scorecardresearch

বড় খবর

ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে জোড়হাতে আবেদন মালিয়ার, ‘পাওনা নিয়ে নিন’

শুনানিতে ভারতের দাবি, ব্যাঙ্ক ঋণের আবেদন জানানোর সময় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভুয়ো লাভের খতিয়ান পেশ করেছিল বিজয় মালিয়ার মালিকানাধীন কিংফিশার এয়ারলাইন্স।

সাময়িক স্বস্তিতে বিজয় মালিয়া।

ব্যাঙ্ক ঋণের আসল অঙ্ক ফেরত দিতে চান ঋণ খেলাপি মামলায় অভিযুক্ত ব্যবসায়ী বিজয় মালিয়া। হাতজোড় করে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছে ফের একবার সেই আবেদনই করলেন মালিয়া। বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ হাইকোর্টে বিজয় মালিয়ার প্রত্যর্পণ মামলার শুনানি ছিল। সেখানেই এই আবেদন জানান ৬৪ বছরের এই লিকার ব্যারন ও কিংফিশার এয়ারলাইন্সের প্রাক্তন কর্ণধার।

প্রতারণা ও ৯ হাজার কোটি টাকার আর্থিত তছরূপের অভিযোগ রয়েছে বিজয় মালিয়ার বিরুদ্ধে। বর্তমানে লন্ডনে রয়েছেন তিনি। এদিন মালিয়া বলেন, ‘আমি ঋণের আসল অঙ্কের অর্থ ফেরত দিতে চাই। কিন্তু, যুক্তিপূর্ণ সমাধানের বদলে ইডি ও সিবিআই আমার একই সম্পত্তি নিয়ে লড়াই করছে।’ তাঁর দাবি, ‘আর্থিক তছরূপ মামলায় আমাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে, এর কোনও যুক্তি নেই। ইডি জানাচ্ছে আমার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ফলে ব্যাঙ্ক ও ইডি একই অর্থ নিয়ে লড়াই করছে।’

আরও পড়ুন: বিজয় মালিয়াকে আটকানোর দরকার নেই, লিখিত ভাবে জানিয়েছিল সিবিআই

এদিকে শুনানিতে ভারতের দাবি, ব্যাঙ্ক ঋণের আবেদন জানানোর সময় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভুয়ো লাভের খতিয়ান পেশ করেছিল ব্যাঙ্ক প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত বিজয় মালিয়ার মালিকানাধীন কিংফিশার এয়ারলাইন্স। শুনানিতে ভারত সরকারের তরফে ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস অভিযোগ করেছে, মালিয়া ও তাঁর মালিকানাধীন উড়ান সংস্থার বিরুদ্ধে প্রতারণা ও জুয়াচুরির জোরদার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।

হাইকোর্টের শুনানিতে বিচাররপতি আরউইন ও বিচারপতি এলিজাবেথ লেইংকে সিপিএস-এর আইনজীবী মার্ক সামার্স জানান, সত্য প্রতিষ্ঠা করা নয়, প্রত্যর্পণ সংক্রান্ত মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনও মামলা রয়েছে কি না, ব্রিটিশ আদালতের শুধু সেই বিষয়েই প্রমাণ দাখিল করা প্রয়োজন। মামলাটি পরবর্তী দিন পর্যন্ত মুলতুবি রাখা হয়েছে।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Vijay mallya request banks with folded hands that take your money