পাক মর্টার হামলায় কাশ্মীরে ফের নিহত জওয়ান

গত সোমবার থেকে এ পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণ রেখায় দু’দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি চলায় তিন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন। এর আগে সুন্দরবনিতে যশ পাল এবং করমজিৎ সিং নামের দুই সেনাকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

বিগত এক সপ্তাহ ধরে কাশ্মীরের পুঞ্চ এবং রাজৌরি সংলগ্ন নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাক সেনাবাহিনী যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করার প্রচেষ্টা করেছে একাধিকবার। রবিবার ভোর রাতেই এক ভারতীয় সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত জওয়ানকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাঁর নাম হরি ওয়াকার। রাজস্থানের বাসিন্দা হরি পদ্ম রামের সন্তান। সূত্রের খবর বলছে, রবিবার মধ্যরাতে পাকবাহিনীর মর্টার হামলায় গুরুতর আহত হন হরি। হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর।

গত সোমবার থেকে এ পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণ রেখায় দু’দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি চলায় তিন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন। এর আগে সুন্দরবনিতে যশ পাল এবং করমজিৎ সিং নামের দুই সেনাকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

আর পড়ুন, সরকারি ভবনে ‘শুদ্ধিকরণ’! পরিক্করের শেষকৃত্য নিয়ে তদন্তের নির্দেশ

পুলওয়ামা হামলার পালটা জবাব হিসেবে ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের পর থেকে দু’দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে এনকাউন্টার লেগেই রয়েছে বিগত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে।

বৃহস্পতিবার বারামুলা ও বান্দিপোরায় দুটি এনকাউন্টার হয়। বান্দিপোরায় গুলির লড়াই চলাকালীন দুই সাধারণ নাগরিককে পণবন্দি করে জঙ্গিরা। পরে একজনকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, জঙ্গিদের কবল থেকে আরও এক সাধারণ নাগরিককে উদ্ধার করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

অন্যদিকে, বারামুলায় গুলির লড়াইয়ে দুই জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। জঙ্গিরা লুকিয়ে রয়েছে, এ খবর পাওয়ার পরই বুধবার সন্ধ্যায় ওই এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে ওই এলাকায় গুলির লড়াই শুরু হয়।

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Indian jawan killed in poonch

Next Story
সিবিএসই প্রশ্ন ফাঁসকাণ্ড: দিল্লি হাইকোর্টে শুনানি, ধৃত আরও ৩সিবিএসই-র সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে লুধিয়ানার ফিরোজপুরে প্রতিবাদে পড়ুয়ারা। ছবি গুরমীত সিং, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com