scorecardresearch

দেউলিয়া হয়ে যাওয়া ব্যাঙ্কগুলোর গ্রাহকদের পাশে কেন্দ্র: প্রধানমন্ত্রী

PM Modi: একাধিক সমবায় ব্যাঙ্ক আর্থিক সঙ্কটের কারণে গ্রাহক পরিষেবা দিতে সমস্যার মুখে পড়েছে। সেই ব্যাঙ্কগুলোয় প্রচুর টাকা গ্রাহকদের জমানো পুঁজি হিসেবে পড়ে।

UP to soon become medical hub of India says PM Modi
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

PM Modi: আর্থিক সঙ্কটের কারণে একাধিক ব্যাঙ্ক লেনদেন বাবদ গ্রাহক পরিষেবা দিতে ব্যর্থ। সেই গ্রাহকদের পাশে দাঁড়াতে ১৩০০ কোটি টাকা অর্থসাহায্য করেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে লক্ষাধিক গ্রাহক সুরাহার মুখ দেখেছে। রবিবার এই দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর্থিক সঙ্কটের কারণে অনেক গ্রাহকের টাকা সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কে আটকে রয়েছে। সেই গ্রাহকদের মুখ চেয়েই এই অর্থ সাহায্য।

গত অগাস্টে ডিপোজিট ইনস্যুরেন্স এবং ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন আইনে সংশোধিত এনেছে কেন্দ্র সরকার। সেই সংশোধনীতে ব্যাঙ্কিং লেনদেনে সমস্যা তৈরি হলে ৯০ দিনের মধ্যে তাঁদের জমা রাশি তুলতে পারবেন গ্রাহকরা।

এদিন এক অনুষ্ঠানের ব্যাঙ্কে আটকে থাকা এমন গ্রাহকদের হাতে সাহায্যের চেক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী সেই অনুষ্ঠানের ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের পক্ষে আজ খুব গুরুত্বপূর্ণ দিন। ব্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠান এবং লক্ষ-কোটি গ্রাহকদের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ। এই উদ্যোগে গ্রাহকদের আত্মবিশ্বাস বাড়বে আর ব্যাঙ্কিং পরিষেবা আরও স্বচ্ছ হবে।‘

জানা গিয়েছে, নতুন সংশোধনীতে ৭৬ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। ধুঁকতে থাকা ব্যাঙ্কগুলোকে আর্থিক ভাবে সাহায্য এবং বিপাকে পড়া গ্রাহকদের সুরাহা দিতে। এর আগে ২০২০ জানুয়ারিতে বিমারাশির পরিমাণ বাড়িয়ে ৫ লক্ষ টাকা করেছিল। দেউলিয়া হয়ে যাওয়া কোনও ব্যাঙ্ক থেকে গ্রাহকরা জমা অর্থের থেকে ৫ লক্ষ টাকা বিমা বাবদ তুলতে পারবেন। আগে এই অর্থের পরিমাণ ১ লক্ষ টাকা ছিল।

একাধিক সমবায় ব্যাঙ্ক আর্থিক সঙ্কটের কারণে গ্রাহক পরিষেবা দিতে সমস্যার মুখে পড়েছে। সেই ব্যাঙ্কগুলোয় প্রচুর টাকা গ্রাহকদের জমানো পুঁজি হিসেবে পড়ে। কিন্তু টাকা তুলতে পারছেন না তাঁরা। এই ধরনের ব্যাঙ্ক এবং গ্রাহকদের পাশে দাঁড়াতেই এই কেন্দ্রীয় উদ্যোগ।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Pm modi assures those whose deposit were stuck in bank due to financial crunch national