বড় খবর

ভ্যাক্সিন নিয়ে অনড় আইসিএমআর-লাদাখ নিয়ে মোদীকে সাবধানবাণী রাহুলের-এক মঞ্চে ভারত চিন-রেলে কর্মী ছাঁটাই নয়

আজ কী ঘটল দেশে? আপডেটেড থাকতে আপনাকে যে খবর জানতেই হবে, দিনের সব গুরুত্বপূর্ণ খবর এই প্রতিবেদনে।

India latest news, দেশের খবর, ভারতের খবর
দেশের খবর একনজরে।

করোনা ভ্য়াক্সিন তৈরিতে বিশ্বে স্বীকৃত ফাস্টট্র্য়াকের নিয়ম মেনেই সবটা করা হচ্ছে বলে দাবি করল আইসিএমআর। প্রধানমন্ত্রী যাতে স্বাধীনতা দিবসে কোভ্য়াক্সিনের কথা ঘোষণা করতে পারেন, সে কারণে তাড়াহুড়ো করা হচ্ছে বলে তোপ দাগলেন সীতারাম ইয়েচুরি। এদিকে, ইন্দো-চিন সীমান্ত ইস্য়ুতে আবারও সোচ্চার হলেন রাহুল গান্ধী। অন্য়দিকে, সীমান্ত উত্তেজনার আবহেই ব্রিকস বৈঠকে যোগ দিল ভারত-চিন। আবার, রেলে কর্মী সংকোচন হবে না, শুধুমাত্র কয়েকটি পদ মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে, এমনটাই জানালেন রেলওয়ে বোর্ডের ডিরেক্টর জেনারেল। দেশের এমনই সব খবর পড়ে নিন এক এক করে…

সব নিয়ম মেনেই কোভ্য়াক্সিন তৈরি করা হচ্ছে: আইসিএমআর

কোভ্য়াক্সিন বাজারে আনা নিয়ে আইসিএমআর-এর ১৫ অগাস্টের ডেডলাইন নিয়ে বিস্তর তর্ক-বিতর্ক চলছে দেশদুড়ে। তীব্র সমালোচনার পর শনিবার আইসিএমআর-এর তরফে জানানো হল, ভ্য়াক্সিন তৈরিতে বিশ্বে স্বীকৃতি ফাস্টট্র্য়াকের নিয়ম মেনেই সবটা করা হচ্ছে।

* আইসিএমআর-এর তরফে আরও জানানো হয়েছে, ভারতবাসীর সুরক্ষার দিকটিতে প্রাধান্য় দেওয়া হয়েছে। সব নিয়ম মেনেই তৈরি করা হচ্ছে ভ্য়াক্সিন।

* উল্লেখ্য়, ভারত বায়োটেকের সঙ্গে যৌথভাবে করোনার টীকা কোভ্য়াক্সিন তৈরি করছে আইসিএমআর।

* আগামী ১৫ অগাস্টের মধ্য়েই কোভ্য়াক্সিন বাজারে আসার কথা জানিয়েছে আইসিএমআর।

* এত কম সময়ে কীভাবে করোনার প্রতিষেধক বাজারে আনা হবে,তা নিয়ে সন্দিহান বিশেষজ্ঞ মহল। আইসিএমআরের দাবি অবাস্তব বলে বর্ণনা করেছেন অনেকে। (Read in English)

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

মোদীর ঘোষণার জন্য়ই করোনা ভ্য়াকসিন নিয়ে তাড়াহুড়ো: ইয়েচুরি

Sitaram Yechury, সীতারাম ইয়েচুরি
সীতারাম ইয়েচুরি।

করোনা ভ্য়াকসিন নিয়ে আইসিএমআরের সমালোচনায় সরব হলেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী যাতে স্বাধীনতা দিবসে কোভ্য়াক্সিনের কথা ঘোষণা করতে পারেন, সে কারণে তাড়াহুড়ো করা হচ্ছে।

* বিজ্ঞানের আবিষ্কার কারও নির্দেশ মোতাবেক হয় না, এ সুরেই সোচ্চার হয়েছেন ইয়েচুরি।

* টুইটারে ইয়েচুরি আরও লিখেছেন, ”অতিমারী রুখতে ভ্য়াকসিনের প্রয়োজন রয়েইছে। গোটা দুনিয়া নিরাপদ ভ্য়াকসিনের জন্য় অপেক্ষা করছে। কিন্তু বিজ্ঞানের আবিষ্কার নির্দেশ মোতাবেক হয় না”।

* উল্লেখ্য়, ১৫ অগাস্টের মধ্য়ে কোভ্য়াক্সিন যাতে তৈরি করে ফেলা হয়, সে ব্য়াপারে জোর দেওয়া হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটা ‘অবাস্তব’। (Read in English)

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

লাদাখবাসীর সতর্কবাণী উপেক্ষা করলে দেশকে দাম দিতে হবে: রাহুল

rahul gandhi, রাহুল গান্ধী
কংগ্রেস সাংসদ রাহল গান্ধী

ইন্দো-চিন সীমান্ত ইস্য়ুতে আবারও সোচ্চার হলেন রাহুল গান্ধী। লাদাখবাসীর হয়ে এবার মোদী সরকারকে একহাত নিলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি। শনিবার কংগ্রেস সাংসদ বলেছেন, চিনা অনুপ্রবেশ নিয়ে সরব হয়েছেন লাদাখবাসী, কিন্তু সরকার তাঁদের কথা শুনছে না। এভাবে লাদাখবাসীর সতর্কবাণী উপেক্ষা করলে ভারতকে দাম দিতে হবে।

*লাদাখে ভারতীয় ভূ-খণ্ড দখল করছে চিন, এমনটাই অভিযোগ লাদাখবাসীর-এ সংক্রান্ত সংবাদমাধ্য়মে একটি প্রতিবেদন উল্লেখ করেছেন রাহুল।

* সোনিয়া-পুত্র লিখেছেন, ”দেশপ্রেমী লাদাখবাসী চিনা অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন। সতর্কতার বার্তা দিচ্ছেন। তাঁদের সতর্কবাণী উপেক্ষা করলে ভারতকে দাম মেটাতে হবে”।

* রাহুল আরও লিখেছেন, ”ভারতের স্বার্থে, দয়া করে তাঁদের কথা শুনুন”।

* প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও বলেছেন, লাদাখের অগণিত মানুষ বলছেন, চিন তাঁদের জমি দখল করছে।

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

এক মঞ্চে ভারত-চিন, সৌজন্যে ব্রিকস

india china, ভারত চিন
ব্রিকস বৈঠকে ভারত-চিন

ব্রিকসভুক্ত দেশগুলোর প্রতিনিধিদের বৈঠকে যোগ দিলেন ভারতীয় প্রতিনিধি। রাশিয়া আয়োজিত এই ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশ নেয় চিনও। গালওয়ানে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনা বাড়িয়েছে। সেই আবহেই দু’সপ্তাহের মধ্যে এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের জন্য রাশিয়ার আয়োজনে বৈঠকে একযোগে অংশ দিল ভারত-চিন।

* ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে এই ব্রিকস গোষ্ঠী গঠিত।
* ভারতের তরফে ব্রিকসভুক্ত দেশগুলোর প্রতিনিধিদের বৈঠকে অংশ নেন বিদেশ মন্ত্রকের সচিব সঞ্জয় ভট্টাচার্য।
* টুইটে তিনি জানিয়েছেন যে, ‘ব্রিকসের এই বৈঠকে যোগ দিতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি। এই প্রতিষ্ঠানের সম্ভাবনা, বিভিন্ন কাজের আগ্রগতি, বাস্তব পরিস্থিতি মোকাবিলায় নতুন ধারনা ও সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রাখার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।’

গালওয়ান উপত্যকায় ১৫ জুন রক্তপাতের পরেই চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-র সঙ্গে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের ফোনে কথাবার্তার পিছনেও প্রয়াস ছিল মস্কোর। গত ২৩ জুন রাশিয়ার বিদেশমন্ত্রী লাভরভের আয়োজনে রিক বৈঠক হয়। ভার্চুয়াল বৈঠকে ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ও চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াংই। Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

জনসেবায় জোর দিতে বিজেপি কর্মীদের বার্তা মোদীর

জনসেবায় জোর দিতে বিজেপি কর্মীদের বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শনিবার ভার্চুয়াল মাধ্য়মে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে মোদী বলেছেন, নির্বাচনে জেতার জন্য় শুধু বিজেপি দল নয়। এই দল মানে হল জনসেবা। প্রত্য়েকের সুখ-সমৃদ্ধি নিশ্চিত করা।

* করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউন পর্বে জনকল্য়াণমূলক কাজে যাঁরা যুক্ত ছিলেন, সে সকল কর্মীদের এদিন প্রশংসা করেছেন নমো।

* করোনা পরিস্থিতিতে, সমাজে সেবা করার সুযোগ মিলেছে বলেও জানিয়েছেন মোদী।

* দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে মোদী বলেছেন, মানুষ আমাদের থেকে আশা করে থাকে। (Read in English)

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

‘কৌশলগত ভুল ধারনা এড়িয়ে চলুক ভারত’

নরেন্দ্র মোদী এবং শি জিনপিং

সীমান্তে উত্তেজনার আবহেই লাদাখে গিয়েছেন মোদী। নাম না করেই চিনকে কড়া বার্তা দিয়েছেন। তারপরই পাল্টা তোপ দাগল বেজিং। চিন সম্পর্কে দিল্লির ‘কৌশলগত ভুল ধারনা’ এড়িয়ে চলা উচিত বলে জানিয়েছেন চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান তাঁর কথায়, ‘মোদীর সফরের ফলে সীমান্তের পরিস্থিতি জটিল হতে পারে।’ একই সঙ্গে চিন জানিয়েছে, সেনা ও কূটনৈতিকস্তরে আলোচনার মাধ্যমে বিরোধ মেটানো উচিত। বেজিংয়ের তরফে এহেন বিবৃতি অস্বাভাবিক বলে মনে করা হচ্ছে।

* ১৫ জুন নিয়ন্ত্রণরেখায় লাল ফৌজের হামলার পর থেকেই দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের দাবি উঠেছে। ইতিমধ্যেই ৫৯ চিনা অ্যাপ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। দেশের রাস্তা নির্মাণের ক্ষেত্রে চিনা কোম্পানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন কেন্দ্রীয় সড়ক যোগাযোগমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি। এ প্রসঙ্গে ঝাও লিজিয়ান বলেছেন, ‘বেশ কয়েকজন ভারতীয় রাজনীতিবিদের মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন ও দু’দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক।’ চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্রের কথায়, ‘ভারত-চিন সুসম্পর্ক বজায় রাখার বিষয়টি উভয় দেশের জন্যই জরুরি ও তা বজায় রাখার আহ্বান জানাই। উভয় দেশের স্বার্থ ও দ্বিপাক্ষিক সুসম্পর্ক বজায় রাখার উদ্দেশ্যেই ভারত-চিনের কাজ করা উচিত।’
* মোদী সরকারের চিনা অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ঝাও লিজিয়ান জানিয়েছেন, ‘ভারত-চিন সমঝোতায় দু’দেশের স্বার্থ জড়িয়ে রয়েছে ও উভয় দেশের জন্যই লাভজনক। কৃত্তিমভাবে তার উপর বাধা সৃষ্টি করলে তা শুধু বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার বিধি ভঙ্গই করবে না, একই সঙ্গে ভারতীয় স্বার্থের পক্ষেও হানিকারক হবে। ব্যবসায়ীক আইনি বৈধ আধিকার রক্ষায় চিন উপযুক্ত পদক্ষেপ করছে।’

চুক্তি অনুযায়ী দু’দেশের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রাখার কথা বলেছেন চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান। তাঁর কথায়, ‘সেনা ও কূটনীতিক আলোচনার মাধ্যমেই দু’দেশের রাষ্ট্রনেতার সাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে নিয়ন্ত্রণরেখায় সমস্যা দূর হতে পারে। এজন্য ভার-চিন উভয়কেই কার্যকরী পদক্ষেপ করতে হবে।’  Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

রেলে কর্মী ছাঁটাই নয়, সদ্ব্য়বহার হবে

রেলে কর্মী সংকোচনের আশঙ্কা

রেলে কর্মী সংকোচন হবে না, শুধু মাত্র কয়েকটি পদ মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে। জানিয়েছেন রেলওয়ে বোর্ডের ডায়েরেক্টার জেনারেল (এইচআর) আনন্দ এস খাটি। সম্প্রতি রেলের তরফে সংস্থার সব জোন অফিসগুলোকে ৫০ শতাংশ শূন্য পদ বাতিল ও বিভিন্ন পদে কর্মী না নেওয়ার কথা বলা হয়। ব্যয় শংকোচনের জন্যই এই পদক্ষেপ বলে জানানো হয়। ফলে, ছাঁটাইয়ের প্রমাদ গোনা শুরু হয়। কিন্তু, সেই ভয় উড়িয়ে আনন্দ এস খাটি বলেছেন, ‘ছাঁটাই হবে না, কর্মী সম্পদের সদব্যবহার করা হবে।’ রেলের কর্মী সংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ। দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস আগেই জানিয়েছিল, বিভিন্ন পদ একত্রে করে দেওয়ার চেষ্টা করছে রেল।

প্রযুক্তির কারণে কিছু পদের কাজের ধরন বদল হবে। এতে কর্মীদের পুনরায় দক্ষ করে গড়ে তোলা হবে, কিন্তু ছাঁটাই হবে না বলেই আশ্বস্ত করেছেন রেলওয়ে বোর্ডের ডায়েরেক্টার জেনারেল (এইচআর) আনন্দ এস খাটি। তাঁর কথায়, ‘কর্মী সম্পদের সদব্যবহার করা হবে। সর্বভারতীয়স্তরে রেলের কর্মী সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। রেল আরও প্রযুক্তি নির্ভর দক্ষতার পথে চালিত হচ্ছে।’

* বুধবার রেলবোর্ড থেকে প্রতিটি জোনাল ম্যানেজারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সুরক্ষা ছাড়া রেলের অন্য কোনও বিভাগে আর নতুন পদে লোক নিয়োগ করা যাবে না।
* ইতিমধ্যেই রেলের যেসব পদের নিয়োগ প্রক্রিয়া জারি রয়েছে বা যেসব পদের জন্য বিজ্ঞাপণ দেওয়া হয়েছে সেগুলি কোনওভাবেই বাধাপ্রাপ্ত হবে না।
* বর্তমানে রেলের কর্মী সংখ্যা ১২ লাখ ১৮ হাজার ৩৩৫ জন। রেলের আয়ের ৬৫ শতাংশই কর্মীদের বেতন ও অবসরকালীন ভাতা দিতে খরচ হয়ে থাকে।

ভারতীয় রেলে মোট শূন্য পদের সংখ্যা এখন ২ লক্ষ ৮৭ হাজার। সুরক্ষা বাদ দিলেও শূন্যপদের সংখ্যাটা প্রায় ২ লক্ষ। তার ৫০ শতাংশ তুলে দেওয়া মানে ১ লক্ষ পদের বিলুপ্তি।তা সেই সব শূন্যপদ বিলুপ্ত হলে বর্তমান কর্মীদের ঘাড়ে বিপুল কাজের বোঝা চাপবে। যাত্রী পরিষেবাও হোঁচট খাওয়ার আশঙ্কা করছেন রেলকর্মীরা। Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

পিএমও-র শীর্ষকর্তার সহযোগী পরিচয় দিয়ে তথ্য়-তালাশ, তদন্তে সিবিআই

cbi, সিবিআই
ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি পি কে মিশ্রের স্পেশাল অ্য়াসিস্ট্য়ান্টের সহযোগী হিসেবে পরিচয় দিয়ে তথ্য় সংগ্রহের অভিযোগ উঠল এক ব্য়ক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করল সিবিআই। জানা যাচ্ছে, গত বছরে অক্টোবর ও নভেম্বরের মধ্য়ে বোয়িং ইন্ডিয়ায় একাধিক ফোন করেছেন ওই ব্য়ক্তি। ফোন করে ওই ব্য়ক্তি প্রতিরক্ষা চুক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে খবরাখবর নিয়েছেন।

* সিবিআই-এর এফআইআর সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ব্য়ক্তির নাম অনিরুদ্ধ সিং।

* পি কে মিশ্রের স্পেশাল অ্য়াসিস্ট্য়ান্ট জিতেন্দ্র কুমারের লোক বলে ফোনে পরিচয় দিতেন তিনি।

* যদিও পিএমও-র তরফে জানানো হয়েছে, এ ধরনের কোনও পদ নেই। তাছাড়া পি কে মিশ্রের স্পেশাল অ্য়াসিস্ট্য়ান্ট হিসেবে জিতেন্দ্র কুমার নামেও কেউ নেই।

* বোয়িং ইন্ডিয়ার চিফ অফ স্টাফ মিশ্রকে ই-মেল মারফত জানিয়েছেন, ”অনিরুদ্ধ সিং নামে এক ব্য়ক্তি পি কে মিশ্রের স্পেশাল অ্য়াসিস্ট্য়ান্ট জিতেন্দ্র কুমারের লোক বলে পরিচয় দিয়ে আমাদের অফিসের এগজিকিউটিভ সেক্রেটারিকে ফোন করছেন। প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে কথা বলেছেন। আমদের এও বলা হয়েছে, পি কে মিশ্র ও অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করতে”। (Read in English)

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

‘মোদীর ঐশ্বরিক ক্ষমতা রয়েছে’

প্রধানমন্ত্রী মোদী

‘ভগবানের বর নরেন্দ্র মোদী’। আগেই মোদীর প্রশংসা করে এই মন্তব্য করেছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। এবার তাকেও ছাপিয়ে গেলেন। প্রধানমন্ত্রীর কাজের স্তুতি করে শিবরাজ বললেন, ‘মোদীর ঐশ্বরিক ক্ষমতা রয়েছে।’

* মধ্যপ্রদেশে বিজেপি সরকারের ১০০ দিন পূর্ণ উপলক্ষে বক্তব্য রাখছিলেন শিবরাজ সিং চৌহান। সেখানেই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর সংকীর্ণ রাজনৈতিক বোধের কটাক্ষ করেন মুখ্যমন্ত্রী।
* উনি (রাহুল গান্ধী) মোদীজীকে চ্যালেঞ্জ করবেন? মোদীজী হলেন ভারতের জন্য ভগবানের বরদান: শিবরাজ সিং চৌহান
* ‘ভগবান সরাসরি কোনও অবতার পাঠাননি। কিন্তু নরেন্দ্র মোদীর মত নেতাদের দেখলে মনে হয়, বিনা ঐশ্বরিক ক্ষমতায় এত কাজ কোনও সাধারণ মানুষের পক্ষে করা সম্ভব নয়।’

অনুষ্ঠানে হাজির জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াও প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে বলেন, ‘মোদীজী সংবেদনশীল ও উদ্যোগী। মোদীর লকডাউনের সিদ্ধান্তের ফলে হাজার হাজার মানুষ করোনাভাইরাস সংক্রমণের হাত থেকে নিস্তার পেয়েছেন।’ সীমান্তেও মোদীরজীর নেতৃত্বে চিনকে উপযুক্ত জবাব দেওয়া গিয়েছে বলে জানান কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগদানকারী এই নেতা। Read in English

কেরালায় সাবেক ইউডিএফ শরিকের দিকে হাত বাড়াচ্ছে সিপিএম

জোস কে মানি (বাঁদিকে)

কেরালায় একদা কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউডিএফ-এর শরিক কেসি(এম)কে পাশে পেতে আগ্রহী সিপিএম। শুক্রবার দলের সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠকের পর এই ইঙ্গিত দিয়েছেন কেরালা সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক কোডিয়ারি বালাকৃষ্ণন।

কোয়াট্টাম জেলায় কংগ্রেসের সঙ্গে সংঝোতা না হওয়ার কারণেই ইউডিএফ থেকে কেসি(এম)কে বার করে দেওয়া হয়। তারপরই অক্টোবর-নভেম্বরে পূর্বনির্ধারিত স্থানীয় নির্বাচন ও পরের বছরের বিধানসভা ভোটকে মাথায় রেখে আপাতত জোস কে মানির দলকেই পাখির চোখ করেছে সিপিএম। উল্লেখ্য, কোয়াট্টাম ও ইদুক্কি জেলায় কেসি(এম) এর ৬ জন বিধায়ক ও একজন সাংসদ রয়েছেন।

* এর আগে কেসি(এম) এর প্রতিষ্ঠাতা জোসের কে মানির পিতা কে এম মানির বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ এনেছিল সিপিএম।
* ২০১৬ সালে ঘুষকাণ্ডের বিরুদ্ধে রাজ্যজুড়ে আন্দোলন করে সিপিএম।
* যার ফলে মন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করেন কে এম মানি।

সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক কোডিয়ারি বালাকৃষ্ণন জানিয়েছেন, ‘বিধানসভা ভোটের আগে এলডিএফ-এর ভিত্তি পোক্ত করতে হবে। জোস কে মানির আর ইউডিএফ-এ ফেরার রাস্তা নেই। বেশ কয়েকটি জায়গায় মানির প্রভাব রয়েছে। বর্তমানে ঘুষকাণ্ড কোনও ইস্যু নয়।’ তাঁর স্পষ্ট ঘোষণা, ‘প্রথমে জোস মানিকেই তাঁর অবস্থান সাফ জানাতে হবে। পরে এ বিষয়ে এলডিএফ ও সিপিএম সিদ্ধান্ত নেবে।’

ইউডিএফ আহ্বায়ক বেনি বেহাননের কথায়, ‘কোয়াট্টামের জেলার পঞ্চায়েত প্রধানের পদ নিয়ে কংগ্রেসের দাবি মেনে নিলে জোস মানি ফের ইউডিএফ-এ ফিরতে পারেন।’ Read in English

দেশের অন্য়ান্য় গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন নীচে

সিআরপিএফ-এও রূপান্তরিত নিয়োগে সবুজ সংকেত

প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওজে সিআরপিএফ বাহিনী

রূপান্তরিতদের নিয়োগে প্রস্তুত সিআরপিএফ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে ইতিমধ্যেই সেকথা জানিয়েছে আধা সেনা বাহিনী। রূপান্তরিতদের বাহিনীতে নিয়োগ করা যায় কিনা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সিআরপিএফের থেকে তা জানতে চেয়েছিল। তার জবাব দিতে গিয়েই নিয়োগে সম্মতি দিয়েছে বাহিনী।

জবাবে সিআরপিএফের তরফে বলা হয়েছে, ‘সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পিছনে যে ভাবনা রয়েছে তাকে বাহিনী মূল্য দেয়। সিআরপিএফে ইতিমধ্যেই লিঙ্গ নিরপেক্ষ কাজের পরিবেশ রয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আসন্ন নির্দেশিকা কার্যকরে প্রয়োজনীয় সামঞ্জস্য়পূর্ণ পদক্ষেপ করা হবে।’ এক্ষেত্রে সিআরপিএফের তরফে সুপ্রিম কোর্টের ২০১৪ সালের ১৫ এপ্রিলের নির্দেশকে তুলে ধরা হয়। ওই নির্দেশে রূপান্তরিতদের তৃতীয় লিঙ্গ হিসাবে আখ্যায়িত করা হয়। তার ভিত্তিতেই সংসদে রূপান্তরিত ব্যক্তি (আধিকার সুরক্ষা) আইন, ২০১৯ পাস হয়।

* পাঁচ বাহিনীর মধ্যে সিআরপিএফ-ই হল দ্বিতীয়, যারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রশ্নের জবাবে রূপান্তরিতদের নিয়োগের বিষয়ে সম্মতি প্রকাশ করেছে।
* অন্যান্য বাহিনীও একই জবাবের জন্য প্রস্তুত: সূত্র
* কীভাবে এই বিষয়টি বলবৎ হবে তা জানতে পরামর্শ চাওয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে।

রূপান্তরিতদের নিয়োগ নিয়ে বিএসএফ, সিআরপিএফ, এসএসবি, সিআইএসএফ ও আইটিবিপি-কে এক মাসেরও কিছু আগে চিঠি দিয়েছিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। দু’সপ্তাহ আগে মন্ত্রকের এই পদক্ষেপে সম্মতি জানায় বিএসএফ। Read in English

ত্রিপুরায় ৩ সপ্তাহেই তৈরি ভাসমান জেটি

মাত্র ৩ সপ্তাহেই গোমতী নদীতে ভাসমান জেটি বানানো হল ত্রিপুরায়। ইন্দো-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক অভ্য়ন্তরীণ জলপথ সংযোগকারী প্রকল্পে সোনামুড়াতে বানানো হয়েছে ওই ভাসমান জেটি। সোনামুড়ার সঙ্গে বাংলাদেশের দাউদকান্দির মধ্য়ে সংযোগ স্থাপন করবে এই জেটি।

* এরফলে ছোট বোট ও লঞ্চ ৫০ টন পণ্য় নিয়ে নিয়ে খুব সহজেই এই পথে বাংলাদেশে যেতে পারবে।

* ত্রিপুরার মুখ্য়মন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব জানিয়েছেন, ”এটা একটা ঐতিহাসিক মাইলস্টোন আমাদের জন্য়। ৩সপ্তাহের মধ্য়ে জেটিটি বানানো হয়েছে। প্রথমবার ত্রিপুরায় এমনটা করা হল, তাও করোনা-লকডাউনের মধ্য়ে। প্রধানমন্ত্রী ও জাহাজমন্ত্রীকে এজন্য় ধন্য়বাদ”।

দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন এই প্রতিবেদনে

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: India top news national today latest news update 4th july 2020 india china tension rail kerala cpm modi bjp congress

Next Story
বিএসএফ-এর পর সিআরপিএফ-এও রূপান্তরিত নিয়োগে সবুজ সংকেত
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com