বড় খবর

দিনভর যা হলো জি-২০ শীর্ষ বৈঠকে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিভিন্ন দেশের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ইতিমধ্যেই সাক্ষাৎ করেছেন। ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির নেতৃত্বের সঙ্গেও একটি বৈঠকে মিলিত হয়েছেন তিনি।

মার্কিন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী

জাপানের ওসাকায় জি-২০ শীর্ষ বৈঠক শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিভিন্ন দেশের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ইতিমধ্যেই সাক্ষাৎ করেছেন। ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির নেতৃত্বের সঙ্গেও একটি বৈঠকে মিলিত হয়েছেন তিনি। মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গেও কথা বলেছেন মোদী। ভারতের প্রতি “ভালবাসার” জন্য ট্রাম্পকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

জি-২০ শীর্ষ বৈঠকে এখনও পর্যন্ত যা যা হয়েছে 

মোদী-ট্রাম্প আলোচনা: মার্কিন রাষ্ট্রপতি ট্রাম্পের সঙ্গে মোদীর আলোচনায় এদিন উঠে এসেছে বাণিজ্য, প্রতিরক্ষা এবং ৫-জি নেটওয়ার্ক সংক্রান্ত বিষয়গুলি। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে বিপুল বিজয়ের পর মার্কিন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে মোদীর এটাই প্রথম বৈঠক। বৈঠকের সময় মোদী জানিয়েছেন, ট্রাম্পের সঙ্গে তিনি ইরান, প্রতিরক্ষা. দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের মতো বিষয়গুলি নিয়ে কথা বলতে চান। অন্যদিকে ট্রাম্প জানান, ভারত এবং আমেরিকার মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী বন্ধুত্বের বিষয়ে তিনি অত্যন্ত আশাবাদী।

আরও পড়ুন: তিন বছরের দত্তক শিশু খুনে বাবার যাবজ্জীবন

এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রসঙ্গ উঠল না ট্রাম্প-মোদী বৈঠকে: তবে ট্রাম্প ও মোদীর এদিনের বৈঠকে রাশিয়ার কাছ থেকে ভারতের এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র কেনার বিষয়ে কোনও কথা হয়নি বলে জানিয়েছেন বিদেশ সচিব বিজয় গোয়েল। তিনি বলেন, দুই নেতার মধ্যে অত্যন্ত ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। নির্বাচনে বিপুল জয়লাভের জন্য মোদীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ট্রাম্প। অন্যদিকে মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেওর মাধ্যমে ট্রাম্প মোদীকে যে চিঠি পাঠিয়েছিলেন, তাঁর জন্য মার্কিন রাষ্ট্রপ্রধানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

‘মানবতার সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসবাদ’: প্রধানমন্ত্রী মোদী ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে তিনি বলেন, মানবতার সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষের নাম সন্ত্রাসবাদ। কেবলমাত্র অসংখ্য নিরীহ, নিরপরাধ প্রাণ কেড়ে নেওয়াই নয়, সন্ত্রাসবাদ অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সামাজিক স্থিতাবস্থার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। ব্রিকস গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলিও এদিন একটি যৌথ বিবৃতি দিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতায় সরব হয়েছে।

মোদী-ট্রাম্প-আবের ত্রিপাক্ষিক বৈঠক: জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে এদিন বৈঠক করেন মোদী ও ট্রাম্প। ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে উঠে এসেছে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা, পরিকাঠামো উন্নয়ন-সহ বিভিন্ন ইস্যু। প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে টুইট করে জানানো হয়েছে, তিনটি দেশই এই অঞ্চলের ভবিষ্যর উন্নয়নের প্রতি নিজেদের সংকল্প ব্যক্ত করেছে। নির্বাচনীর সাফল্যের জন্য মোদীর পাশাপাশি জাপানের প্রধানমন্ত্রীকেও অভিন্দন জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি।

আরও পড়ুন, মায়াবতী উবাচ: বিজেপি শাসিত রাজ্যে সাম্প্রদায়িক হিংসা লজ্জায় ফেলছে দেশ, প্রধানমন্ত্রীকে

পরিবেশ সংক্রান্ত বিষয়ে মিত্ররাষ্ট্রগুলিকে চাপ দিচ্ছে আমেরিকা, দাবি ফ্রান্সের: ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রবল বিরোধিতা সত্ত্বেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্যারিস পরিবেশ চুক্তি প্রত্যাখ্যানের জন্য জি-২০-এর অর্ন্তগত মিত্ররাষ্ট্রগুলিকে চাপ দিচ্ছে বলে দাবি করে ফ্রান্স। সংবাদ সংস্থা এএফপিকে ফ্রান্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অন্তত তিন থেকে চারটি দেশকে আমেরিকা এই সংবাদ বিষয়ে চাপ দিচ্ছে। যদিও ওই রাষ্ট্রগুলির নাম জানানো হয়নি।

পুতিনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক অত্যন্ত ভাল, দাবি করলেন ট্রাম্প: জি-২০ শীর্ষ বৈঠকের ফাঁকেই রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি পুতিনের সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠক করলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। ট্রাম্প এদিন দাবি করেন, পুতিনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক অত্যন্ত ভাল। প্রসঙ্গত, এর আগে ট্রাম্প এবং পুতিন হেলসিঙ্কিতে বৈঠক করেছিলেন।

আফ্রিকার দেশগুলির সঙ্গে বৈঠক চিনের: জি-২০ শীর্ষ বৈঠকের ফাঁকেই এদিন আফ্রিকার একাধিক দেশের সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠক করলেন চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং। ওই বৈঠকে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতি সিরিল রামাফোসা, মিশরের রাষ্ট্রপতি আবদেল ফাতাহ আল সিসি এবং সেনেগালের রাষ্ট্রপতি মাকে সাল। চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ্বজুড়ে চাপসৃষ্টির যে রাজনীতি চলছে, বৈঠকে অংশ নেওয়া রাষ্ট্রপ্রধানেরা তার সমালোচনায় সরব হয়েছেন।

আগামী বসন্তে জাপানে যাবেন চিনের রাষ্ট্রপতি: চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং এদিন জানিয়েছেন, আগামী বছরের বসন্তে তিনি জাপান সফর করবেন। প্রসঙ্গত, গত বছর জাপানের প্রধানমন্ত্রী আবে চিন সফর করেছিলেন। এদিন তিনি জিনপিংকে আগামী বসন্তে টোকিওতে আসার আমন্ত্রণ জানান। চিন জানিয়েছে, এশিয়ার এই দুই বৃহৎ অর্থনৈতিক শক্তির পারস্পরিক যোগাযোগ তৈরি হলে তা সারা বিশ্বের জন্য ফলদায়ক হবে।

ভারতের হজ-কোটা ৩০ হাজার বাড়াল সৌদি আরব: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন সৌদি আরবের রাজা মহম্মদ বিন সলমনের সঙ্গেও আলাদাভাবে বৈঠক করেন। সলমন জানান, আগামী বছর থেকে ভারতে হজ-কোটা ১ লক্ষ ৭০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ২ লক্ষ করা হবে। অর্থাৎ, মক্কায় পুণ্য অর্জনের জন্য ভারত থেকে  আরও ৩০ হাজার জন মুসলিম বেশি যেতে পারবেন।

Read the full story in English

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: G 20 summit osaka japan narendra modi donald trump

Next Story
বিহারে শিশুমৃত্যু: এইমস-এর রিপোর্টে কাঠগড়ায় সরকার, প্রশাসনbihar child death
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com