“চমৎকার! মন্ত্রী পলাতক!”: সু‌প্রিম কোর্ট

শীর্ষ আদালত বিহারের শেলটার হোমগুলির ‘মিসম্যানেজমেন্ট’ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে এবং ওই দিনই রাজ্যের মুখ্যসচিবকে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। 

By: New Delhi  November 12, 2018, 3:51:04 PM

মুজফফরপুর শেলটার হোমে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় প্রাক্তন মন্ত্রী মঞ্জু ভার্মাকে গ্রেফতার করতে ব্যর্থ বিহার প্রশাসনকে তুলোধোনা করল সুপ্রিম কোর্ট। এ ঘটনায় আগামী ২৭ নভেম্বর রাজ্য পুলিশের ডিজিকে সশরীরে শীর্ষ আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন পাঠানো হয়েছে।

বিচারপতি মদন বি লোকুর বলেছেন, ‘‘চমৎকার! মন্ত্রী পলাতক, চমৎকার! কী করে সম্ভব যে একজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এবং কেউ জানে না তিনি কোথায়। একজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী বেহদিশ, এ ব্যাপারটার গুরুত্ব কতটা সেটা কী আপনারা বোঝেন? বড্ড বাড়াবাড়ি হচ্ছে।

আরও পড়ুন, লিঙ্গ নিরপেক্ষ ধর্ষণ আইনের আবেদন খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

শীর্ষ আদালত বিহারের শেলটার হোমগুলির ‘মিসম্যানেজমেন্ট’ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে এবং ওই দিনই রাজ্যের মুখ্যসচিবকে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

গত মাসে আদালত মঞ্জু ভার্মাকে গ্রেফতার না করার জন্য পুলিশকে তিরস্কার করেছিল এবং জানতে চেয়েছিল ক্যাবিনেট মন্ত্রী হওয়ার সুবাদে তিনি আইনের ঊর্ধ্বে কি না। রাজ্যের তরফে আইনজীবী রনজিৎ কুমার এ ব্যাপারে সময় চাইলে বিচারপতি তাঁকে বলেন, ‘‘মিস্টার রণজিৎ কুমার, রাজ্যে সব কিছু ঠিকঠাক চলছে না।’’

রাজ্য পুলিশের তরফ থেকে এর আগে সুপ্রিম কোর্টকে জানানো হয়েছিল মঞ্জু ভার্মা বেহদিশ। এদিকে পাটনা পুলিশের সিনিয়র সুপারিনটেন্ডেন্ট মনু মহারাজ বলেছেন, প্রাক্তন মন্ত্রীকে খোঁজার জন্যে কোনও সার্চই করেনি পাটনা পুলিশ। পাটনা পুলিশের এক শীর্ষ অফিসার জানিয়েছেন মঞ্জু ভার্মার  মেয়ে এবং জামাইয়ের সঙ্গেও যোগাযোগ করেনি পাটনা পুলিশ।

যৌন নির্যাতনের ঘটনায় মঞ্জু ভার্মা এবং তাঁর স্বামী চন্দ্রশেখরের বাড়ি তল্লাশির সময়ে তাঁদের বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণে অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার হয়। সে ঘটনার পরে আদালত বিহার পুলিশকে এ নিয়ে তদন্ত করচে বলেছিল। মূল অভিযুক্ত ব্রজেশ ঠাকুরের কল রেকর্ড পরীক্ষা করার পর চন্দ্রশেখরের নাম সামনে আসে।

যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ব্রজেশ ঠাকুরের সঙ্গে তাঁর স্বামী চন্দ্রশেখর ভার্মার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের কথা প্রকাশ্যে আসার পর সমাজ কল্যাণ মন্ত্রকের পদ ছেড়ে দেন মঞ্জু ভার্মা। গত ২৫ অগাস্ট মঞ্জু ভার্মার আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় বেগুসরাই আদালত। গত ৯ অক্টোবর ফের তাঁর আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয় পাটনা হাইকোর্ট। এরপর থেকেই তিনি পলাতক।

২০১৫ সালে দ্বিতীয় বারের জন্য চেরিয়া বারিয়াপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে জেডিইউ-এর হয়ে ভোটে জেতেন মঞ্জু।

Read the Full Story in English

Get all the Latest Bengali News and West Bengal News at Indian Express Bangla. You can also catch all the General News in Bangla by following us on Twitter and Facebook

Web Title:

Supreme court slams bihar government shelter home sexual abuse manju verma absconding

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com.
Advertisement

ট্রেন্ডিং
করোনা আপডেট
X