scorecardresearch

বড় খবর

করোনা-কর্মহীনতা-বেসরকারি ব্যাঙ্কের চাপ! প্রবল অনটনেই কী ঘটল চরম পরিণতি?

একই পরিবারের ৫ সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধার!

করোনা-কর্মহীনতা-বেসরকারি ব্যাঙ্কের চাপ! প্রবল অনটনেই কী ঘটল চরম পরিণতি?
প্রতীকী ছবি

ঘরকে বিষাক্ত গ্যাসে ভরিয়ে আত্মহত্যা মা-মেয়েদের! কোভিডে বাবার মৃত্যুর পর থেকে মানসিক অবসাদে ভুগে অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে মা-মেয়ে। দক্ষিণ দিল্লির বসন্ত বিহারের এই ঘটনা তোলপাড় ফেলেছিল। ফের একই পরিবারের পাঁচজন সদস্যর অস্বাভাবিক মৃত্যু। কোভিডের পর থেকে চরম অর্থনৈতিক সংকটের মুখে থাকা একই পরিবারের পাঁচজনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া। পুলিশ জানিয়েছে ঘর থেকে মেলেনি কোন সুইসাইড নোট, একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে।

প্রতিবেশিদের দাবি, বাড়ির মালিক মনোজ ঝা বেশ কয়েকদিন আগেই দেনার চাপে আত্মহত্যা করেন। তারপর থেকেই পরিবারের কেউই সেভাবে পাড়ার কারুর সঙ্গে মেলামেশা করত না। পরিবারটি মানসিক অবসাদে ভুগছিল বলেও দাবি পড়শিদের। চরম আর্থিক সংকটের কারণেই যে পরিবারের পাঁচ সদস্য আত্মহত্যা করেছে এমনটাই প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের।

বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে সুন্দরমণি দেবী (৩৮) এবং তার দুই সন্তান, সত্যম কুমার(১০), এবং শিবম কুমার (৭), এবং মা, সীতা দেবীর (৬৫) মৃতদেহ। দেহগুলি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশ সুপার দিনেশ পান্ডে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন,” প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে আর্থিক দেনার কারণেই পরিবারের ৫ সদস্য আত্মঘাতী হয়েছেন, আমরা ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পরই মৃত্যুর সঠিক কারণ অনুধাবণ করতে পারব। সব থেকে গুরুত্বপুর্ণ পাশের ঘরেই পরিবারেও আরও ২ সদস্য ঘুমাচ্ছিলেন, তাদেরও জেরা করা হচ্ছে”।

আরও পড়ুন: Kanpur Clash:পুলিশি সক্রিয়তা বাড়াতেই দাঙ্গার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

অপর এক প্রতিবেশি পি কে সিং জানান, ‘মহামারীর পর থেকেই এই পরিবার আর্থিক অনটনে ভুগছিল, প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা দেনা ছিল পরিবারের, বেসরকারি ব্যাঙ্ক থেকে কিস্তি দিতে না পারার কারণে একটি গাড়ি এবং একটি অটো ইতিমধ্যেই বাজেয়াপ্ত করা হয়। তাতে আরও ভেঙে পড়ে পরিবার’ । বিহারের সমস্তিপুরের এই ঘটনা আরও একবার প্রমাণ করল, করোনা মহামারী কিভাবে মানুষের জীবনকে ছাড়খার করেছে।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Five of family found dead in bihar