বড় খবর

আত্মনির্ভর ভারত ফের বৃদ্ধির সরণিতে ফিরবে: মোদী

‘সরকার হঠাৎ করে আর্থিক সংস্কার করেনি। সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করে পোক্ত ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে এই পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’

pm modi, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

‘সুপরিকল্পিত সংস্কারের মাধ্যমে ভারতীয় অর্থনীতি ফের বৃদ্ধির সরণিতে ফিরবে।’ কনফেডারেশন অব ইন্ডাস্ট্রি বা সিআইআই-র ১২৫ বছর উপলক্ষে ‘গেটিং গ্রোথ ব্যাক’ অনুষ্ঠানে এদিন এই আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনা লকডাউনে দেশের আর্থিক বৃদ্ধি ধাক্কা খেয়েছে বলে এদিন জানান প্রধানমন্ত্রী। বলেন, ‘লকডাউনকে পিছনে ফেলে আনলক ১.০ পর্বের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বাড়ছে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড। এইভাবেই ফের বৃদ্ধির সরণিতে ফিরবে দেশের অর্থনীতি।’ ভারতে সংকট মোকাবিলার যথেষ্ট শক্তি রয়েছে বলেও মনে করেন মোদী।

ভেঙে যাওয়া অর্থনীতির চাকা ঘোরাতে ইতিমধ্যেই পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যান প্রকল্পে পরিযায়ী ও গরীবদের সহায্য সহ ৫৩ হাজার কোটির বেশি আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। মোদীর বলেন, ‘সরকার হঠাৎ করে সংস্কার করেনি। সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করে ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে এই পদক্ষেপ করা হচ্ছে।’ দেশের অর্থনীতিতে চাঙ্গা করাই এখন কেন্দ্রের আগ্রাধিকার। মোদীর কথায়, ‘উদ্দেশ্য, অন্তর্ভুক্তি, বিনিয়োগ, পরিকাঠামো এবং উদ্ভাবনই দেশকে উন্নতির শিখরে পৌঁছে দিতে পারে। সংকট মোকাবিলায় ভারতের ক্ষমতা সমন্ধে আমি আশাবাদী। দেশীয় প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনে আমি আস্থা রাখি। দেশের কৃষক, এমএসএমই ও বিনিয়োগকারীদের আমার বিশ্বাস দৃঢ়। তাই আমার বিশ্বাস, ফের বৃদ্ধির সরণিতে ফিরবে ভারতীয় অর্থনীতি।’

লকডাউন সত্বেও ভারতে সংক্রমণের মাত্রা উর্ধ্বমুখী। লকডাউনের কার্যকারীতা নিয়ে প্রসান তুলেছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহল গান্ধী। এ প্রসঙ্গে এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘ভারত সঠিক সময় উপযুক্ত পদক্ষেপ করেছে। বিশ্বের অন্য়সব দেশের সঙ্গে তুলনা করলেই স্পষ্ট হয় যে সংক্রমণ রুখতে লকডাউন কতটা কার্যকরী হয়েছে।’

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ‘আত্মনির্ভর নির্ভর’ ভারত গঠনের কথা বলা হয়েছে। এই বিষয়টিকে মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘পৃথিবীরতে তৃতীয় কয়লা উৎপাদনকারী দেশ হল ভারত। তবুও বহুদিন আমাদের কয়লা আমদানী করতে হয়। এর কারণ কী? সরকারের নীতিই প্রদান অন্তরায় ছিল। কিন্তু, এখন তা অনেকটাই কেটেছে।’ পারমাণবিক শক্তি ক্ষেত্রে বেসরকারি বিনিয়োগের পথ খোলা রয়েছে বলেও জানান তিনি। সুযোগেরও উপযুক্ত ব্যবহারের উপর জোর দেন মোদী।

দেশ এখন অনেকটাই পোক্ত। মোদীর কথায় ‘ভারতে থেকে বিশ্বের প্রত্যাশা বেড়েছে। করোনা মহামারীতে স্বাস্থ্য সরঞ্জাম দিয়ে ১৫০টি দেশকে সাহায্য় করেছে ভারত। বিশ্বের প্রত্যেক দেশই এখন বিশ্বস্ত বন্ধুর সন্ধান করছে। শক্তি ও সম্ভাবনার বিচারে এ দেশের সেই সম্ভাবনা প্রকট।’

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Pm modi sayes growth will be back at cii annual session 2020

Next Story
স্বাস্থ্য দফতরের তরফে পরিযায়ী শ্রমিকদের কন্ডোম বিতরণ
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com