বড় খবর

পরিযায়ী শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে উত্তাল সুরাত

শিল্পতালুক হাজিরার কাছে মোরা গ্রামে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য় করে পাথর ছোড়ারও অভিযোগ উঠেছে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিরুদ্ধে।

Migrant workers clash with police in Surat, পরিযায়ী শ্রমিক, সুরাতে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভ, Migrant workers , পরিযায়ী শ্রমিক, পরিযায়ী শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, Migrant workers news, Migrant workers latest news, surat, lockdown, লকডাউন
ছবি: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

লকডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভে আবারও উত্তপ্ত গুজরাতের সুরাত। বাড়ি ফেরার দাবিতে এদিন পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয় সুরাতের মোরা গ্রামে। পুলিশের সঙ্গে পরিযায়ী শ্রমিকদের সংঘর্ষ বাধে। শিল্পতালুক হাজিরার কাছে মোরা গ্রামে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য় করে পাথর ছোড়ারও অভিযোগ উঠেছে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ৪০ জনেরও বেশি পরিযায়ী শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ, সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে এমনটাই খবর।

জানা গিয়েছে, বাড়ি ফেরার জন্য় জেলা প্রশাসন ব্য়বস্থা করুক, এই দাবি জানিয়ে এদিন সোচ্চার হন একশোরও বেশি পরিযায়ী শ্রমিক। উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ওড়িশায় ওই পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি বলে পিটিআই সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: মৃদু উপসর্গে করোনা পরীক্ষা ছাড়াই হাসপাতাল থেকে ছুটি, স্বাস্থ্যমন্ত্রকের নয়া নির্দেশ

উল্লেখ্য়, করোনা মোকাবিলায় লকডাউন ঘোষণার পর সুরাতে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভের ছবি আগেও সামনে এসেছে। ঘরে ফেরার দাবিতে তাঁরা আগেও গর্জে উঠেছিলেন সে রাজ্য়ে।

এ ঘটনা প্রসঙ্গে গুজরাতের কংগ্রেস সভাপতি অমিত চাভড়া টুইটারে লিখেছেন, ”গুজরাতে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরতে চান। কিন্তু ৪৫ দিন পরও সরকার এ ব্য়াপারে কোনও সুরাহা করতে পারল না। শিল্পপতি বন্ধুদের চাপে পড়ে পরিযায়ীদের ঘরে ফেরানো হচ্ছে না। বহু শহরে পুলিশ ও শ্রমিকদের মধ্য়ে সংঘর্ষ বাধছে। এটা সরকারের ব্য়র্থতার ফল”।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Protests by migrants erupt again in surat lockdown

Next Story
‘আমার কোনও রোগ হয়নি, সম্পূর্ণ সুস্থ’: অমিত শাহAmit Shah on govt covid handling
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com