বড় খবর

মেলাল ‘জন গণ মন’, পুলিশ বিক্ষোভকারী সমবেত জাতীয় সঙ্গীত

ডিএসপি চেতন রাঠোর জানান, ‘যদি তাঁকে ভরসা করা হয়, তাহলে এই গান গাইতে সবাই উঠে দাঁড়ান।’ এরপরই জাতীয় সঙ্গীত গাইতে শুরু করেন তিনি। তাঁর সঙ্গে গলা মেলান আন্দোলনকারীরা। পরে এলাকা ফাঁকা হয়ে য়ায়।

অভিনব পদ্ধতিতে বিক্ষোভকারীদের থামালেন বেঙ্গালুরুর ডিএসপি চেতন রাঠোর।

অভিনব পদ্ধতিতে বিক্ষোভকারীদের থামালেন বেঙ্গালুরুর ডিএসপি চেতন রাঠোর। প্রতিবাদীর সঙ্গে ‘জন গণ মন’ গাইলেন পুলিশের ওই উচ্চ আধিকারিক। তারপরই এলাকা ফাঁকা হয়ে যায়। বৃহস্পতিবারের এই ভিডিও ভাইরাল হতেই নেট দুনিয়ায় সাড়া পড়ে যায়। প্রশাংসা পায় বেঙ্গালুরুর ডিএসপি-র উদ্যোগ।

সংশোধিত নাগরিক আইনের প্রতিবাদে দেশের নানা জায়গায় বিক্ষোভ চলছে। সেই আঁচ ছড়িয়ে পড়ে নিজামেপর শহরে। বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরুর টাউন হলের সামনে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে ধরনায় বসেছিলেন বিক্ষোভকারীরা। সকালে ঐতিহাসিক রামচন্দ্র গুহকে পুলিশি আটকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছিল আগেই। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তার তীব্রতাও বৃদ্ধি পায়। জোর খাটাতে গেলে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বুঝেছিলেন ওই এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে থাকা ডিএসপি রাঠোর। তাই ভিড়ের মাঝে গিয়ে তিনি আন্দোলনকারীদের বলেন, ‘ভিড়ের মধ্যে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হিংসা ছড়াতে পারে কেউ কেউ। তাকে শনাক্ত করা কঠিন। যদি এর ফায়দা কেউ তোলে, তাহলে ক্ষতি হবে সবার। সবাইকেই পুলিশের কড়া পদক্ষেপের সম্মুখীন হতে হবে।’

আরও পড়ুন: ‘আমি পাকিস্তানে জন্মেছি, কী পরিচয়পত্র দেখাব’

প্রত্যদর্শীদের কথায়, উপস্থিত জনতা সমবেতভাবে পুলিশ আধিকারিকদে সমর্থন করে।

আরও পড়ুন: জামা মসজিদে প্রতিবাদ, আটক ভীম সেনা প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদ

তারপর ডিএসপি চেতন রাঠোর জানান, ‘যদি তাঁকে ভরসা করা হয়, তাহলে এই গান গাইতে সবাই উঠে দাঁড়ান।’ এরপরই জাতীয় সঙ্গীত গাইতে শুরু করেন তিনি। তাঁর সঙ্গে গলা মেলান আন্দোলনকারীরা। একটু পরেই ফাঁকা হয়ে যায় টাউন হল এলাকা।

Read the full story in English

Web Title: Protesters police join in singing jana gana mana at bengaluru

Next Story
‘আমি পাকিস্তানে জন্মেছি, কী পরিচয়পত্র দেখাব’
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com