বড় খবর

আক্রান্তের সংখ্যা কমাতে করোনা পরীক্ষায় রাশ টেনেছে অনেক জেলা, দাবি বেসরকারি ল্যাবের

ম্যানেজিং ডিরেক্টরের দাবি, কিছু জেলার সরকারি কর্তৃপক্ষ “আরও ভাল স্কোরকার্ড” দেখানোর জন্য করোনভাইরাস পরীক্ষার প্রক্রিয়াটিকে “নিয়ন্ত্রণ” করার চেষ্টা করছেন।

গত কয়েক সপ্তাহে দেশে নিম্মমুখী ছিল করোনা গ্রাফ। তবে বুধবার থেকে ফের ভারতে সুস্থতার হার কমে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে দেশের মধ্যে অন্যতম এবং শীর্ষ প্যাথোলজিকাল ল্যাবের ম্যানেজিং ডিরেক্টরের দাবি, কিছু জেলার সরকারি কর্তৃপক্ষ “আরও ভাল স্কোরকার্ড” দেখানোর জন্য নভেল করোনভাইরাস পরীক্ষার প্রক্রিয়াটিকে “নিয়ন্ত্রণ” করার চেষ্টা করছেন।

থাইরোকেয়ার টেকনোলজিসের প্রতিষ্ঠাতা ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর এ ভেলুমনি দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, “যদিও পরীক্ষা আগের থেকে বেশি হচ্ছে, তবুও সরকার জেলা পর্যায়ে বেসরকারি কেন্দ্রের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ করছে। এটি আগের তুলনায় আজ অনেক বেশি ঘটছে। আমাদের বলা হয়েছে বিভিন্ন রাজ্য থেকে নমুনা সংগ্রহ না করতে। কারণ আমরা না কি ভুয়ো করোনা পজিটিভের সংখ্যা দিচ্ছি।”

প্রসঙ্গত, থাইরোকেয়ার দেশের শীর্ষ পাঁচটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মধ্যে রয়েছে। মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, জম্মু ও কাশ্মীর, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি এবং বেশ কয়েকটি উচ্চ কোভিড -১৯ কেসলোডেড রাজ্যে থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছে। ভেলুমনি আরও বলেন, “প্রতিদিন কমপক্ষে ১০০টি জেলা থেকে ২ হাজার নমুনা কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এটা কার্যত স্পষ্ট যে সরকার পজিটিভ স্কোরকার্ড দেখাতে চান না। কম পরীক্ষা করে আরও ভাল তালিকা প্রকাশ করতে চায়।”

আরও পড়ুন, কেন বিতর্ক বাড়ছে প্লাজমা থেরাপি নিয়ে?

ডিরেক্টরের কথায়, থাইরোকেয়ার এই ৩০ শতাংশ জেলাগুলি থেকে এই সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে। যদিও কোন কোন জেলা থেকে এমন সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন সেই সব নাম জানাতে চাননি ভেলুমনি। অন্যদিকে, আরেকটি ডায়াগনস্টিক চেইন মেট্রোপলিস হেলথ কেয়ারের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আমিরা শাহ বলেন, এই পর্যায়ে ভারতে কোভিডের গুরুত্ব অনেকটা। যত পরীক্ষা করা হবে তত পজিটিভ ধরা পড়বে এবং সেই মত চিকিৎসাও সম্ভব হবে। তিনি এও বলেন, ভারতে কোভিড স্পাইক রুখতে এর চেয়ে ভাল বিকল্প নেই।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: Some districts trying to control the testing for covid 19 thyrocare md

Next Story
করোনায় আক্রান্ত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিস্মৃতি ইরানি
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com