scorecardresearch

বড় খবর

দলীয় নেতৃত্বের চাপ, বিজেপি কর্মী খুনের মামলা এনআইএকে দিচ্ছে কর্ণাটক সরকার

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রবীণ নেত্তারু (৩২) দক্ষিণ কন্নড় জেলার সুল্লিয়া মহকুমার বাসিন্দা। মঙ্গলবার রাতে বেল্লাড়ে এলাকায় তাঁকে খুন করা হয়েছে।

basavraj bommai

বিজেপি কর্মী খুনের মামলা অবশেষে এনআইএর হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে কর্ণাটক সরকার। এমনটাই জানিয়েছেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ সোমাপ্পা বোম্মাই। গত আট দিনে সাম্প্রদায়িক স্পর্শকাতর জেলা দক্ষিণ কন্নড়ে তিন জন খুন হয়েছেন। তার মধ্যে বৃহস্পতিবার রাতে সুরতকলে খুন হন বছর ২৩-এর মহম্মদ ফাজিল।

তার আগে মঙ্গলবার খুন হন বিজেপি যুব মোর্চার কর্মী প্রবীণ নেত্তারু। বৃহস্পতিবারই মেঙ্গালুরুর বাসভবনে নেত্তারুর প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন বোম্মাই। এই শ্রদ্ধাজ্ঞাপন অনুষ্ঠানে খুনের তদন্তে কড়া পদক্ষেপের দাবি জানান সংঘ ও বিজেপির কর্মীরা। জবাবে মুখ্যমন্ত্রী জানান, তদন্তভার এনআইআর হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে।

সাংবাদিকদের বোম্মাই জানান, তিনি ইতিমধ্যেই পুলিশের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে নেত্তারুর খুনের ব্যাপারে
বৈঠক করেছেন। তারপরই এনআইএর হাতে তদন্তভার তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই ব্যাপারে বোম্মাই বলেন, ‘তদন্ত চলছে। তদন্তকারীরা মনে করছেন নেত্তারুর খুন একটা সংঘটিত অপরাধ। এর সঙ্গে আন্তঃরাজ্য অপরাধচক্রও জড়িত। তাই আমরা এনআইএর হাতে তদন্তভার তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রবীণ নেত্তারু (৩২) দক্ষিণ কন্নড় জেলার সুল্লিয়া মহকুমার বাসিন্দা। মঙ্গলবার রাতে বেল্লাড়ে এলাকায় তাঁকে খুন করা হয়েছে। পুলিশ এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই দু’জনকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনায় আরও কয়েকজন সন্দেহভাজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এই নিয়ে কর্ণাটকের দক্ষিণ কন্নড় জেলায় গত আট দিনে তিন জন খুন হলেন। তার মধ্যে শেষ ব্যক্তি হলেন মহম্মদ ফাজিল। বৃহস্পতিবার রাতে সুরতকল এলাকায় তিন-চার জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তাঁকে খুন করেছে। গত আট দিনের মধ্যেই নেত্তারুরও আগে মহম্মদ মাসুদ নামে এক ব্যক্তিও খুন হয়েছেন দক্ষিণ কন্নড় জেলায়। আট জনের একটি দুষ্কৃতীদল তাঁকে খুন করেছে। পেশায় চিত্রশিল্পীর কাজ করতেন মাসুদ (১৮)।

আরও পড়ুন- ‘রাষ্ট্রপত্নী’ বিতর্ক, কীভাবে সম্বোধন করা উচিত রাষ্ট্রপতিকে

বোম্মাই জানিয়েছেন, কর্ণাটক সরকার এই সমস্ত খুনগুলোকেই অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে প্রতিটি জীবনই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তদন্ত চলছে। এই ধরনের ঘটনা ঘটা উচিত নয়। তদন্তে ধরা পড়েছে এই সমস্ত দুষ্কৃতীদের পিছনে রাজনৈতিক প্ররোচনা রয়েছে। খুনের ঘটনার বিভিন্ন দিক রয়েছে। মাসুদের খুনিরা গ্রেফতার হয়েছে। অন্য দুটি খুনের ঘটনায় অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। ঘটনার পিছনে দুষ্টচক্রের হাত রয়েছে। এই দুষ্কৃতীদের ধরা হবে। তদন্তে কী বেরিয়ে আসে, আগামী চার-পাঁচ দিনেই সবাই জানতে পারবেন।’

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Karnataka to hand over bjp worker murder case to nia