scorecardresearch

বড় খবর

আর নয় যানযট, টোলপ্লাজার আধুনিকীকরণের পথে গুচ্ছ পদক্ষেপ কেন্দ্রের

উপগ্রহভিত্তিক জিপিএস ব্যবস্থার কথা ভাবছে সরকার।

আর নয় যানযট, টোলপ্লাজার আধুনিকীকরণের পথে গুচ্ছ পদক্ষেপ কেন্দ্রের
অঙ্গ পরিবহনে বিল্পব আনতে বিশেষ ড্রোন প্রযুক্তির ব্যবহার, দিল্লিতে প্রকল্পের সূচনা করলেন গডকরি

টোলপ্লাজাগুলিতে দীর্ঘ যানযটের কারণে সমস্যার মুখে পড়তে হয় পথ চলতি সাধারণ মানুষকে। সেই সমস্যা মোকাবিলায় একধাপ এগিয়ে যাওয়ার বার্তা দিলেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী নীতিন গড়করি। স্বয়ংক্রিয়  লিঙ্কযুক্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টোল কেটে নেওয়ার পরিকল্পনা সারা দেশ জুড়ে বাস্তবায়নের কথা বলেছেন তিনি। এর ফলে টোল প্লাজা গুলি দীর্ঘ যানযটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গড়কড়ি বলেন,  “২০১৯ সালে, সরকার একটি নিয়ম চালু করে যে গাড়িগুলি কোম্পানির লাগানো নম্বর প্লেটের সঙ্গে আসবে। তাই গত চার বছরে যেসব গাড়ি বাজারে এসেছে সেগুলোর নম্বর প্লেট আলাদা। এখন, টোল প্লাজা সরিয়ে ক্যামেরা বসানোর পরিকল্পনা, যা এই নম্বর প্লেটগুলিকে চিহ্নিত করবে এবং টোল সরাসরি অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে। আমরা এই স্কিমের একটি সূচনা করছি। এক্ষেত্রে একটি সমস্যা রয়েছে – যে গাড়ির মালিক টোল এড়িয়ে যান এবং অর্থ প্রদান না করেন সেক্ষেত্রে  তাদের শাস্তি দেওয়ার কোনও বিধান আইনে নেই। সেই বিধান আমাদের আইনের আওতায় আনতে হবে। যে গাড়িগুলিতে এই নম্বর প্লেটগুলি নেই সেগুলি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ইনস্টল করার জন্য আমরা একটি নতুন আইন আনতে পারি আনতে পারি। আমাদের এর জন্য একটি বিল আনতে হবে”।

সম্প্রতি গডকড়ি জানান, ছয় মাসের মধ্যে দেশে সব হাইওয়ে থেকে টোলপ্লাজার ব্যবস্থা উঠে যাবে। পরিবর্তে গাড়ির নম্বর প্লেটের থেকেই সরাসরি টোল কেটে নেওয়ার ব্যবস্থা থাকতে পারে বলে জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর মতে, টোলপ্লাজা দেশের অনেক সমস্যার কারণ। লম্বা লাইনে গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে। যানজট তৈরি হয়। তাই বিকল্প উপায় খোঁজা হচ্ছে। ‘সরকার দুটি বিকল্প পথ খুঁজছে। উপগ্রহভিত্তিক জিপিএস ব্যবস্থার কথা ভাবছে সরকার। তাহলে গাড়ির মালিকের অ্যাকাউন্ট থেকে সরাসরি টাকা কেটে নেওয়া হবে বা নম্বর প্লেট থেকে সরাসরি টাকা কেটে নেওয়া হবে, এমন বিকল্পের কথাও ভাবা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: [ চাঁদিপুরে সফল উৎক্ষেপণ, যুদ্ধবিমান ধ্বংসের জন্য অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র জুড়ল নৌসেনায় ]

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা স্যাটেলাইট ব্যবহার করে জিপিএস ব্যবহার করতে চাই ফাস্ট্যাগের বদলে। নয়া পদ্ধতি চালু করার প্রক্রিয়ায় আছি আমরা এবং এর ভিত্তিতে আমরা টোল নিতে চাই। নম্বর প্লেটেও প্রযুক্তি পাওয়া যায় এবং ভারতেও অন্যান্য আরও ভালো প্রযুক্তি পাওয়া যায়। আমরা নির্দিষ্ট প্রযুক্তি বেছে নেব। যদিও আমরা আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নিইনি। আমার দৃষ্টিতে নম্বর প্লেট প্রযুক্তিতে কোনও টোলপ্লাজা থাকবে না এবং একটি অত্যাধুনিক কম্পিউটারাইজড ডিজিটাল সিস্টেম থাকবে, যার মাধ্যমে আমরা চালকদের স্বস্তি দিতে পারি। কোনও লাইন থাকবে না এবং মানুষ বড় স্বস্তি পাবে। ছয় মাসের মধ্যে আমি এটি করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব। দেশের মানুষকে যানজটের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এটি জরুরি।’

সরকারি তথ্য বলছে ম্যানুয়াল টোল সংগ্রহের লেনের মাধ্যমে প্রতি ঘণ্টায় ১১২ টি গাড়ির তুলনায় ইলেকট্রনিক টোল সংগ্রহের লেনের মাধ্যমে প্রতি ঘণ্টায় ২৬০ টিরও বেশি যানবাহন টোলের মাধ্যমে চলাচল করতে পারে। সেক্ষেত্রে দীর্ঘ যানযটের সমস্যা সহজেই এড়ানো সম্ভব বলেও মনে করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। পাশাপাশি তিনি বলেন ভারতের মতো দেশে, ন্যূনতম রাজস্ব ক্ষতি যাতে না হয় তা নিশ্চিত করতে আমাদের একাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে”।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: No toll plazas cameras to read number plates deduct toll gadkari unveils plan