বড় খবর

মেঘালয়ের খনি শ্রমিক উদ্ধারে দ্রুত পদক্ষেপ: জনস্বার্থ মামলা গৃহীত সুপ্রিম কোর্টে

গত ১৩ ডিসেম্বর থেকে লিটিয়েন নদীর নিকটবর্তী ওই খনিতে আটকে পড়েছেন শ্রমিকরা। খনিটির মধ্যে নদীর জল ঢুকে পড়েছে।

২০ দিনে উদ্ধার হয়েছে কেবলমাত্র তিনটি হেলমেট

মেঘালয়ের খনিতে আটকে পড়া পনের জন খনি শ্রমিকের দ্রুত উদ্ধারের পদক্ষেপ নিয়ে আবেদন শুনতে রাজি হল সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এবং বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কৌলের বেঞ্চে বৃহস্পতিবার এই শুনানি হবে।

খনিশ্রমিকদের উদ্ধারের জন্য যথেষ্ট পরিমাণ প্রয়োজনীয় সামগ্রী ও লোকবল চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে এক আইনজীবী এই আবেদন করেছেন। আদিত্য এন প্রসাদ নামের ওই আইনজীবীর করা জনস্বার্থ মামলায় কেন্দ্র এবং অন্যান্য কর্তৃপক্ষকে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর স্থির করার নির্দেশ দেওয়ার জন্যও আবেদন জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন, রাফাল নিয়ে রিভিউ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে দুই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

গত ১৩ ডিসেম্বর থেকে লিটিয়েন নদীর নিকটবর্তী ওই খনিতে আটকে পড়েছেন শ্রমিকরা। খনিটির মধ্যে নদীর জল ঢুকে পড়েছে। তাঁদের উদ্ধার করতে সমস্ত এজেন্সি একযোগে কাজ করছে। কিন্তু ২০ দিন পরেও তিনটি হেলমেট ছাড়া আর কিছুই উদ্ধার করা যায়নি।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে মেঘালয়ে যত্রতত্র ইঁদুরের গর্তের মতো খনি তৈরিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল জাতীয় পরিবেশ আদালত। কিন্তু আদালতের সেই নিষেধাজ্ঞাকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সে রাজ্যে যত্রতত্র বেআইনিভাবে খনি তৈরি করা হচ্ছে বলে গত নভেম্বরে সরব হন সমাজকর্মী অ্যাগনেস খার্শিইং। বেআইনি ভাবে একটি খনি তৈরি নিয়ে সরব হওয়ায় অ্যাগনেসের সহকর্মী অমিতা সাংমার উপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ ওঠে।

Web Title: Meghalaya rat hole mine rescue supreme court

Next Story
রাফাল নিয়ে রিভিউ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে দুই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com