কাঁটাতার পেরিয়ে পাকিস্তানে ‘ চৌকিদার চোর হ্যায়’, সেনার বিরুদ্ধে অভিযোগ ইমরানের দলের

শুধু লাল হাভেলি এলাকাই না। লাহোরের লাইব্রেরি চক, ইসলামাবাদ, করাচি, ফয়সলাবাদ, মুলতান, গুজরনওয়ালা, ভেহারি, জেহলুম এবং পাকিস্তানের গুজরাট জেলাতেও ইমরানকে সরানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখান তাঁর অনুগামীরা।

কাঁটাতার পেরিয়ে পাকিস্তানে ‘ চৌকিদার চোর হ্যায়’, সেনার বিরুদ্ধে অভিযোগ ইমরানের দলের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী স্লোগান তুলেছিলেন, ‘ চৌকিদার চোর হ্যায়’। সেই স্লোগান এবার কাঁটাতার পেরিয়ে ঢুকে পড়ল ভারতের বিরূপ প্রতিবেশী পাকিস্তানে। আর, সেই স্লোগান তুলল পাকিস্তানের সদ্য অপসারিত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দল, ‘ তেহরিক-ই-ইনসাফ’। সম্প্রতি ইমরান তাঁর বক্তব্যে বারবার ভারতের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেছেন। ভারতের বিদেশনীতিরও প্রশংসা করেছেন। এবার সেই ইমরানের দলই ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ স্লোগান ভারত থেকে আমদানি করল।

পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশে এক মিছিলে এই স্লোগান শোনা গেল ইমরানের দলের নেতা-কর্মীদের মুখ থেকে। ঘটনার সময় পাকিস্তান আওয়ামি মুসলিম লিগ দলের প্রধান তথা পাকিস্তানের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ লাল হাভেলি এলাকায় বক্তৃতা দিচ্ছিলেন। সেই সময় বিক্ষোভকারীরা ইমরানের সম্পর্কে রায় চুরির অভিযোগে পাকিস্তান সেনার বিরুদ্ধে ‘ চৌকিদার চোর হ্যায়’ স্লোগান দেন। আহমেদ অবশ্য সমর্থকদের এই স্লোগান দিতে বারণ করেন। একইসঙ্গে জানান, তাঁরা শান্তিপূর্ণ ভাবে বিষয়টির মোকাবিলা করবেন।

রবিবারই পাকিস্তানে আস্থাভোট হয়েছে। ৩৪২ আসনের জাতীয় পরিষদে ১৭৪টি ভোট বিপক্ষে পড়েছে। তার জেরে ক্ষমতা হারাতে হয়েছে ‘পাকিস্তান-তেহরিক-ই-ইনসাফ’কে। গোটা ঘটনায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করেছেন ইমরান খান নিজে ও তাঁর অনুগামীরা। তার প্রেক্ষিতে শেখ রশিদ আহমেদ বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, ‘অন্ধকারে কোনও সিদ্ধান্ত নেবেন না। যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার, দিনের আলোয় নিন।’ ইমরানকে সরানোর প্রতিবাদে রীতিমতো ‘জেল ভরো’ আন্দোলনের ডাক দিয়ে শেখ রশিদ আহমেদ বলেন, ‘২৯ এপ্রিল ইদ। ওই দিন লাল হাভেলি থেকে আমরা প্রতিদিন জেল ভরো আন্দোলনের ডাক দিচ্ছি। সেজন্য প্রস্তুতি নিন।’

শুধু লাল হাভেলি এলাকাই না। লাহোরের লাইব্রেরি চক, ইসলামাবাদ, করাচি, ফয়সলাবাদ, মুলতান, গুজরনওয়ালা, ভেহারি, জেহলুম এবং পাকিস্তানের গুজরাট জেলাতেও ইমরানকে সরানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখান তাঁর অনুগামীরা। জনসাধারণ পথে নেমে বিক্ষোভ দেখানোয় সাধারণ মানুষকে ধন্যবাদ দিয়েছে তেহরিক-ই-ইনসাফ। তারা টুইট করেছে, ‘সুক্রিয়া পাকিস্তান! আমরা বিদেশি হস্তক্ষেপের বিরোধী। আমরা ইমরান খানের পাশে আছি।’

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Imran khan supporters blame pakistan army at rally

Next Story
হ্যাকার নিশানায় যোগী সরকারের টুইটার হ্যান্ডেল, হ্যাক কংগ্রেসের অ্যাকাউন্ট