scorecardresearch

বড় খবর

ওমিক্রন নিজে থেকে শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে অক্ষম, গবেষণায় নতুন তথ্য

সম্প্রতি গবেষণায় উঠে এসেছে সম্পূর্ণ এক ভিন্ন তথ্য। ওমিক্রন অ্যান্টিবডি টিকাহীনদের ক্ষেত্রে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্ট থেকে সুরক্ষা দিতে পারেনা।

ওমিক্রন নিজে থেকে শরীরে ইমিউনিটি বাড়াতে সক্ষম নয়, গবেষণায় উঠে এল নতুন তথ্য

বছর দুয়েক ধরে করোনা ভাইরাসের সঙ্গেও নিত্যনতুন সব ভাইরাসের সংক্রমণ। আজ ডেল্টা তো কাল আলফা এবং বর্তমানের আতঙ্ক হল ওমিক্রন। এর আগেও ডেল্টার প্রকোপ প্রাণ হারিয়েছেন প্রচুর মানুষ এবং এর সংক্রমণের ঝুঁকিও ছিল মারাত্মক, সবথেকে বড় কথা শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা সৃষ্টি করতে এর জুড়ি মেলা ভার। কিন্তু ওমিক্রন তেমন একেবারেই নয়। এর ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকলেও এটি শরীরের ক্ষতি খুব একটা করে না। তবে গবেষণা বলছে ওমিক্রন অ্যান্টিবডি থেকেই করোনা ভাইরাসের অন্যান্য মারণ ভ্যারিয়েন্ট থেকে মিলবে রেহাই?

দক্ষিণ আফ্রিকার একটি স্বাস্থ্য রিপোর্ট অনুযায়ী, এটি সম্ভব। অন্তত সেই দেশের বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসকরা তাই বলছেন। তারা জানিয়েছেন, বেশিরভাগ রোগী যারা ওমিক্রন দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রায় দুই সপ্তাহের মধ্যে তাদের শরীরে এর বেশি ইমিউন যুক্ত অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে যেগুলি মিউটান্ট হিসেবে প্রতিক্রিয়া করতে পারে। তবে ঝুঁকি বেড়েছে পুনরায় সংক্রমণের।

তবে সম্প্রতি গবেষণায় উঠে এসেছে সম্পূর্ণ এক ভিন্ন তথ্য। ওমিক্রন অ্যান্টিবডি টিকাহীনদের ক্ষেত্রে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্ট থেকে সুরক্ষা দিতে পারেনা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রি-প্রিন্ট স্টাডি দেখায় যে টিকা দেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে, ওমিক্রন সংক্রমণ ইমিউনিটি বাড়াতে সক্ষম, যার ফলে ব্যক্তি অন্য সংক্রমণের বিরুদ্ধে আরও ভালভাবে লড়াই করতে পারে। নোবেল জয়ী গবেষক জেনিফার ডুডনা, ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক, সান ফ্রান্সিসকোর একটি দল দ্বারা গবেষণাটি পরিচালিত হয়েছে। ইঁদুরের ওপর এই পরীক্ষায় গবেষকরা দেখেছেন, যে ইঁদুরগুলি করোনা ভাইরাসের ডেল্টা প্রজাতি দ্বারা সংক্রমিত হয়েছে সেগুলির দেখে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে লড়াই করার পর্যাপ্ত ইমিউনিটি তৈরি হয়েছে। অন্যদিকে ওমিক্রন কেবল ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেই ভবিষ্যতে লড়াই করার জন্য ইমিউনিটি তৈরি করতে সক্ষম। অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের থেকে সুরক্ষা দিতে সেভাবে কার্যকর নয়। অন্যদিকে মুল ভাইরাস দ্বারা সংক্রমিত হওয়ার পর ইঁদুরের দেখে অন্যান্য প্রজাতি যেমন আলফা, ডেল্টা সেহ ওমিক্রনের বিরুদ্ধেও কার্যকরী সুরক্ষা প্রদান করতে সক্ষম।

সাম্প্রতিক ওই গবেষণা বলছে, যাঁরা ভ্যাকসিন নিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ওমিক্রন ও ডেল্টা দুটি ভ্যারিয়েন্ট দমনের ক্ষমতাই সমান। ফলে ডেল্টার হামা নতুন করে রোখার জন্য ওমিক্রনের সংক্রমণ একমাত্র রাস্তা একেবারেই নয়। বলছে গবেষণা। ওমিক্রন ও ডেল্টা দুটি ভ্যারিয়েন্টই কাবু হতে পারে ভ্যাকসিনেটেড হলে। করোনার ভ্যাকসিন নেওয়া থাকলে, ওমিক্রন আক্রান্তরা করোনার অপর ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টার বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে পারেন। তবে ভ্যাকসিন না নেওয়া থাকলে তা সম্ভবপর নয়।

বর্তমানে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য যে টিকা গুলি বাজারে চালু রয়েছে তাদের প্রত্যেকটি শরীরে রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবডি তৈরিতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে মৃত্যু হার ঠেকাতে বিশেষ ভাবে কার্যকারী। ভারত সহ বিভিন্ন দেশে ইতিমধ্যেই ফ্রন্ট লাইন ওয়ার্কার এবং ষাটোর্ধ ব্যক্তিদের বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়েছে, রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে।

গবেষণার পর ওমিক্রন এবং ডেল্টা ভ্যরিয়েন্টে আক্রান্ত ব্যক্তিদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে দেখা গেছে (যাদের ভ্যাকসিনের উভয় ডোজ সম্পূর্ণ হয়েছে) যে সকল ব্যক্তি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছিলেন তাদের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা গেছে অন্যান্য প্রজাতির তুলনায় ওমিক্রনের বিরুদ্ধে সেভাবে ইমিউনিটি তাদের দেখে সৃষ্টি হয়নি। অন্যদিকে ওমিক্রন ইনফেকশনের নিশ্চিত হওয়া সব ধরনের ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ভালো সুরক্ষা প্রদান করে। এই ফলাফলগুলি পরামর্শ দেয় যে ওমিক্রন সংক্রমণ কার্যকর ভাবে অন্যান্য রূপের বিরুদ্ধে টিকা দেওয়ার মাধ্যমে শরীরে থাকা ইমিউনিটি বাড়াতে পারে, গবেষকরা বলেছেন যে যেহেতু ওমিক্রন সংক্রমণ নিজেই সমস্ত রূপের বিরুদ্ধে বিস্তৃত সুরক্ষা দিতে পারে না তবে বিদ্যমান ইমিউনিটি বাড়াতে পারে এবং ডেল্টা বিস্তৃত ইমিউনিটি তৈরি করতে পারে, তাই ওমিক্রন এবং ডেল্টা উভয় ব্যবহার করে মাল্টিভ্যালেন্ট ভ্যাকসিন ভবিষ্যতে তৈরি করা যেতে পারে। গবেষকরা উল্লেখ করেছেন “ওমিক্রন একটি হাইব্রিড ইমিউনিটি” তৈরি করে যা কেবল নিজের নয়, অন্যান্য রূপের বিরুদ্ধেও কার্যকর,”

ইনস্টিটিউট অফ জিনোমিক্স অ্যান্ড ইন্টিগ্রেটিভ বায়োলজির ডিরেক্টর ডঃ অনুরাগ আগরওয়াল বলেন, টিকাবিহীন লোকেদের মধ্যে অন্যান্য সংক্রমণের হাত থেকে ওমিক্রন সুরক্ষা প্রদান করেনা। তিনি বলেছে ওমিক্রনকে হালকাভাবে নেওয়ার কোন প্রশ্নই নেই। টিকা হীন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে ওমিক্রনের প্রভাব জটিল হতে পারে এবং তা মৃত্যুও ডেকে আনতে পারে। ডাঃ সমীরণ পান্ডা, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের এপিডেমিওলজি এবং কমিউনিকেবল ডিজিজেস বিভাগের প্রধান এপ্রসঙ্গে বলেছেন, “অনুসন্ধানগুলি আকর্ষণীয়, তবে বিস্তৃত জনসংখ্যার ওপর এই ধরনের মডেল আমরা প্রয়োগ করতে পারিনা। আমাদের অপেক্ষা করতে হবে এবং দেখতে হবে কি হবে। অবশ্যই, যখন অ্যান্টিজেনিক এক্সপোজার থাকে, তখন ইমিউনোলজিকাল পরিবর্তন হবে।”

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Study says by itself omicron does not boost immunity level