বড় খবর

‘টুলকিট-কাণ্ডে তদন্ত সংক্রান্ত কোনও তথ্য মিডিয়ায় ফাঁস হয়নি’, কোর্টকে জানালেন সলিসিটর জেনারেল

দিল্লি হাইকোর্টে একটি আবেদন করেছেন দিশা রবি। সেই আবেদনে উল্লেখ, ‘টুলকিট তদন্ত সংক্রান্ত কোন তথ্য যাতে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ না করে দিল্লি পুলিশ। আদালত সেটা নিশ্চিত করুক এবং তদন্তকারীদের বারণ করুক।‘

পরিবেশকর্মী দিশা রবি

টুলকিট-কাণ্ডে দিশা রবির কোনও ব্যক্তিগত তথ্য সংবাদ মাধ্যমে ফাঁস করেনি দিল্লি পুলিশ। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় দায়ের হওয়া এফআইআর-এর জেরে এই তরুণী পরিবেশকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে, দিল্লি হাইকোর্টে একটি আবেদন করেছেন দিশা রবি। সেই আবেদনে উল্লেখ, ‘টুলকিট তদন্ত সংক্রান্ত কোন তথ্য যাতে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ না করে দিল্লি পুলিশ। আদালত সেটা নিশ্চিত করুক এবং তদন্তকারীদের বারণ করুক।‘ সেই মামলার শুনানিতে বিচারপতি প্রতিভা সিং এজলাসে দিল্লি পুলিশের হয়ে সওয়াল করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহেতা।

তিনি বলেন, ‘এই বিষয়ে অবস্থান স্পষ্ট করে আদালতে হলফনামা জমা দেবে দিল্লি পুলিশ।‘ বিচারপতি বলেছেন, ‘দিশা রবির আবেদন যাতে অবশ্যই বিবেচনার মধ্যে রাখা হয়। ‘ এই বিষয়ে কয়েকটি বেসরকারি সংবাদ মাধ্যম এবং ন্যাশনাল ব্রডকাস্টিং স্ট্যান্ডার্ড অথরিটিকে নোটিশ পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

এদিকে, টুলকিট-কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত নিকিতা জ্যাকবকে ২১ দিনের জন্য  সস্তি দিল বম্বে হাইকোর্ট। বুধবার হাইকোর্টের ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চ এই আইনজীবীর তিন সপ্তাহের অন্তর্বর্তী জামিন গ্রাহ্য করেছে। এই মামলায় দিল্লি পুলিশের হাতে গ্রেফতারি এড়াতে বম্বে হাইকোর্টে দ্বারস্থ হয়ে অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করেন নিকিতা। সেই আবেদনের শুনানিতে ঔরঙ্গাবাদ বেঞ্চ বলেছে, ‘বুধবার থেকে শুরু করে আগামি ২১ দিন পর্যন্ত এই রক্ষাকবচ। এই সময়ের মধ্যে আবেদনকারী সংশ্লিষ্ট আদালতের দ্বারস্থ হয়ে স্বস্তির মেয়াদ বাড়াতে আবেদন করতে পারবেন।’

মঙ্গলবার গ্রেটা টুলকিট-কাণ্ডে নিকিতা জ্যাকবের জামিন আবেদনে রায়দান স্থগিত রেখেছিল বম্বে হাইকোর্ট। তবে, এর আগে পেশায় ইঞ্জিনিয়ার শান্তনু মুকুলকে অন্তর্বর্তী জামিন দিয়েছেন বিচারপতি বিভা কঙ্কনওয়ারি। গ্রেফতারি এড়াতে তাঁর ১০ দিনের জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। ইতিমধ্যে দিল্লি পুলিশ এই ঘটনায় এই দুই জনের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। গ্রেফতার করা হয়েছে পরিবেশকর্মী দিশা রবিকে।

দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে টুলকিট ডকুমেন্ট তৈরি করেছিলেন নিকিতা জ্যাকব, দিশা রবি আর শান্তনু। সুত্রের খবর, এদের তৈরি করা টুলকিট ট্যুইটারে শেয়ার করে বিতর্ক বাড়িয়েছেন কিশোরী পরিবেশকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ। যদিও তাঁর বিরুদ্ধেও। এদিন দিশা রবির গ্রেফতারি বিষয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন দিল্লি পুলিশের সিপি (সাইবার সেল) প্রেম নাথ। তিনি অভিযোগ করেন, ‘দিশা-সহ অন্যদের লক্ষ্য ছিল দেশের ভাবমূর্তি খারাপ করা। ধৃত দিশাই গ্রেটা থুনবার্গকে টেলিগ্রামে সেই টুলকিট পাঠিয়েছিল।‘ এমনকি, ওই তরুণী পরিবেশকর্মী দিশা রবি একটা হোয়াটস গ্রুপ ডিলিট করেছিল। যেটা সে নিজের হাতে বানিয়েছিল। তদন্তে এমনটা উঠে এসেছে। এদিন দাবি করেন প্রেম নাথ।  


এমনকি, প্রাথমিক তদন্তে এই গোটা বিষয়ের সঙ্গে খালিস্তানি যোগ খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। ১১ ফেব্রুয়ারি নিকিতার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। তারপরের দিন গা ঢাকা দেন নিকিতা। এমনটাও দাবি করেন ওই পুলিশকর্তা। তিনি জানিয়েছেন, খলিস্তান-পন্থী সংগঠন পিজেএফ-এর এক সদস্যা পুনিতের সঙ্গে ১১ জানুয়ারি জুম মিটিং করেন নিকিতা, দিশা আর শান্তনু। এই পুনিত কানাডায় থাকেন।  দিশার গ্রেফতারির পাশাপাশি নিকিতা আর শান্তনুর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে দিল্লি পুলিশ।

Web Title: No information related toolkit case was shared with media tushar mehta told to delhi hc national

Next Story
যৌন নিগ্রহ কাণ্ডে ষড়যন্ত্রের শিকার গগৈ, সুপ্রিম নির্দেশে স্বস্তি প্রাক্তন প্রধান বিচারপতির
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com