বড় খবর

হিন্দু হস্টেল না মিললে বৃহত্তর আন্দোলনের দিকে যাবেন প্রেসিডেন্সির ছাত্ররা

ছাত্ররা এ বিষয়ে জানিয়েছেন, চলতি সপ্তাহের মধ্যে হস্টেল ফেরৎ না পেলে সোমবার থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের দিকে এগোবেন। সোমবার একটি জমায়েতেরও ডাক দিয়েছেন তাঁরা।

preci
ছাত্র বিক্ষোভ, প্রেসিডেন্সি ফাইল ছবি

প্রায় একমাস কেটে গিয়েছে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দু হস্টেল সংক্রান্ত দাবি মেটেনি পড়ুয়াদের, এদিকে ডেঙ্গু ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন একের পর এক ছাত্র। বালিশ বিছানা নিয়ে কার্যত কলেজ প্রাঙ্গনকেই হস্টেল বানিয়ে নিয়েছেন তাঁরা। ছাত্ররা স্পষ্ট জানিয়েছেন, চলতি সপ্তাহের মধ্যে হস্টেল ফেরৎ না পেলে সোমবার থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের দিকে এগোবেন তাঁরা। এ বিষয়ে আগামী সোমবার সকালে একটি জমায়েতেরও ডাক দিয়েছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: ছাত্র আন্দোলনের হিড়িক, হস্টেলের দাবিতে উত্তপ্ত প্রেসিডেন্সি

অন্যদিকে গত সপ্তাহে উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া আবারও একটি সাংবাদিক বৈঠক ডাকেন, সেখানে তিনি বলেন, “আন্দোলনকারীদের ম্যালেরিয়ার কথা আমারও কানে এসেছে, কিন্তু আমি তাঁদের এভাবে থাকতে বলিনি, আমি কখনই চাই না আমার ছাত্ররা অসুবিধায় পড়ুক।” এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন, “ওরা ছোটো, তাই ওরা ভীষণই অবুঝ। কথায় কথায় এই ধরনের আন্দোলন মানা যায় না।” তবে কোনও কথাই শুনতে নারাজ আন্দোলনকারী ছাত্ররা।

প্রসঙ্গত, প্রায় ৫০ জন ছাত্রছাত্রী এখনও দিন কাটাচ্ছেন প্রেসিডেন্সির করিডোরেই। ডাঃ লোহিয়া ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে সংস্কারের কাজ শেষ করে ১ অগাস্টের মধ্যে হোস্টেল ফেরত দেওয়ার কথা লিখিতভাবে জানালেও ছাত্রদের বক্তব্য, নির্ধারিত দিন পেরিয়ে যাওয়ার পর জানা যায়, হোস্টেল সংস্কারের কাজ এখনও কিছুই এগোয়নি। ইতিমধ্যেই ফিরে গেছে সংস্কারের জন্য বরাদ্দ অর্থও।

ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ, তিন বছর আগে হিন্দু হস্টেল সারানোর অজুহাতে ১১ মাস সময় চেয়ে রাজাবাজার আবাসিকে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল সমস্ত ছাত্রছাত্রীদের। তবে তিন বছর কেটে গেলেও হস্টেলের কোনও উন্নতি দেখতে পাওয়া যায়নি। এদিকে দুই হস্টেল নিয়েই জমেছে অভিযোগের পাহাড়।

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Presidency kolkata students threaten bigger stir for hostel

Next Story
আমরা টাকা জোগাড় করেছিলাম এলগার পরিষদের সভার, কলকাতায় প্রকাশ্য সভায় বললেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিkolse patil
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com