scorecardresearch

বড় খবর

পেলোসির সফরে ক্ষুব্ধ চিনের তাইওয়ান ঘিরে সামরিক মহড়া, ধমকাল বেজিংয়ের মার্কিন রাষ্ট্রদূতকেও

মার্কিন বিদেশমন্ত্রী গত মাসেই ইন্দোনেশিয়ার বালিতে চিনের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে পেলোসির তাইওয়ান সফর নিয়ে বৈঠক করেছেন।

পেলোসির সফরে ক্ষুব্ধ চিনের তাইওয়ান ঘিরে সামরিক মহড়া, ধমকাল বেজিংয়ের মার্কিন রাষ্ট্রদূতকেও
মার্কিন স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফরের পরই ফুঁসছে বেজিং।

চিন সীমান্ত অবরোধের পর বিকল্প পথের সন্ধানে জাপান, ফিলিপিন্সের সঙ্গে কথা চালাচ্ছে তাইওয়ান। কয়েক সপ্তাহ অনিশ্চয়তার পর, ন্যান্সি পেলোসি মঙ্গলবারই বিমান বাহিনীর এক বিশেষ বিমানে তাইওয়ান পৌঁছেছেন। তাঁর সফরের বিরুদ্ধে চিনের হুঁশিয়ারির মধ্যেও পেলোসি এই তাইওয়ান সফর করলেন।

গত ২৫ বছরে এই প্রথম মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষস্তরের কেউ তাইওয়ান সফরে এলেন। চিন ইতিমধ্যে সামরিক মহড়ার নামে তাইওয়ান ঘেরার চেষ্টা চালাচ্ছে। যার বিরুদ্ধে বাকি বিশ্ব সরব হতেই চিন অভিযোগ অস্বীকার করেছে। জানিয়েছে, তারা তাইওয়ানে যাতায়াতের পথ খোলা রেখেছে। এই সামরিক মহড়ায় তাইওয়ানের বাণিজ্যের কোনও ক্ষতি হবে না।

তবে, চিন মুখে যাই বলুক, তাদের সামরিক বাহিনীর বাস্তবিক অবস্থান অন্য কথা বলছে। তবে, সেসব উপেক্ষা করেই তাইওয়ানের জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে ন্যান্সি পেলোসি বৈঠক করেছেন। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র স্থিতাবস্থা বজায় রাখার পক্ষে। চিনের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে। জোর করে তাইওয়ানের সঙ্গে কিছু ঘটুক, সেটা আমেরিকা চায় না।

পেলোসি বলেন, ‘আমরা চাই তাইওয়ানের নিরাপত্তা বজায় থাকুক। তাইওয়ানের স্বাধীনতা থাকুক। সেই অবস্থান থেকে আমরা সরে আসছি না। তাইওয়ানের সঙ্গে আমেরিকার বন্ধুত্ব আগের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সেই বার্তা নিয়েই আজ আমি এখানে এসেছি।’ তাইওয়ানের প্রেসিডন্ট সান ইং-ওয়েনের সঙ্গেও পেলোসি বৈঠক করেছেন।

আরও পড়ুন- চিনের হুমকি কার্যত উড়িয়ে দিয়েই তাইওয়ানের পাশে থাকার বার্তা পেলোসির!

চিন অবশ্য ইতিমধ্যেই পেলোসির সফরের তীব্র বিরোধিতা করেছে। কঠোর প্রতিবাদ জানাতে বেজিংয়ের মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে চিনের বিদেশ দফতর। তাঁকে সতর্ক করে জানিয়েছে, এই জন্য মূল্য চোকাতে হবে ওয়াশিংটনকে। তাইওয়ানকে ব্যবহার করে চিনকে সার্বভৌমত্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আঘাত করার চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছে বেজিং।

চিনের বিদেশ মন্ত্রক বেজিংয়ের মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে পরিষ্কার জানিয়েছে, পেলোসির তাইওয়ান সফর আমেরিকা এবং চিনের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়ে তুলেছে। কারণ, তাইওয়ানকে চিন তাদের ভূখণ্ড বলে মনে করে। এই পরিস্থিতিতে চিনের পাশে দাঁড়িয়েছে রাশিয়া।

তার মধ্যেই নিজেদের অবস্থানে অনড় থেকে আমেরিকা জানিয়েছে, মার্কিন বিদেশমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে চিন এবং রাশিয়ার বিদেশমন্ত্রীর কম্বোডিয়ায় আশিয়ান বৈঠকের সময়ে আলাদা কোনও বৈঠকের সম্ভাবনা নেই। কারণ, মার্কিন বিদেশমন্ত্রী গত মাসেই ইন্দোনেশিয়ার বালিতে চিনের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে পেলোসির তাইওয়ান সফর নিয়ে বৈঠক করেছেন।

Read full story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Taiwan negotiates with japan and philippines to find alternate aviation routes update