নোটবন্দির জেরে গত চার বছরে স্বচ্ছতা ‘বৃদ্ধি’ হয়েছে, দাবি মোদীর

দেশের অগ্রগতির জন্য এই নোটবন্দিকরণ অত্যন্ত উপকারী ভূমিকা গ্রহণ করেছে ডিমনিটাইজেশনের চতুর্থবর্ষ পূর্তিতে এমন বার্তাই দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

দেশকে ব্ল্যাক মানি থেকে স্বচ্ছ করে তুলে চার বছর আগে দেশে নজিরবিহীন নোটবন্দিকরণের পদক্ষেপ নিয়েছিল নরেন্দ্র মোদী সরকার। কালো টাকা কমিয়ে, করের টাকা কোষাগারে জমা করতে এবং দেশের অগ্রগতির জন্য এই নোটবন্দিকরণ অত্যন্ত উপকারী ভূমিকা গ্রহণ করেছে ডিমনিটাইজেশনের চতুর্থবর্ষ পূর্তিতে দেশবাসীর উদ্দেশে এমন বার্তাই দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

রবিবার নমো টুইটে বলেন, “কালো টাকা কমাতে, কর আদায় করতে এবং স্বচ্ছতা বাড়িয়ে তুলতে নোটবন্দিকরণ অনেকটাই সাহায্য করেছে। যা জাতীয় অগ্রগতিতে ব্যাপকভাবে সাহায্য করেছে। #DeMolishingCorruption”।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ৮ নভেম্বর অপ্রত্যাশিতভাবে এই পদক্ষেপ নিয়েছিল নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার। হঠাৎ করেই ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট বাতিল ঘোষণা করা হয়। হঠাৎ নোট প্রত্যাহার করায় ব্যাঙ্কে চাপ বৃদ্ধি পায়। বাজারের চাহিদাও কমে যায়, সঙ্কটের মুখোমুখি হয় বহু ব্যবসা, জিডিপির বৃদ্ধিও কমে যায় ১.৫ শতাংশ। এর ফলে অর্থনীতিতে অনেকটা ধাক্কা এসে পড়ে। ছোট ছোট ইউনিটগুলি আর্থিক সমস্যার সম্মুখীন হয়। নয় মাস পরেও যে চিত্রে কোনও বদল আসেনি।

পরিসংখ্যান বলছে, নোটবন্দির সময় ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তুলতে গিয়ে প্রায় ১১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বিভিন্ন সময়ে। যদিও পরবর্তীতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া নতুন ৫০০ ও ২ হাজার টাকার নোট আনে বাজারে কিন্তু তার গতি ছিল কম। মোদীর এই সিদ্ধান্ত বিরোধী মহলেও সমালোচিত হয়েছিল। এরপরই আরবিএর তরফে বলা হয়, নোটবন্দির ফলে যে টাকা প্রত্যাহার করা হয়েছিল তা ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থায় ফিরে এসেছে।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Four years since demonetisation what pm modi said on the outcomes of the move

Next Story
নিয়ন্ত্রণরেখায় অনুপ্রবেশের ছক বানচাল, এনকাউন্টারে নিকেশ ৩ জঙ্গি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com