কোভিশিল্ডে মান্যতা নয়, ব্রিটেনের নীতি ‘বৈষম্যমূলক’, কড়া প্রতিক্রিয়া নয়াদিল্লির

ভারত সহ বেশ কয়েকটি দেশ ও উপমহাদেশ থেকে সেদেশে গেলেই থাকতে হবে ১০ দিনের সেল্ফ কোয়ারেন্টিনে। তারমধ্যেই কোভিড পরীক্ষাও বাধ্যতামূলক।

India said UK govts decision to not recognise Covishield is discriminatory policy
ক্ষুব্ধ ভারত, দ্রুত সমস্যা মেটানোর আবেদন দিল্লির।

কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনকে মান্যতা দেয়নি ব্রিটেন। ভারত সহ বেশ কয়েকটি দেশ ও উপমহাদেশ থেকে সেদেশে গেলেই থাকতে হবে ১০ দিনের সেল্ফ কোয়ারেন্টিনে। তারমধ্যেই কোভিড পরীক্ষাও বাধ্যতামূলক। ফলে ব্রিটেন যাওয়া এখন সমস্যা হয়ে উঠেছে ভারতীয়দের পক্ষে। রানির দেশের এই নীতির বিরুদ্ধে এবার কড়া প্রতিক্রিয়া দিল নয়াদিল্লি। ব্রিটেনের নীতি ‘বৈষম্যমূলক’ বলে দাবি করেছেন বিদেশ মন্ত্রকের সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা।

এই বিষয়ে ভারতের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে ব্রিটেনের বিদেশ সচিবের কথা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রিংলা। দ্রুত সমস্যা সমাধানের জন্য ব্রিটেন আশ্বস্ত করেছে বলে ভারতের বিদেশ সচিব সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে জানিয়েছেন।

বিদেশিদের ব্রিটেন ভ্রমণ নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে ব্রিটিশ সরকার। সেখানে বলা হয়েছে, যেসব ভারতীয় কোভিশিল্ডের দুটি ডোজ নিয়েছেন তাঁদের ভ্যাকসিন হয়নি বলেই ধরে নেওয়া হবে। ফলে তাঁকে ১০ দিন সেল্ফ আইসোলেশনে থাকতে হবে। করাতে হবে কোভিড টেস্ট। এতেই অসন্তুষ্ট ভারত। ভারত ছাড়াও দক্ষিণ এশিয়ার একাধিক দেশ, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার দেশগুলির জন্যও এই নিয়ম বলবথ হবে।

এই ইস্যুতে গতকাল টুইট করে বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন শশী থারুর। তিনি লিখেছিলেন, ‘পুরোপুরি টিকাপ্রাপ্ত ভারতীয়দের কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা অপমানজনক। ব্রিটিশরা কি দ্বিতীয়বার যাচাই করছে নাকি!’ তোপ দাগেন আর এক কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশও। তিনি বলেন, ‘কোভিশিল্ড প্রথমে তো ব্রিটেন এবং সেরাম ইনস্টিটিউটেই তৈরি করা হয়েছিল। পুনে থেকে ও দেশেও টিকার জোগান দেওয়া হয়েছে। এ তো বর্ণবৈষম্য!’

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: India said uk govts decision to not recognise covishield is discriminatory policy

Next Story
সন্ত্রাস দমনে তৎপরতা, জম্মু কাশ্মীরের বিভিন্ন এলাকায় NIA তল্লাশি
Show comments