scorecardresearch

বড় খবর

কর্ণাটক ‘অধিকৃত’ অঞ্চল ফিরিয়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি উদ্ধবের

মহারাষ্ট্রের দাবি, কর্ণাটকের বেলগাঁও, কারওয়ার এবং নিপ্পানির সিংহভাগ মানুষ মারাঠিভাষী।

uddhav thackeray, উদ্ধব ঠাকরে
উদ্ধব ঠাকরে
এবার রাজ্যের সীমানা নিয়ে সংঘাতের মুখে মহারাষ্ট্র ও কর্ণাটক। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে রবিবার জানিয়েছেন, সরকার কর্ণাটকে মারাঠিভাষী মানুষদের কথা মাথায় রেখেছে। তাই শীঘ্রই সেই অঞ্চলগুলিকে রাজ্যের আন্তর্ভুক্ত করা হবে। দীর্ঘদিনের বিবাদে যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের শহিদ আখ্যা দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ দেওয়া হবে এই ভাবেই।

মহারাষ্ট্রের দাবি, বেলগাঁও এবং আরও কিছু অঞ্চল তৎকালীন ব্রিটিশ বোম্বাই প্রেসিডেন্সির মধ্যে ছিল। বর্তমানে তা কর্ণাটকের মধ্যে পড়ে। কিন্তু সেখানকার লোক মারাঠিভাষী। মহারাষ্ট্র একীকরণ সমিতি নামে আঞ্চলিক সংগঠন বেলগাঁও-সহ ওই অঞ্চলগুলি মহারাষ্ট্রে অন্তর্ভুক্তির জন্য দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করছে। ১৭ জানুয়ারি শহিদ দিবস হিসাবে পালন করে তারা। ১৯৫৬ সাল থেকে এই আন্দোলনে বহু মানুষ নিহত হয়েছেন।

আরও পড়ুন প্রাইভেট গাড়িতে মাস্ক না পরলে জরিমানা নয়

এদিন উদ্ধবের কার্যালয়ের তরফে টুইটে জানানো হয়, “কর্ণাটক অধিকৃত মারাঠিভাষী ও সংস্কৃতির অঞ্চলগুলিকে মহারাষ্ট্রের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। আর এটাই হবে সীমানা বিবাদে শহিদদের প্রকৃত শ্রদ্ধার্ঘ। আমরা ঐক্যবদ্ধ ও দায়বদ্ধ এর প্রতি। প্রতিশ্রুতি পালন করে শহিদদের মর্যাদা দেব।” মহারাষ্ট্রের দাবি, কর্ণাটকের বেলগাঁও, কারওয়ার এবং নিপ্পানির সিংহভাগ মানুষ মারাঠিভাষী। সুপ্রিম কোর্টে দুই রাজ্যের সীমানা বিবাদের মামলা বহুদিন ধরে ঝুলে রয়েছে। তবে শীঘ্রই সরকারিভাবে পদক্ষেপ করবে উদ্ধব ঠাকরে প্রশাসন।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest General news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Will incorporate karnataka occupied areas into maharashtra says uddhav thackeray