scorecardresearch

বড় খবর

গো-হত্যার অভিযোগে মধ্যপ্রদেশে দুই আদিবাসী যুবককে পিটিয়ে খুন, কাঠগড়ায় বজরং দল

এলাকায় ছুটে আসেন স্থানীয় কংগ্রেস বিধায়ক অর্জুন সিং কাকোরিয়া। তিনি অবিলম্বে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারির দাবিতে লোকজন নিয়ে জব্বলপুর-নাগপুর হাইওয়ে অবরোধ করেন। অবরোধে শামিল হন স্থানীয় বাসিন্দারাও।

গো-হত্যার অভিযোগে মধ্যপ্রদেশে দুই আদিবাসী যুবককে পিটিয়ে খুন, কাঠগড়ায় বজরং দল

উত্তরপ্রদেশের দাদরি ছায়া মধ্যপ্রদেশের সিওনিতে। দাদরিতে বাড়িতে গোমাংস মজুত রাখার সন্দেহে মহম্মদ আখলাখ নামে বছর ৫২-এর এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে খুন করেছিল স্থানীয় লোকজন। সেটা ছিল ২০১৫ সাল। এবার মধ্যপ্রদেশের সিওনিতে গো-হত্যার অভিযোগে দুই আদিবাসী সম্প্রদায়ের গ্রামবাসীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠল জনা ২০ স্থানীয় বাসিন্দার বিরুদ্ধে। ঘটনায় আরও এক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছে সিওনি জেলা পুলিশ। হামলাকারীরা বজরং দলের সদস্য বলে পুলিশকে জানিয়েছেন অভিযোগকারী। তিনি জানিয়েছেন, রাত আড়াইটে থেকে তিনটের মধ্যে কুড়াই থানার সিমারিয়া গ্রামে হামলা চালায় বজরং দলের লোকজন। পুলিশ এই ঘটনায় ২০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। তার মধ্যে ছয় জনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

খবর ছড়িয়ে পড়তেই আশপাশের বাসিন্দাদের অনেকে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। এলাকায় ছুটে আসেন স্থানীয় কংগ্রেস বিধায়ক অর্জুন সিং কাকোরিয়া। তিনি অবিলম্বে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারির দাবিতে লোকজন নিয়ে জব্বলপুর-নাগপুর হাইওয়ে অবরোধ করেন। অবরোধে শামিল হন স্থানীয় বাসিন্দারাও। সিওনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসকে মারাভি বলেন, ‘দুই আদিবাসী ব্যক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। অভিযোগ, ১৫ থেকে ২০ জন আক্রান্তদের বাড়ি গিয়েছিল। তাদের বিরুদ্ধে গো-হত্যার অভিযোগ এনে মারধর করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই দু’জনের মৃত্যু হয়। আরেকজনের অল্পবিস্তর আঘাত লেগেছে। কুয়ারাই থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে। কয়েকজনের নামে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। বাকিদের এখনও চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। আমরা তিন জনকে হেফাজতে নিয়েছি। নিহতদের বাড়ি থেকে ১২ কিলোগ্রাম মাংস উদ্ধার হয়েছে।’

আরও পড়ুন- লালুপ্রসাদের পথেই গো-রাজনীতি-ভোজপার্টি, বিহার বিজেপির মুখ হতে কৌশল নিত্যানন্দর

আহত ব্রজেশ বাত্তি পুলিশকে জানিয়েছেন, হামলাকারীরা সাগর এলাকার বাসিন্দা সম্পত বাত্তি আর সিমরিয়ার বাসিন্দা ধানসাকে লাঠি দিয়ে মারধর করছিল। খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছলে তাঁকেও মারধর করে। স্থানীয় বিধায়ক অর্জুন সিং কাকোরিয়া অবিলম্বে নিহতদের ছেলেকে সরকারি চাকরি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। একইসঙ্গে, নিহতদের এক কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিও জানিয়েছেন। মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা কমল নাথ টুইটে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। একইসঙ্গে, এই ঘটনায় উচ্চপর্যায়ের তদন্তও দাবি করেছেন। পাশাপাশি, আহত ব্যক্তিকে বিনামূল্যে চিকিত্সার দাবি করেছেন কমল নাথ।

Read story in English

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Two tribal men beaten to death on suspicion of cow slaughter