রকোপ কমতেই ঝিমিয়ে থাকা কৃষক আন্দোলন নিয়ে নড়েচড়ে বসলেন আন্দোলনকারীরা। নভেম্বর থেকে শুরু করে প্রায় ৭ মাস দিল্লি সীমান্তে চলছে ৩ কৃষি আইনের বিরোধিতায় এই আন্দোলন। সেই উপলক্ষে শনিবার দিল্লির রাজপথে পদয়াত্রার আয়োজন করেছিল কৃষক সংগঠনগুলো। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কয়েকটি স্টেশনে যাত্রী পরিষেবা বন্ধ রেখেছিল দিল্লি মেট্রো। জানা গিয়েছে, দিল্লি মেট্রোর ইয়েলো লাইনের অংশ বিশ্ববিদ্যালয়, সিভিল লাইন আর বিধানসভা স্টেশনের পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছিল। এদিন  খেতি বাঁচাও, লোকতন্ত্র বাঁচাও স্লোগানের ব্যানারে এই প্রতিবাদ মিছিল আয়োজন করা হয়েছিল। জানা গিয়েছে দেশে, জরুরি অবস্থা জারির ৪৬ বর্ষের প্রতিবাদে এই মিছিল।   

দিল্লিতে পদয়াত্রার পাশাপাশি সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা এদিন সব রাজ্যের কৃষকদের একটি বার্তা পাঠিয়েছে। সেই বার্তায় বলা, ‘রাজ্যপালের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে স্মারকলিপি পাঠাক সহমর্মী কৃষকরা।‘  এদিকে, ভারতীয় কৃষক ইউনিয়নের নেতা দর্শন পাল বলেন, ‘গত সাত মাস ধরে কৃষক সংগঠনগুলো সংযুক্ত মোর্চার ব্যানারে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও দীর্ঘ আন্দোলন সংগঠিত করছে। দেশের বিভিন্নপ্রান্ত থেকে হাজার খানেক মানুষ এই আন্দোলনের শরিক হয়েছেন। আমরা আগামী দিনে এই আন্দোলনকে আরও জোরাল করতে প্রস্তুতি নিচ্ছি।‘

এদিকে, কেন্দ্রীয় তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছেন কৃষকদের একাংশ। মূলত পাঞ্জাব, হরিয়ানা ও পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের কৃষকরাই এই আন্দোলনে সামিল। গত ৭ মাস ধরে দিল্লি সীমানায় চলছে ধর্না আন্দোলন। একাধিকবার আন্দোলনকারী কৃষক প্রতিনিধিদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের আলোচনা হলেও তা ফলপ্রসূ হয়নি। দু-পক্ষই নিজেদের অবস্থানে অনড়।

এই অবস্থায় কোভিড সংক্রমণ বাড়তে কিছুটা হলেও চাপা পড়ে যায় কৃষকদের অন্দোলন। কিন্তু সংক্রমণ কমতেই ফের নিজেদের দাবি দাওয়া আদায়ে প্রতিবাদ আন্দোলনের ধার বাড়াতে উদ্য়োগী দিল্লি সীমানায় অবস্থানকারী কৃষকরা। সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার নেতা ইন্দ্রজিৎ সিং বলেছেন, ‘কৃষকরা একযোগে ২৬ জুন জমি বাঁচাও-গণতন্ত্র বাঁচাও দিবস পালন করবে। প্রতিটি রাজ্যের রাজভবনের সামনে ধর্নায় কালো পতাকা দেখানো হবে। রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি দেওয়া হবে।’ ধর্নাস্থল হিসাবে কেন রাজভবনকে বেছে নেওয়া হল? কৃষক নেতার দাবি, ‘রাজ্যপালরা রাষ্ট্রপতির মনোনীত হয়ে থাকেন। তাই রাজভবনেরপ সামনে ধর্না হবে।’

ন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Farmers organised protest march in delhi to intensify their movement national

Next Story
শিশুদেহে Covavax ট্রায়ালে ড্রাগ কন্ট্রোলারের ছাড়পত্র চাইল Serum InstituteChild Vaccination, Bharat Biotech, SII
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com