বড় খবর

কর্নাটকে আস্থা ভোট বৃহস্পতি বার

বিজেপির তরফ থেকে সরকারের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত সভার স্বাভাবিক কাজকর্ম চলার ব্যাপারে আপত্তি ওঠায় বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সভার কাজ মুলতুবি রাখেন অধ্যক্ষ।

Karnataka Crisis, Trust Vote
এইচ ডি কুমারস্বামী (ফাইল)

কংগ্রেস-জেডিএস জোট সরকারের আস্থা ভোটের তারিখ নির্ধারণ করলেন কর্নাটক বিধান পরিষদের অধ্যক্ষ কে আর রমেশ কুমার। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় আস্থা ভোট। বিজনেস অ্যাডভাইজরি কাউন্সিলের বৈঠকের পরে এদিন আস্থা ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করেন স্পিকার।

বিজেপির তরফ থেকে সরকারের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত সভার স্বাভাবিক কাজকর্ম চলার ব্যাপারে আপত্তি ওঠায় বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সভার কাজ মুলতুবি রাখেন তিনি।

কংগ্রেস, জেডিএস এবং বিজেপি বিধায়করা নিজেদের ভোট অক্ষুণ্ণ রাখার স্বার্থে বেঙ্গালুরুর বিভিন্ন রিসর্টে উঠতে শুরু করেছেন। বৃহস্পতিবার সব দলের ভোটাধিকারীদের আলোচনার পর ভোটগ্রহণ হবে।

জোটের ১৬ জন বিধায়ক পদত্যাগ করার পর সরকার সংখ্যালঘু হয়ে পড়ে। এর জেরে শুক্রবার কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী আস্থা ভোট চান।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি বিএস ইয়েদুরাপ্পা কুমারস্বামীর পদত্যাগ দাবি করেছেন।

কংগ্রেস-জেডিএস জোট প্রাণপণে চেষ্টা চালাচ্ছে কয়েকজন বিদ্রোহী বিধায়ককে ফিরিয়ে এনে সংখ্যা গরিষ্ঠতা বজায় রাখার। এদিকে ১৫ জন বিক্ষুব্ধ বিধায়ক স্পিকার যাতে তাঁদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন, সে আবেদন জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

বৃহস্পতিবারই এই মামলার শুনানি হবে সুপ্রিম কোর্টে।

শাসক জোটের ৬ জন বিধায়কের পদত্যাগপত্র গৃহীত হলে কংগ্রেস-জেডিএস জোটের শক্তি কমে দাঁড়াবে ১০১-এ। অন্যদিকে বিজেপির পক্ষে এখন ১০৫ জন বিধায়ক রয়েছেন, সঙ্গে রয়েছেন আরও দুই নির্দল।

Read the Story in English

Web Title: Karnatak congress jds bjp trust vote on thursday

Next Story
ক্ষমতা বাড়তে চলেছে এনআইএ-র, লোকসভায় বিল পাশloksabha
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com