বড় খবর

এবার সিরামের তৈরি কভোভ্যাক্সকে WHO-র ছাড়পত্র! ট্যুইটে সুখবর দিলেন পুনাওয়ালা

Covid Vaccine: এই সংস্থার তৈরি টিকা কোভিশিল্ড ইতিমধ্যে নিয়েছেন কয়েক কোটি ভারতবাসী।

Covovax, SII, Adar poonawala, WHO
চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি দেশজুড়ে শুরু হয়েছিল করোনার টিকাকরণ কর্মসূচি।

Covid Vaccine: সিরাম ইনস্টিটিউটের মুকুটে নয়া পালক। তাদের তৈরি করোনা টিকা কভোভ্যাক্সকে ছাড়পত্র দিল হু। ট্যুইট করে শুক্রবার এই সুখবর জানান সিরাম কর্তা আদর পুনাওয়ালা। ট্যুইটে তিনি লেখেন, ‘কোভিডের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আরও একটা মাইলস্টোন খাড়া হয়েছে। জরুরি প্রয়োগে হুয়ের ছাড়পত্র পেয়েছে সিরামের তৈরি কভোভ্যাক্স। কার্যকারিতা এবং সুরক্ষার দিকে বিশ্বাসযোগ্য এই টিকা।‘  

 জানা গিয়েছে কভোভ্যাক্স, মার্কিন টিকা নোভাভ্যাক্সের ভারতীয় সংস্করণ। যার উৎপাদক সংস্থা পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট। এই সংস্থার তৈরি টিকা কোভিশিল্ড ইতিমধ্যে নিয়েছেন কয়েক কোটি ভারতবাসী। বিজ্ঞানীদের দাবি, এই টিকা ভাইরাসের স্পাইক প্রোটিনকে নষ্ট করবে। এই স্পাইক প্রোটিনই কোনও ভাইরাস বা ব্যাক্টেরিয়াকে মানবদেহে প্রবেশে সাহায্য করে।    

এদিকে, দেশে বাড়ছে করোনার নয়া প্রজাতী ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যেই ভারতে ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ পার করেছে। বর্তমানে এ দেশে আক্রান্ত ১০১ জন। মোট ১১টি রাজ্যে ওমিক্রন আক্রান্তের হদিশ মিলেছে বলে শুক্রবার জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লভ আগারওয়াল। তাঁর কথায়, ‘ওমিক্রন বিশ্বের ৯১টি দেশে ছড়িয়েছে। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকেও ওমিক্রন দ্রুত গতিতে ছড়ায় বলে সতর্ক করেছে হু। দক্ষিণ আফ্রিকায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণের হার নিম্নমুখী ছিল, তা সত্ত্বেও ওমিক্রন সংক্রমিত হয়েছে হু হু করে। ওমিক্রনকে ঠেকাতে সংক্রমণ চেইন ভাঙা প্রয়োজন বলে জানাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।’

দেশজুড়ে ত্রাসের চেহারা নিচ্ছে ওমিক্রন। সংক্রমণ এই পর্যায়ে ঠেকানো জরুরি বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। আইসিএমআর-এর ডিজি বলরাম ভার্গোব বলেছেন, ‘জরুরি ভ্রমণ ছাড়া অন্যত্র যাওয়া, বড় জমায়েত, অপ্রয়োজনে উৎসব পালন না করাই ভালো।’

প্রায় পৌনে ২ বছর আগে মহামারির শুরুর অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে এখনই রাশ টানাতে উদ্যোগী কেন্দ্র। সংক্রমণ দ্রুত আটকাতে কেন্দ্র তড়িঘড়ি একাধিক নির্দেশিকা জারি করতে চলেছে বলে খবর।

এদিকে এক ধাক্কায় রাজধানী দিল্লিতে অনেকটাই বেড়েছে ওমিক্রন সংক্রমণ। এ দিন সকালেই দিল্লি স্বাস্থ্য়মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, রাজ্যে নতুন করে ১০ জন ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে। এই নিয়ে দিল্লিতে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২০।

ওমিক্রন আতঙ্কের মধ্যেও কিছুটা স্বস্তি রয়েছে দেশের করোনা গ্রাফে। ৭ হাজারের আশেপাশেই রয়েছে করোনা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৪৪৭ জন। গতকাল সেই সংখ্যাটা ছিল ৭ হাজার ৯৭৪ জন। যা গতকালের তুলনায় সামান্য কম হয়েছে। একদিনে করোনায় প্রাণ গিয়েছে ৩৯১ জনের।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Get the latest Bengali news and General news here. You can also read all the General news by following us on Twitter, Facebook and Telegram.

Web Title: Who approves siis covovax for emergency uses list says the firms ceo adar poonawala national

The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com