বড় খবর

“ভারতে জ্বালানির কোনও সঙ্কট নেই, পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে পেট্রোল-ডিজেল-রান্নার গ্যাস”

জ্বালানির গ্রাহক হিসেবে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতের কাছে কী মজুত আছে যথেষ্ট পরিমাণে জ্বালানি? অপরিহার্য দ্রব্যের মধ্যে পেট্রোল, ডিজেল এবং রান্নার গ্যাস যথেষ্টই গুরুত্বপূর্ণ।

ভারতে জ্বালানির কোনও সঙ্কট নেই
করোনার জেরে দেশে এই মুহুর্তে ঘরবন্দি মানুষ। জ্বালানির গ্রাহক হিসেবে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতের কাছে কী মজুত আছে যথেষ্ট পরিমাণে জ্বালানি? অপরিহার্য দ্রব্যের মধ্যে পেট্রোল, ডিজেল এবং রান্নার গ্যাস যথেষ্টই গুরুত্বপূর্ণ। এই প্রেক্ষিতে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান সঞ্জীব সিং জানিয়েছেন, সমস্ত প্ল্যান্ট এবং সাপ্লায়ারদের কাছেই পর্যাপ্ত পরিমাণে মজুত আছে জ্বালানি দ্রব্যাদি।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণার দিনই মারা যান সঞ্জীব সিংয়ের বাবা। কিন্তু দেশের এত বড় বিপর্যয়ের দিনে শোক সামলেও দেশের প্রতিটি কোণে জ্বালানি যাতে পৌঁছে যায় তা নিশ্চিত করেছিলেন তিনি। অব্যাহত রেখেছিলেন এই বিশাল অপারেশন। এমনকি সেই অবস্থায় রান্নার গ্যাস বুকিং করা নিয়ে তিনি গ্রাহকদের অযথা বিভ্রান্ত হতেও বারণ করেন।

আরও পড়ুন: ক্ষমা চাইলেন মোদী, ‘এমন কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চাইনি’

সংবাদসংস্থা পিটিআইকে তিনি বলেন, ““আমরা পুরো এপ্রিল এবং তারও বেশি সময়ের জন্য সমস্ত জ্বালানির চাহিদা বিস্তারিত তালিকা প্রস্তুত করে রেখেছি। আমাদের চাহিদা পূরণের জন্য রিফাইনারিগুলি কাজ করছে। সমস্ত বাল্ক স্টোরেজ পয়েন্টগুলির পাশাপাশি, এলপিজি বিতরণকারী এবং পেট্রোল পাম্পগুলি স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে। কোনও জ্বালানির একেবারেই ঘাটতি নেই”।

তবে দেশব্যাপী লকডাউনের ফলে দেশের সমস্ত ব্যবসা বন্ধ, বন্ধ বিমান চলাচল, বন্ধ ট্রেন। যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়েছে। সেদিক থেকে জ্বালানী চাহিদার ক্ষেত্রে নেতিবাচক বৃদ্ধি বা বলা ভালো চাহিদা হ্রাস হয়েছে। যদিও চাহিদা বেড়েছে রান্নার গ্যাসের।

Read the full story in English

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: No fuel crisis in india enough stock of petrol diesel lpg available to last lockdown ioc

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com