‘টাকা দিয়ে মুখ বন্ধ করতে চেয়েছিলেন শিক্ষক’! দলিত শিশুর মৃত্যুর পর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ পরিবারের

পরিবারের দাবি গত ২০ জুলাই স্কুল চলাকালীন শিক্ষকের জন্য ‘সংরক্ষিত’ মাটির পাত্র থেকে ভুল করেই জল খেয়ে নেয় দলিত শিশুটি।

‘টাকা দিয়ে মুখ বন্ধ করতে চেয়েছিলেন শিক্ষক’! দলিত শিশুর মৃত্যুর পর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ পরিবারের
লখিমপুর খেরিতে দুই নাবালিকার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, ধর্ষণের অভিযোগে উত্তাল যোগীরাজ্য

টাকা দিয়ে পরিবারের মুখ বন্ধ করতে চেয়েছিলেন অভিযুক্ত শিক্ষক, বিষ্ফোরক দাবি রাজস্থানে মৃত দলিত শিশুর পরিবারের।  চিকিৎসা বাবদ যত টাকা লাগবে তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। জল খাওয়ার ‘অপরাধে’  শিক্ষকের বেধড়ক মারে দলিত শিশুর মৃত্যুর পর বিস্ফোরক মৃত শিশুর পরিবার। পরিবারের দাবি গত ২০ জুলাই স্কুল চলাকালীন শিক্ষকের জন্য ‘সংরক্ষিত’ মাটির পাত্র থেকে ভুল করেই জল খেয়ে নেয় দলিত শিশুটি। আর সেই ‘অপরাধে’ শিশুটিকে বেধড়ক মারধর করেন ওই শিক্ষক।

এর পরেই শিশুটি বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়ে। প্রথমে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় আহমেদাবাদের একটি হাসপাতালে শিশুটিকে স্থানান্তরিত করা হয়। আর তারপরই গত শনিবার মৃত্যু হয় শিশুটির। পরিবারের তরফে আরও দাবি করা হয়েছে এর মধ্যে একাধিকবার শিক্ষক অভিযুক্ত চাইল সিং শিশুটির পরিবারকে টাকা নিয়ে বিষয়টি মিটমাটের অনুরোধ করেন। এমনকী পুলিশের কাছে না যাওয়ারও অনুরোধ করেন। এর পাশাপাশি দলিত শিশুর চিকিৎসার সমস্ত খরচ দেওয়ার কথাও বলেন। মৃত শিশুটির পরিবারের আরও দাবি ‘ঘটনার পর, তাদের গ্রামের রাজপুতরা  একটি সমঝোতায় পৌঁছাতে এবং পুলিশের কাছে না যেতে বলেছিল আমাদের’।

আরও পড়ুন: [ Independence Day 2022: ‘এখনও কেউ কেউ দুর্নীতিবাজদের মহিমান্বিত করছেন’, কাকে নিশানা করলেন মোদী?]

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ইতিমধ্যেই পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে শিক্ষককে আটক করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। জালোরের এসপি হর্ষ বর্ধন আগরওয়াল বলেছেন, “মৃত শিশুর ময়নাতদন্ত ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে। প্রাথমিকভাবে, এটা প্রমাণিত হয়নি যে জলের পাত্র স্পর্শ করার জন্য ছেলেটিকে মারধর করা হয়েছিল। আমাদের স্কুল পরিদর্শনের সময়, আমরা একটি ট্যাঙ্ক পেয়েছি যেখান থেকে শিক্ষক এবং ছাত্র উভয়েই জল পান করতেন। তবে, আরও তদন্ত করা হচ্ছে,। মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতে ভিসেরা রিপোর্টের জন্য আমাদের আরও অপেক্ষার প্রয়োজন”।

এদিকে পরিবারের তরফে মৃত শিশুর পরিবারের তরফে ধর্নায় বসে। আত্মীয়রা দাবি করেন পরিবারকে ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সেই সঙ্গে পরিবারের একজনকে চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে এবং অবিলম্বে স্কুলের লাইসেন্স বাতিলেরও দাবি তোলা হয়েছে। দলিত শিশু মৃত্যুর ঘটনায় প্রবল অস্বস্তিতে রাজস্থান সরকার। ন্যাশনাল কমিশন ফর প্রোটেকশন অফ চাইল্ড রাইটস-এর চেয়ারপারসন প্রিয়াঙ্ক কানুনগো রবিবার বলেছেন যে শিশুটির মৃত্যুর বিষয়ে রাজস্থান সরকারকে ইতিমধ্যেই একটি নোটিশ জারি করা হয়েছে। মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সামনে আনা এবং দোষী ব্যক্তির শাস্তি নিশ্চিত করা একান্ত ভাবেই দরকার।

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট শনিবার একটি টুইট বার্তায় দলিত শিশুমৃত্যুর ঘটনায় শোক প্রকাশ করে লিখেছেন,  “জালোরের সাইলা থানা এলাকায় একটি বেসরকারি স্কুলে শিক্ষকের মারে শিশুর মৃত্যুর ঘটনা দুঃখজনক। অভিযুক্ত শিক্ষককে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে।  দলিত পরিবার যাতে দ্রুত বিচার পায় তা নিশ্চিত করা হবে। মৃত শিশুর পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণেরও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে”।

যদিও শিশু মৃত্যুর ঘটনাকে সামনে এনে গেহলট সরকারকে তুলোধোনা করেছেন বিরোধী শিবির।  রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে শিশু মৃত্যুর ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়েছে। । শনিবার রাজ্য বিজেপি সভাপতি সতীশ পুনিয়া এক  টুইট বার্তায় লিখেছেন,  “এর জন্য দায়ী কে? আপনার শাসনে  একজন ৯ বছরে পড়ুয়াও নিরাপদ নয়। এই সময় মৃত শিশুর পরিবারের পাশে দাঁড়ান এবং দোষী শিক্ষকের শাস্তি নিশ্চিত করা সরকারের এক ও  একমাত্র দায়িত্ব”।

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Rajasthan dalit boys death teacher tried to buy familys silence

Next Story
Independence Day 2022: ‘লুঠের টাকা অনেকে রাখার জায়গা পাচ্ছেন না’, দুর্নীতি ইস্যুতে তোপ মোদীর