scorecardresearch

বড় খবর

রেলের বিরুদ্ধে পাচারে মদতের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর চিঠি ঘিরে হুলস্থূল

রাজ্যে অবৈধ খনন এবং তা পাচারে রেলের আধিকারিকদের জড়িত থাকার অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী

রেলের বিরুদ্ধে পাচারে মদতের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর চিঠি ঘিরে হুলস্থূল

রাজ্যে অবৈধ খনন এবং তা পাচারে রেলের আধিকারিকদের জড়িত থাকার অভিযোগ করেছেন ঝাড়খন্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন। বুধবার রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণবকে লেখা এক চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, সাহেবগঞ্জ এবং অন্যান্য জেলায় অবৈধ খনন এবং তা পাচারে সরাসরি রেলের আধিকারিকদের যোগসাজশ রয়েছে।

তিনি বলেন, রাজ্য সরকার এই বিষয়ে তদন্তের জন্য একটি উচ্চ-পর্যায়ের কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে রেলের কাছ থেকেও সহযোগিতা কাম্য। বর্তমানে রেলের আধিকারিকরা অবৈধ খনন রোধে রাজ্য সরকারকে কোনপ্রকার সহযোগিতা করছেন না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী সোরেন আরও অভিযোগ করেন, ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে, রেলওয়ে তার পোর্টাল FIOS-কে ঝাড়খণ্ডের JIMMS পোর্টালের সঙ্গে একত্রীকরণ করছে না। চালান  ছাড়া এবং ভুয়া চালানের ভিত্তিতে রেলপথে অবৈধভাবে খনিজ সম্পদ পাচার করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে, রাজ্য সরকার অবৈধ খনন এবং এর পাচার সম্পর্কিত বিষয়গুলিতে রেলের আধিকারিকদের জড়িত থাকার তদন্ত করতে একটি উচ্চ-স্তরের তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী রেলমন্ত্রীকে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটিকে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করার জন্য রেলের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে বলেছেন ঝাড়খণ্ড ইন্টিগ্রেটেড মাইনস অ্যান্ড মিনারেল ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (JIMMS) সিস্টেম কার্যকর করা হয়েছে। সড়কপথে খনিজ পরিবহনে যথাযথ মনিটরিং করা হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে উল্লেখ করেছেন যে বেআইনি খনির পরিবহন বন্ধে রেলের তরফে রাজ্যকে কোনও সহযোগিতা করা হচ্ছে না।

বৈধ চালান ছাড়াই খনিজ সম্পদ পাচারের ঘটনা সামনে আসছে৷ রাজ্য সরকার নীতি আয়োগ, ইস্টার্ন জোনাল কাউন্সিল এবং ভারত সরকারের কয়লা মন্ত্রকের বৈঠকেও এই বিষয়টি উত্থাপন করেছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সোরেন রেলমন্ত্রীকে রাজ্য বৈধ চালান ছাড়া কোনও খনিজ পরিবহন না করা নিশ্চিত করার অনুরোধও করেছেন ।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Railways encouraging illegal mining in jharkhand