scorecardresearch

বড় খবর

লকডাউনে অধিক করোনা পরীক্ষা-আরও কোয়ারেন্টাইনের পরিকল্পনা প্রয়োজন: আইসিএমআর

‘লকডাউনের ফলে করোনা মহামারীর প্রকোপ প্রায় ৪৩ শতাংশ কমেছে। মৃত্যু হারও কমেছে প্রায় ১৯ শতাংশ।’

লকডাউনে অধিক করোনা পরীক্ষা-আরও কোয়ারেন্টাইনের পরিকল্পনা প্রয়োজন: আইসিএমআর
প্রতীকী ছবি।

লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির বদলে একযোগে করোনা পরীক্ষা ও কোয়ারেন্টাইনের মত পদক্ষেপ ভাল করে লাগু করা গেলেই ভারতে সংক্রমণ রোধ অনেকটা কমিয়ে আনা সম্ভব। এমনটাই পরামর্শ ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ বা আইসিএমআর-এর বিশেষজ্ঞদের।

আইসিএমআর-এর স্বাস্থ্য গবেষণা বিভাগের সদস্য সন্দীপ মণ্ডলের নেতৃত্বাধীন এক গবেষমার প্রকাশ, ২১ দিনের লকডাউনের ফলে করোনা মহামারীর প্রকোপ প্রায়. ৪৩ শতাংশ কমেছে। মৃত্যু হারও কমেছে প্রায় ১৯ শতাংশ। করোনা পরীক্ষা ও কোয়ারেন্টাইন পদক্ষেপ নিখুঁতভাবে লাগু করা সম্ভব হলেই সংক্রমণের প্রকোপ প্রায় ৭১ শতাংশ পর্যন্ত কমানো যাবে। এই ভাইরাসে মৃত্যুর হারও কমে যাবে প্রায় ৪০ শতাংশ।

আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধে ভারতকে ১০০ কোটি অনুদান বিশ্ব ব্যাঙ্কের

ফেব্রুয়ারি মাসে আইসিএমআর-এর গাণিতিক মডেলেরও প্রধান ছিলেন সন্দীপ মণ্ডল। সেই গবেষণায় পর আট বিজ্ঞানীর সুপারিশ ছিল যে, দেশের সীমান্তে স্ক্রিনিংয়ের বদলে করোনার ব়্যানডাম টেস্ট ও কোয়ারেন্টাইনের উপর গুরুত্ব আরোপের করা হোক। কেন্দ্রীয় সরকারকে সেই সুপারিশ করা হয়েছিল।

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে আইসিএমআর-এর স্বাস্থ্য গবেষণা বিভাগের সদস্য সন্দীপ মণ্ডল বলেন, ‘ছয় থেকে সাত দিনের মধ্যে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধি হার আটকানো গিয়েছে।’ তবে তিনি এও মনে করেন যে- বর্তমানে করোনা আক্রান্তের যে সংখ্যা রয়েছে, দেশে তার থেকে বেশি জন সংক্রমিত হয়েছেন। লকডাউন সমস্যা সমাধানে শেষ পদক্ষেপ নয় বলেই জানান তিনি। তাঁর কথায়, ‘লকডাউনের ফলে মহামারীর প্রকোপ কমছে। মৃত্যু হার হ্রাস পেয়েছে। কিন্তু, সমস্যা নির্মূল করতে অতিরিক্ত পদক্ষেপ প্রয়োজন।’

আরও পড়ুন:  ২১ দিন পর কি সীমিত লক ডাউনের পথে যাবে দেশ?

এই অতিরিক্ত পদক্ষেপ বলতে ঠিক কী বোঝানো হচ্ছে? বিজ্ঞানী সন্দীপ মণ্ডলের জানান, ‘করোনার প্রভাবযুক্ত এলাকাগুলো খুঁজে বার করতে হবে। এরপর করোনার লক্ষণযুক্ত ও লক্ষণহীন গোষ্ঠীগুলিকে চিহ্নিত করা প্রয়োজন। তবে, নিজামুদ্দিনের মত ঘটনা ঘটলে কারোই কোনও নিয়ন্ত্রণ থাকবে না।’ আস্তে আস্তে দেশ থেকে লকডাউন তোলা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

সিঙ্গাপুর, চিন, হংকং-য়ের মত দেশগুলিতে দেখা গিয়েছে লকডাউনের পরও করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে। ভারতে তা কীভাবে রোধ করা সম্ভব তার ব্যাক্য়া দিতে গিয়েই করোনী পরীক্ষা ও কোয়ারেন্টাইনের উপর গুরুত্ব আরোপের কথা বলা হয়েছে।

Read the full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Icmr research sayes need to add new test and quarantine plan to lockdown