বড় খবর

আফগানিস্তানে বসে ভারতে হামলার ছক? তালিবানের ভূমিকা কি? খোলসা করল বিদেশমন্ত্রক

আফগান মুলুক তালিবানি কব্জায় যাওয়ার পর থেকেই সে দেশে মাথাচাড়া দিচ্ছে পাক মদতপুষ্ট একাধিক জঙ্গি সংগঠন। উদ্বিগ্ন ভারত।

Taliban meet focused on ensuring no anti-India terror, says MEA
বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি

আফগানিস্তানে তালিবানি-রাজ ফিরতেই আশঙ্কার কালো মেঘ ভারতেও। আফগান মুলুকে ইতিমধ্যেই মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে ভারত-বিরোধী পাক মদতপুষ্ট একাধিক জঙ্গি সংগঠন। তবে আফগানিস্তানের মাটিকে ভারত-বিরোধী কার্যকলাপের জন্য কোনওভাবেই ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে তালিবান। এব্যাপারে দোহায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে আশ্বস্ত করেছেন সেখানকার তালিবান কার্যালয়ের প্রধান। বৃহস্পতিবার এমনই জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি।

সম্প্রতি কাতারের রাজধানী দোহায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূত দীপক মিত্তল ও সেখানকার তালিবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের প্রধান শের মহম্মদ আব্বাস স্তানেকজাইয়ের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে ভারত। সেদেশে ভারত-বিরোধী জঙ্গি সংগঠনগুলির কার্যকলাপ নিয়ে আলোচনা হয়। এরই পাশাপাশি এখনও আফগানিস্তানে আটকে থাকা ভারতীয়দের ফেরাতে যাতে তালিবানের তরফে সহযোগিতা করা হয় সেব্যাপারেও কথা বলেছেন ভারতীয় রাষ্ট্রদূত।

দোহায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূত এবং তালিবান কার্যালয়ের প্রধানের মধ্যে হওয়া আলোচনা ফলপ্রসূ বলেই মনে করছেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি। জানা গিয়েছে, গত মঙ্গলবার আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনাবাহিনী চলে যাওয়ার ঘণ্টাখানেক পরেই দোহায় ওই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। আফগানিস্তান থেকে ভারত-বিরোধী কার্যকলাপ মেনে নেওয়া হবে না বলে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে আশ্বস্ত করেছেন দোহায় তালিবান কার্যালয়ের প্রধান শের মহম্মদ আব্বাস স্তানেকজাই। তবে এপ্রসঙ্গে বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেন, “ওটা ছিল শুধুই একটি বৈঠক। আলোচনা একেবারেই প্রাথমিকস্তরে রয়েছে।”

আরও পড়ুন- ১৪ দিন পেরিয়ে এখনও লড়ছে নর্দার্ন অ্যালায়েন্স! পাঞ্জশিরে সশস্ত্র বাধার মুখে তালিবান

তালিবান নেতৃত্বের সঙ্গে এই ধরনের আলোচনা আগামী দিনেও চালিয়ে নিয়ে যাবে ভারত? সে প্রসঙ্গে অরিন্দম বাগচি বলেন, “ভবিষ্যতে কি হবে সেব্যাপারে কোনও অনুমান করা যায় না। এব্যাপারে জানানোর মতো এখনই কোনও তথ্য নেই।” আফগানিস্তান থেকে বহু ভারতীয়কে ফেরানো গেলেও এখনও সেদেশের বিভিন্ন জায়গায় রয়ে গিয়েছেন আরও বেশ কিছু ভারতীয়। তাঁদের ফেরানোর ব্যাপারে কী ভাবছে দিল্লি? এই প্রশ্নের উত্তরে বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দরে স্বাভাবিক কাজকর্ম শুরু হয়ে গেলেই বাকি ভারতীয়দের ফেরানোর ব্যাপারেও যথোপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে।

Read full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Taliban meet focused on ensuring no anti india terror says mea

Next Story
মিজোরামের স্কুলে পড়তে পারবে মায়ানমারের শরণার্থী শিশুরা, ঘোষণা সরকারের
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com