বড় খবর

১৫ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ আন্তর্জাতিক বিমান-কংগ্রেসকে বেনজির আক্রমণ নাড্ডার-লাদাখ ইস্য়ুতে মোদীকে ফের প্রশ্ন সোনিয়ার-আসামে জল বন্ধের অভিযোগ নস্য়াৎ ভুটানের

আজ কী ঘটল দেশে? আপডেটেড থাকতে আপনাকে যে খবর জানতেই হবে, দিনের সব গুরুত্বপূর্ণ খবর এই প্রতিবেদনে।

India latest news, দেশের খবর, ভারতের খবর
দেশের খবর একনজরে।

করোনা আবহে সমস্ত যাত্রীবাহী আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল ডিজিসিএ। এদিকে, রাজীব গান্ধীর নাম নিয়ে কংগ্রেসকে বেনজির আক্রমণ করলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি নাড্ডা। অন্য়দিকে, লাদাখ ইস্য়ুতে ফের মোদীর দিকে প্রশ্ন তাক করলেন সোনিয়া। আবার, ভুটান আসামের কিছু অংশে সেচের জল সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এই রিপোর্ট সরাসরি নাকচ করল থিম্পু। দেশের এমনই সব গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন এক এক করে…

১৫ জুলাই পর্যন্ত দেশে বন্ধ আন্তর্জাতিক বিমান: ডিজিসিএ

air, বিমান
ফাইল ছবি।

দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার প্রকোপ। এই পরিস্থিতিতে এখনই উড়বে না আন্তর্জাতিক বিমান। সমস্ত যাত্রীবাহী আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্তের কথা শুক্রবার জানাল ডিজিসিএ।

* এদিন ডিজিসিএ-র তরফে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, ”সমস্ত আন্তর্জাতিক যাত্রীবাহী বিমান পরিষেবা ১৫ জুলাই রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত বন্ধ থাকবে”।

*উল্লেখ্য়, গত ২৩ মার্চ থেকে বন্ধ রাখা হয়েছে আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

করোনায় আগামী দিনে হয়তো সব ট্রেন চালানো সম্ভব হবে না: রেল


করোনা পরিস্থিতিতে আগামী দিনে ট্রেন চালু নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিল। শুক্রবার রেলের তরফে জানানো হয়েছে, ”করোনা পরিস্থিতিতে আগামী দিনে সব ট্রেন হয়তো চালানো সম্ভব হবে না”।

* উল্লেখ্য়, করোনা আবহে আগামী ১২ অগাস্ট পর্যন্ত সমস্ত যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল।

* এই সময় শুধু স্পেশাল ট্রেন চালানো হবে।

* ট্রেনের টিকিটের পুরো টাকা যাত্রীদের ফেরত দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে রেল। (Read in English)

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

কবে লাদাখের এলাকা আমাদের ফিরিয়ে দেবে মোদী সরকার, প্রশ্ন সোনিয়ার

sonia gandhi, সোনিয়া গান্ধী, সোনিয়া
মোদী ও সোনিয়া।

লাদাখে প্রবেশ করছে চিনা সেনা, সম্প্রতি এই তথ্য সামনে আসতেই ভারত-চিন সীমান্ত প্রসঙ্গে এবার মোদী সরকারের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুললেন কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী। লাদাখ থেকে চিনা সেনাদের সরাতে মোদী সরকার কী করছেন তা জানাতে হবে সকলকে, এমনটাই জানিয়েছেন কংগ্রেস সভানেত্রী।

একটি ভিডিও বার্তায়-এ সোনিয়া বলেন, “আজ যখন ভারত চিন সীমান্তে সমস্যা চলছে তখন কেন্দ্রীয় সরকার কখনই তাঁর দায়িত্ব লুকিয়ে যেতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী বলছেন আমাদের এলাকায় কেউ আসেনি। অন্যদিকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং বিদেশমন্ত্রী জানাচ্ছেন কতজন চিনা সৈন্য আছে এলাকায় এবং সেই বিষয়ে আলোচনাও করছেন তাঁরা।”

তিনি এও বলেন যে, কীভাবে চিনারা লাদাখে ঢুকে পড়ছে তা উপগ্রহ চিত্রতে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে। তাই এই পরিস্থিতি দেশ জানতে চায় কবে মোদী সরকার আমাদের লাদাখের এলাকা ফিরিয়ে দেবে?”

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

সুপ্রিম নির্দেশ: আইএসসিইর দশম-দ্বাদশের ফলাফলও জুলাইয়ের মাঝামাঝি

সুপ্রিম কোর্ট আজ কেন্দ্রীয় শিক্ষা বোর্ড – সিবিএসই এবং সিআইএসসিই – উভয়কেই জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ফলাফল ঘোষণা করার নির্দেশ দিয়েছে। বোর্ড কীভাবে পরীক্ষা না নিয়ে ফলাফল ঘোষণা করবে, সে সম্পর্কে সিবিএসই আদালতে একটি বিশদ বিবৃতি জমা করেছে, তবে সিআইএসসিই এখনও এ জাতীয় বিবরণ প্রকাশ করতে পারেনি।

*সিবিএসইয়ের বিপরীতে, সিআইএসসিই সম্ভবত দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদেরও পরীক্ষার জন্য বিকল্প ব্যবস্থা নেবে।

* সিবিএসই বোর্ডের আওতায় যদি কোনও শিক্ষার্থী বিশেষ পদ্ধতির মাধ্যমে প্রদত্ত নম্বর নিয়ে সন্তুষ্ট না হয়, তবে সে পরবর্তীকালে পরীক্ষায় বসার সুযোগ পেতে পারে, যার তারিখ এখনও ঘোষণা করা হয়নি।

*তবে এই সুবিধাটি কেবল দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জন্য উপলব্ধ, দশম শ্রেণীর ক্ষেত্রে আর কোনও পরীক্ষা নেওয়া হবে না। কিন্তু, আইএসসিইর দশম-দ্বাদশের মূল্যায়ণ আলাদা হবে সিবিএসই-র থেকে।

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

বাংলার গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন

কংগ্রেসের সময়ে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন হয়ে গিয়েছিল, বেনজির আক্রমণ নাড্ডার

জেপি নাড্ডা। ফাইল চিত্র

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল বিষয়ে কংগ্রেসের অভিযোগ প্রসঙ্গে কংগ্রেসকেই দুষলেন বিজেপি প্রধান জেপি নাড্ডা। শুক্রবার তিনি বলেন যে কংগ্রেস দেশের ক্ষমতায় থাকাকালীন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলকে রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের নামে চালাত। ঘটনাটিকে ‘সাহসী জালিয়াতি’ নামেও উল্লেখ করেন তিনি।

শুক্রবার এক টুইটে নাড্ডা বলেন, “একটি পরিবার নিজেদের সম্পদ বাড়ানোর জন্য দেশকে ব্যবহার করে গিয়েছে। সেই ভার এখন দেশকে বইতে হচ্ছে। তাঁরা যদি সেই সময় গঠনমূলক কাজ করতেন তাহলে এটা হত না। নিজেদের লাভের জন্য যেভাবে লুট করেছেন কংগ্রেস রাজবংশের উচিত ক্ষমা চাওয়া।”

তিনি আরও বলেন, “সেই সময় মানুষ দেশের জন্য দু’হাত ভরে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন দেশের উপকারে লাগবে ভেবে। আর জনগণের সেই অর্থ পরিবারের ফাউন্ডেশনের নামে চালিয়ে সাহসী জালিয়াতি শুধু করেছেন তাই-ই নয় ভারতের জনগণের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতাও করেছেন।”

দেশের অন্যান্য খবর নীচে পড়ুন

আসামে জল বন্ধ করা হয়নি, ভিত্তিহীন অভিযোগ: ভুটান

আসামের কিছু অংশে সেচের জল সরবরাহ বন্ধ করেছে ভুটান, সংবাদ মাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হয়।

ভুটান আসামের কিছু অংশে সেচের জল সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এই রিপোর্ট সরাসরি নাকচ করল থিম্পু। প্রকাশিত প্রতিবেদন ‘সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন’ বলে দাবি করেছে ভুটান। কায়েমী স্বার্থে ভারত- ভুটান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নষ্ট করার লক্ষেই এই ধরনের অভিযোগ তোলা হয়েছে দাবি করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে ভুটান সরকার জানিয়েছে যে, ‘আসামের বক্সা ও উদালগিরি জেলা বহু বছর ধরেই ভুটানের জলের উৎস থেকে উপকৃত। গত কয়েকদিন ধরে ভুটানকে কাঠগড়ায় তুলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছিল যে, এইসব এলাকা সেচের জন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। অভিযোগটি হতাসাব্যঞ্জক। প্রকাশিত প্রতি ভিত্তিহীন। ভারতের বিদেশমন্ত্রককে ওই প্রতিবেদন খতিয়ে দেখার অবেদন করা হচ্ছে। সেচের জল সরবরাহ বন্ধের কোনও কারণ নেই।’

* ভুটান আসামের কিছু অংশে সেচের জল সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে।
* গত কয়েকদিন ধরেই সংবাদপত্রে এই অভিযোগ উঠছিল।
* করোনাভাইরাস বিধিনিষেধের কারণে আসমের কৃষকরা স্বাভাবিক সময়ে ভুটানে প্রবেশ করতে পারছেন না: ভুটানি বিদেশমন্ত্রক
* ফলে জল সরবরাহে সমস্যা দেখা দিয়েছে: ভুটানি বিদেশমন্ত্রক

ভুটান ও আসামের মানুষের মধ্যে সম্পর্ক আগের মতোই অটুট রয়েছে বলে দাবি থিম্পুর। Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

রাজনাথের হাতে লাদাখ ফেরৎ সেনা প্রধানের রিপোর্ট

লাদাখে সেনাপ্রধান নারাভানে।

নিয়ন্ত্রণরেখায় লাদাখের প্রকৃত পরিস্থিতি কী? প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংকে তা বিস্তারিত জানালেন সেনাপ্রধান এম এম নারাভানে। লাদাখ পরিস্থিতির সেই রিপোর্ট আজই প্রধানমন্ত্রী মোদীকে জানাতে পারেন রাজনাথ সিং।

রাশিয়ার ৭৫তম বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বৃহস্পতিবারই দেশে ফিরেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। অন্যদিকে, তিন দিন আগে লাদাখে গিয়েছিলেন সেনাপ্রধান। গালওয়ানে ইন্দো-চিন সংঘর্ষে জখম ভারতীয় জওয়ানদের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি লাদাখের বেশ কয়েকটি এলাকা পরিদর্শন করেন এম এম নারাভানে।

* মে মাসে ভারত-চিন সীমান্ত উত্তেজনার পর থেকেই তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে ঘন ঘন বৈঠক করেছেন রাজনাথ সিং।
* ১৫ জুন চিনা আক্রমণে ২০ ভারতীয় সেনাকর্মীর মৃত্যুর পর এই বৈঠক রোজই হয়েছে।
* রাশিয়া যাওয়ার আগে তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী।
* প্রতিপক্ষকে দমনে বাস্তব পরিস্থিতি বিচারে সেনাকে পদক্ষেপ করার স্বাধীনতা দেওয়া হয়।

সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমণে এর মধ্যে ভারত-চিন সেনা ও কীটনীতিতস্তরে আলোচনা হয়। দুই দেশের সেনাই চুক্তি মেনে নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা সরাতে রাজি হয়েছে। কিন্তু, চিনা সেনারা গালওয়ানে এখনও ভারতীয় বাহিনীকে নজরদারি চালাতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ দিল্লির। Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

চিনকে সতর্ক করল দিল্লি

সীমান্ত উত্তেজনা প্রশমণে ইন্দো-চিন সেনা ও কূটনীতিকস্তরে আলোচনা চলছে। উভয় দেশই নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে বাড়তি সেনা সরাতে সম্মত হয়েছে। কিন্তু, চিনের কার্যকলাপে কথা ও কাজের মিল নেই বলে দাবি ভারতের। গালওয়ানকে নিজেদের বলে দাবি করে এখনও সেখানে ভারতীয় সেনাদের নজরদারিতে বাধা দিচ্ছে লাল ফৌজ। এবার তাই বেজিংয়ের উদ্দেশ্যে চূড়ান্ত সতর্ক করল নয়াদিল্লি। ভারত জানিয়েছে, ‘এই পরিস্থিতি দু’দেশের সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টাকে ব্যহত করবে।’

* গালওয়ান ভ্যালি, হটস্প্রিং, প্যানগং লেকের পর এবার উত্তরের দেপসাং ভ্যালি পেরিয়েছে চিনা সেনারা
* ‘বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক চুক্তি, বিশেষ করে ১৯৯৩-এর ধারা না মেনে মে মাসের গোড়া থেকেই নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বাড়তি সেনা ও সমরাস্ত্র মজুত করছে চিন’
* ‘ভারতীয় সেনাকে গালওয়ানে এখনও নজরদারিতে বাধা দিচ্ছে লাল ফৌজ’
* চিনের এই পদক্ষেপকে উভয় দেশের চুক্তির প্রতি ‘সম্পূর্ণ অবমাননা’ বলে দাবি নয়াদিল্লির

এই উত্তেজনার মাঝেই বেজিংয়ের অবস্থান স্পষ্ট করে ভারতে নিযুক্ত চিনা রাষ্ট্রদূত সাং ওয়েইডং বলেছেন, ‘গালওয়ানে সাম্প্রতিক সংঘর্ষের দায় চিনের নয়।’ Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

মে-র শুরুতেই গালওয়ানে সংঘর্ষে জড়িয়েছিল ইন্দো-চিন বাহিনী

গালওয়ান উপত্যকা

চলতি বছরে মে মাসের শুরুতেই গালওয়ানে ভারত-চিন সেনাবাহিনী সংঘর্ষে জড়িয়েছিল। বিগত এক মাস ধরেই প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে সৈন্য ও সামরিক সরঞ্জাম জড়ো করেছিল লাল ফৌজ। যা উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে হওয়া বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক চুক্তি, বিশেষ করে ১৯৯৩-এর ধারার পরিপন্থী বলে বৃহস্পতিবার জানান বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব।

* ১৫ জুনের মতো খুব বড় মাপের সংঘর্ষের ঘটনা না ঘটলেও মে মাসের প্রথম দিকে গালওয়ানের পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৪ (পিপ-১৪) ইন্দো-চিনা বাহিনী সংঘর্ষে জড়ায়
* এরপর থেকেই সীমান্তের ওই এলাকায় উত্তেজনা ক্রমশ বাড়তে থাকে
* সীমান্তে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় দু’দেশের বাহিনীকে

বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, ‘মে মাসের শুরুতেই গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় বাহিনীতে নজরদারিতে বাধা দেয় চিনা সেনারা। যা দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও প্রটোকল বিরোধী। Read in English

দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন এই প্রতিবেদনে

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: India top news national today latest news update 26 june 2020 india china tension congress bjp modi

Next Story
চিনকে সতর্ক করল দিল্লি, ‘এভাবে চলতে থাকলে পরিস্থিতির অবনতি হবে’
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com