বড় খবর

‘মাই লর্ড’, ‘ইওর লর্ডশিপ’ আর নয়, বলল রাজস্থান হাইকোর্ট

আইনজীবী শিবসাগর তিওয়ারির করা একটি জনস্বার্থ মামলার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ওই আবেদনে বলা হয়েছিল, এগুলি দাসত্বের চিহ্ন এবং দেশের পক্ষে সম্মানহানিকর।

Bombay High Court's angry remark on CBFC
প্রতীকী ছবি।

বিচারপতিদের “মাই লর্ড” বা “ইওর লর্ডশিপ” বলে অভিহিত করা থেকে নিবৃত্ত থাকুন। এই মর্মে আইনজীবীদের উদ্দেশে নোটিস জারি করল রাজস্থান হাই কোর্ট।

পূর্ণ আদালতের বৈঠকে রবিবার সর্বসম্মতিক্রমে ভারতের সংবিধান মোতাবেক সমতার নির্দেশ মেনে চলতেই এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

আইনজীবী শিবসাগর তিওয়ারির করা একটি জনস্বার্থ মামলার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। ওই আবেদনে বলা হয়েছিল, এগুলি দাসত্বের চিহ্ন এবং দেশের পক্ষে সম্মানহানিকর। তবে বিচারপতিরা এ নিয়ে কোনও নির্দেশ দিতে রাজি হননি। “আমরা কি এরকম বলতে পারি যে মাই লর্ড বা ইওর লর্ডশিপ বলে সম্বোধন করলে আপনাদের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ আনা হবে? আমরা কি আমাদের অন্য বিচারপতিদের বলতে পারি যে ইওর লর্ডশিপ সম্বোধন অনুমোদন করবেন না কারণ এ সম্বোধন অশ্লীল?! না, আমরা তেমন নির্দেশ জারি করতে পারি না।”

২০১৪ সালে এইচ এল দাত্তু এবং এস এ বোবডেকে নিয়ে গঠিত সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ বলেছিল যে আদালতকে কীভাবে সম্বোধন করা হবে সে স্বাধীনতা আইনজীবীদের রয়েছে। বেঞ্চের বক্তব্য ছিল, “সমস্ত বিচারপতিদের সসম্মানে সম্বোধন করতে হবে। তাঁদের মাই লর্ড বা লর্ডশিপ বলার প্রয়োজন সর্বদা নেই, আমাদের স্যার বলে সম্বোধন করলেই যথেষ্ট।”

Read the Story in English

Web Title: Rajasthan high court my lord your lordship

Next Story
পিটিটিআই ছাত্রছাত্রীদের অনশন সরল ওয়াই চ্য়ানেল থেকে লালবাজারptti agitation kolkata
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com