বড় খবর

‘আমেরিকা-পাকিস্তান-চিন নজর রাখছে, তাই অনলাইনে প্রতিরক্ষা রিপোর্ট নয়’

‘প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট অনলাইনে প্রকাশ না করার সিদ্ধান্তের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও যোগ নেই, সম্পূর্ণ সিদ্ধান্তই আমার।’

রাজীভ মহর্ষি

শুক্রবারই দেশের কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল হিসাবে মেয়াদ পূর্ণ করেছেন রাজীভ মহর্ষি। তারপরই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করে জানালেন তাঁর নির্দেশই প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট অনলাইনে প্রকাশ করা হয়নি। গোটা সিদ্ধান্তটাই জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে বলে যুক্তি দিয়েছেন দেশের প্রাক্তন কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল। তাঁর দাবি, ‘কেউ ওয়াশিংটন থেকে, কেউ বেজিং থেকে, কেউ-বা আবার ইসলামাবাদ থেকে অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিরক্ষা অডিটের উপর তীক্ষ্ণ নজর রাখবেন। তাই এইসব রিপোর্ট যাতে সহজলভ্য না হয় তার জন্যই এই পদক্ষেপ।’ একই সঙ্গে রাজীভ মহর্ষি স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে, ‘প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট অনলাইনে প্রকাশ না করার সিদ্ধান্তের সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও যোগ নেই, সম্পূর্ণ সিদ্ধান্তই আমার।’

বিরোধী রাজনৈতিক দল সহ অনেকের দাবি ছিল যে, প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট অনলাইনে প্রকাশ না করে তা গোপন করতে চাইছে সরকার। এ বিষয়ে দেশের কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল রাজীভ মহর্ষি বলেন, ‘অডিট রিপোর্ট আসলে গোপন করা হচ্ছে না। সংসদ ও পাবলিক অ্যাকাউন্ট কমিটিকে প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু, আমরা ওই রিপোর্ট সবার কাছে তুলে ধরতে রাজি নই। কারণ কেউ ওয়াশিংটন থেকে, কেউ বেজিং থেকে, কেউ-বা আবার ইসলামাবাদ থেকে অনলাইনে প্রকাশিত প্রতিরক্ষা অডিটের উপর তীক্ষ্ণ নজর রাখবেন। এটা হতে পারে না। তাই এই পদক্ষেপ।’

‘অডিট রিপোর্টে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রের নানান খামতি থাকবে। কিন্তু প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট ওয়েবসাইটে তুলে ধরা মোটেই বুদ্ধিমত্তার পরিচয় নয়।’ রাজীভ মহর্ষি প্রশ্ন, ‘কেন সবার কাছে দেশের প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট সহজলভ্য হবে?’

সানডে এক্সপ্রেসকে রাজীভ মহর্ষি বলেন, ‘আমি যখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে ছিলাম তখন পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের খুবই উত্তেজনাকর সম্পর্ক ছিল। তখন ক্যাগের একটি রিপোর্ট আসে, যেখানে উল্লেখ ছিল যে, বিস্ফোরক কতটা পরিমান কম রয়েছে। এই খামতি মেনে নেওয়া দরকার। কিন্তু, তা শত্রুদের জানানোর কোনও প্রয়োজন নেই।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রাক্তন সচিব রাজীভ মহর্ষি ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল হিসাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। তাঁর দায়িত্বগ্রহণের আগে ওয়েবসাইটে প্রতিরক্ষামন্ত্রকের অডিট রিপোর্ট শেষ প্রকাশ পেয়েছিল।

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে বাজেট অধিবেশনের শেষ দিনে ক্যাগের ক্যাপিটাল অ্যাকিউজিশন অফ ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্স, ইউনিয়ান গর্ভমেন্ট (ডিফেন্স সার্ভিস) পারফরমেন্স অডিট রিপোর্ট রাজ্যসভায় পেশ করা হয়। সেখানে শেষে উল্লেখ ছিল, ইউপিএ আমলে ফ্রান্স থেকে ৩৬ যুদ্ধ বিমান কেনার ক্ষেত্রে ক্যাগের আনুমানিক মূল্যের তুলনায় ২.৮৬ শতাংশ দাম কম ছিল। তবে ক্যাগ সম্পূর্ণ মূল্যের বিষয়টি প্রকাশ করেনি। ১৪টি বিষয়ের উপর ৬টি দিক নিয়ে রিপোর্টে তুলে ধরা হয়।

রাজীভ মহর্ষির আমলে সংসদে আটটি প্রতিরক্ষা অডিট রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে। যদিও সেগুলি ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়নি।

Read in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন 

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Us pak china watching so didn t upload defence reports rajiv mehrishi

Next Story
বিজয়ওয়াড়ার কোভিড হোটেলে বিধ্বংসী আগুন, অগ্নিদগ্ধ কমপক্ষে ১০
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com