বড় খবর

এবার পুলিশে অনাস্থা মমতার, দলের কর্মীদের বিশেষ নির্দেশ

ভোটে রাজ্য পুলিশের একাংশের কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মুখ্যমন্ত্রী।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাশাপাশি নির্বাচনী বুথে পুলিশও থাকুক। এই মর্মে দিন কয়েক আগে নির্বাচন কমিশনে আবেদন জানিয়েছে তৃণমূল। অর্থাৎ রাজ্য পুলিশের উপর যে শাসক শিবিরের আস্থা রয়েছে তা স্পষ্ট হয়েছিল। কিন্তু, এদিন অবস্থান পাল্টে বাঁকুড়ার সভা থেকে ভোটে রাজ্য পুলিশের একাংশের কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মুখ্যমন্ত্রী। আসন্ন ভোট ও গণনার সময় রাজ্যের অনেক পুলিশই বিজেপির হয়ে ‘কাজ’ করবে বলে এদিন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কী বলেছেন মমতা?

এদিন বাঁকুড়ার কোতলপুর, ইন্দাস ও বড়জোড়ায় সভা ছিল তৃণমূল নেত্রীর। কোতুলপুরের প্রচার সভায় মমতা বলেন, ‘ভোট মেশিন ভাল করে পরীক্ষা করবেন। না হলে আপনার ভোট আগেই কেউ দিয়ে দেবে। ভোট হয়ে গেলে পাহাড়া দিতে হবে। অনেক পুলিশ আসবে। পুলিশ যদি বলে দিদি আপনি চলে যান, তাহলে যাবেন না। অনেক পুলিশ আসবে। সবার ওপর ভরসা করা যাবে না। অনেকে বিজেপির হয়ে কাজ করবে। পুলিশের ওপর ভরসা রয়েছে তবুও…।’

আরও পড়ুন- ‘সব কাড়তে বর্গি এলো দেশে-বাঁচবো মোরা কীসে?’ বিজেপিকে তুলোধনা মমতার

পুলিশের বিরুদ্ধে এৎ আগে শাসক দলের হয়ে কাজ করার অভিযোগ করেছে বিরোধী দলগুলো। কিন্তু এবার ভোটের আগে পুলিশের প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর অনাস্থা রাজ্য রাজনীতি গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

এর আগে একাধিকবার ইভিএমে কারচুপি করে বিজেপি ভোটে জিতেছে বলে দাবি করেছেন তৃণমূল নেত্রী। ইভিএম কারচুপি রুখতে সোনমবার দলীয় কর্মীদের তাঁর পরামর্শ, ‘কেউ দিলেও ভোটের দিন বিরিয়ানি, চা খাবেন না। খাবারে ঘুমের ওষুধ বা ড্রাগ মিশানো থাকতে পারে। এমনকী বিড়ি দিলেও খাবেন না। আপনার অসতর্কতায় সব ভোট লুট হয়ে যেতে পারে।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Mamata expressed distrust on police special instructions to workers for evm security

Next Story
বদলির নির্দেশের বিরুদ্ধে এবার সুপ্রিম কোর্টে পরমবীর, তোলবাজিকাণ্ডে CBI তদন্তের দাবি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com