বড় খবর

‘বন্ধুত্বের জবাবে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল পাকিস্তান’

১৯৯৯ সালে আজকের দিনেই কার্গিলে পাকিস্তানী সেনার বিরুদ্ধে জয় পেয়েছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী।

কার্গিল বিজয়। রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের পর ভারতীয় সেনার ইতিহাসে এক বীরগাথা অধ্যায়। ১৯৯৯ সালে আজকের দিনেই কার্গিলে পাকিস্তানী সেনার বিরুদ্ধে জয় পেয়েছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। সে থেকেই গত ২১ বছর ধরে এই দিনটি ‘বিজয় দিবস’ হিসাবে উদযাপিত হয়ে থাকে। শহিদ জওয়ানদের প্রতি এদিন শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী মোদী, কেন্দ্রীয় প্রতিক্ষামন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের শুরুতেই এদিন বিজয় দিবসের প্রসঙ্গ তুলে পাকিস্তানকে তীব্র কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বন্ধুত্বের জবাবে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল পাকিস্তান। আমাদের ভদ্রতার সুযোগ নিয়ে ভারতের জমি দখল করতে চেয়েছিল ওরা। নিজেদের দেশের অভ্যন্তরীন সমস্যা থেকে সবার মুখ ঘোরাতেই এই কাজ করেছিল পাকিস্তান। কিন্তু ২১ বছর আগে আজকের দিনে আমাদের সেনারা কার্গিলের লড়াইয়ে জিতেছিলেন। পাকিস্তানের খারাপ অভিসন্ধির যোগ্য জবাব দিয়েছিল ভারতীয় সেনা।’ এর আগে টুইটারে কার্গিলের শহিদদের স্মরণ করেন মোদী। দেশরক্ষায় জওয়ানদের ভূমিকা দেশের আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রারণিত করবে বলেও আশাপ্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

‘ভারতের সংস্কৃতি, সেনাবাহিনী, তাদের বীরত্ব ও বলিদানকে আমরা এইদিনে সম্মান জানাই। আমাদের সেনাবাহিনীর অদম্য সাহস ও দেশাত্মবোধ ভারতের সুরক্ষা নিশ্চিত করে। কার্গিল জয়ের ২১ তম বর্ষপূর্তিতে আমি ভারতীয় সেনাবাহিনীর বীর জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানাই। যাঁরা কঠিন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে শত্রুর বিরুদ্ধে লড়েছিলেন। যুদ্ধে আহত হওয়ার পরেও বিভিন্ন ভাবে দেশের সেবা করছেন তাঁরা। তাঁদেরও সম্মান জানাই।’ রবিবার কার্গিল শহিদদের সম্মান জানিয়ে টুইটে একথা লেখেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনীথ সিং।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ টুইটে লিখেছেন, ‘কার্গিল বিজয় দিবস ভারতের আত্মসম্মান, বীরত্ব ও নেতৃত্বের সাক্ষ বহন করছে। নিজেদের জীবনের বিনিময়ে যেসব জওয়ান কার্গিলে শত্রুদের হারিয়েছিলেন, তাঁদের আমি মাথা নত করে সম্মান জানাই। এইসব হিরোদের জন্য আমাদের দেশ গর্বিত।’

জম্মু-কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ হয়। ১৯৯৯ সালে ৩ মে যুদ্ধ শুরু হয় ও শেষ হয় ২৬ জুলাই । লড়াই চলে মোট ২ মাস তিন সপ্তাহ ২ দিন। ১৯৯৯ সালের এই দিনেই ভারতীয় সেনাবাহিনী সফলভাবে ‘অপারেশন বিজয়’ সম্পন্ন করে। তবে থেকেই এই দিনটিকে ‘কার্গিল দিবস’ বা ‘বিজয় দিবস’ হিসাবে পালন করা হয়ে থাকে। এই সংঘর্ষে ভারতের ৪৯০ জন সেনা কর্মীর মৃত্যু হয়েছিল।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Kargil vijay diwas indian army modi amit shah rajnath sing updates

Next Story
‘মাস্ক পরতে অসুবিধা হলেই করোনাযোদ্ধাদের কথা ভাবুন’modi, মোদী
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com