সরকার-সুপ্রিম কোর্টের তীব্র টানাপোড়েন, আইনমন্ত্রী 'লক্ষ্মণ রেখা' অতিক্রম করছেন, হুঁশিয়ারি সালভের: Harish Salve accused that rijiju crossed Lakshman Rekha | Indian Express Bangla

সরকার-সুপ্রিম কোর্টের তীব্র টানাপোড়েন, আইনমন্ত্রী ‘লক্ষ্মণ রেখা’ অতিক্রম করছেন, হুঁশিয়ারি সালভের

সোমবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এসকে কউলও রিজিজুর মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন।

সরকার-সুপ্রিম কোর্টের তীব্র টানাপোড়েন, আইনমন্ত্রী ‘লক্ষ্মণ রেখা’ অতিক্রম করছেন, হুঁশিয়ারি সালভের
হরিশ সালভে ও কিরেন রিজিজু

বিচার বিভাগ নিয়ে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেন রিজিজুর মন্তব্য, ‘লক্ষ্মণরেখা ছাড়িয়েছে’। এবার এমনই অভিযোগ করলেন প্রবীণ আইনজীবী হরিশ সালভে। কলেজিয়াম দ্বারা অনুমোদিত ফাইলগুলো সরকার আটকে রেখেছে। শীর্ষ আদালতের এই পর্যবেক্ষণের সমালোচনা করেছেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কিরেন রিজিজু। কলেজিয়ামের কার্যকারিতা নিয়ে সরকার ও বিচার বিভাগের টানাপোড়েনের মধ্যে এই সমালোচনা করেছেন রিজিজু। তার প্রেক্ষিতেই প্রবীণ আইনজীবী হরিশ সালভে বলেছেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী ‘লক্ষ্মণ রেখা’ অতিক্রম করেছেন।

এই প্রসঙ্গে সালভে বলেন, ‘আমার মতে আইনমন্ত্রী যা বলেছেন, তা লক্ষ্মণ রেখা অতিক্রম। তিনি যদি মনে করেন যে সুপ্রিম কোর্ট একটি নির্লজ্জ অসাংবিধানিক আইন দেখলেও হাতে হাত ধরে বসে থাকবে আর সেই আইন সংশোধন করার জন্য সরকারের উদারতার কাছে দাসত্ব করবে, দুঃখিত, তবে তিনি ভুল করছেন।’ প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি ইউইউ ললিতের সঙ্গে, ‘ভারতের বিচার ব্যবস্থাকে কী ধীরে চালিত করছে?’- এই সংক্রান্ত আলোচনায় সালভে রিজিজু সম্পর্কে একথা জানিয়েছেন।

তাহলে তিনি কি সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম পদ্ধতিকে সমর্থন করেন? এই প্রসঙ্গে অবশ্য সালভে জানিয়েছেন, তিনি এই ব্যবস্থার কঠোর সমালোচক। শুক্রবার কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রিজিজু সুপ্রিম কোর্টের পর্যবেক্ষণের সমালোচনা করে বলেছিলেন যে, ‘কখনও বলবেন না যে সরকার ফাইল নিয়ে বসে আছে। তাহলে, সরকারের কাছে ফাইল পাঠাবেন না। নিজেই নিয়োগ করুন। নিজেই গোটা ব্যবস্থাটা চালান।’ কলেজিয়াম ব্যবস্থাকে কার্যত অসাংবিধানিক আখ্যা দিয়ে রিজিজু বলেছিলেন, ‘আপনি আমাকে বলুন যে কোন আইনের অধীনে কলেজিয়াম ব্যবস্থা চালু রয়েছে।’

আরও পড়ুন- ধারাভিতে বস্তি উচ্ছেদ! হাতছাড়া নিলাম কোন পথে মোদী-ঘনিষ্ঠ আদানির দখলে?

সালভে এই সব বলার আগে সোমবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এসকে কউলও রিজিজুর মন্তব্যে তীব্র সমালোচনা করেছিলেন। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রীর মন্তব্য সম্পর্কে কউল বলেছিলেন যে এমনটা বলা ঠিক না। আইনমন্ত্রীর নাম না-করেই বিচারপতি কউল বলেন, ‘ক্ষমতা কাউকে দিতে চাইলে তাদের ক্ষমতা দিয়ে দিন। আমাদের কোনও অসুবিধা নেই। আমি সমস্ত প্রেস রিপোর্ট উপেক্ষা করছি। কিন্তু, তিনি যা বলেছেন, যখন যথেষ্ট উচ্চস্তরের কেউ বলেন যে তাঁদের নিজেদেরকেই এটি করতে দিন, তখন আমরা নিজেরাই এটি করব। কোনও অসুবিধা নেই। আমি শুধু বলব যে, এমনটা হওয়া উচিত না।’

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Harish salve accused that rijiju crossed lakshman rekha

Next Story
কাতারে শোরগোল! শেষ পর্যন্ত কত শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন? হাটে হাঁড়ি ভাঙলেন আধিকারিক