বড় খবর

পুলিশ সেজে টাকা লুট, শহরে জালিয়াতির নয়া ছক, আটক ৭

ইকো পার্ক থানা সীমানার আকাঙ্ক্ষা মোড়ের কাছে একটি নাকা চেক চলাকালীন বনগাঁ থেকে আসা সাতজনকে পরিকল্পিত অপরাধ করার জন্য আটক করা হয়েছে।

কথায় আছে, দুর্জনের ছলের অভাব হয় না। এও অনেকটা তাই। পুলিশ সেজে ট্রাক চালকদের কাছ থেকে টাকা আদায় করল বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিধাননগরে অপরাধ ব্যুরোর অফিসারদের ছদ্মবেশে গবাদিপশু বহনকারী একটি ট্রাক মালিকের কাছ থেকে অর্থ আদায়ের চেষ্টা করার অভিযোগে সাত জনকে আটক করেছে বিধাননগর থানার পুলিশ।

বিধানগর থানার পুলিশ অফিসার বলেন, “ইকো পার্ক থানা সীমানার আকাঙ্ক্ষা মোড়ের কাছে একটি নাকা চেক চলাকালীন বনগাঁ থেকে আসা সাতজনকে পরিকল্পিত অপরাধ করার জন্য আটক করা হয়েছে। তদন্ত ব্যুরোর অফিসার হিসাবে পরিচয় দেওয়ার জন্য আটক করা হয়েছে।”

একজন পুলিশ অফিসার জানান এই দুষ্কৃতীরা একটি এসইউভিতে করে এই কাজে এসেছিল। ট্রাক থেকে ১৫টি গবাদি পশুও নেওয়ার কথা জানিয়েছিল। বিধাননগর পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তদের মধ্যে একজন পুলিশ ইউনিফর্ম পরেছিল। এরাই যে চালান নিয়েছে, ট্রাক মালিক সেই বৈধ ক্রয়ের চালান জমা দিয়েছেন পুলিশকে।

অন্যদিকে, অন্য একটি মামলায় অবৈধ সিম কার্ড বিক্রি করার অজুহাতে এক ব্যক্তিকে ১১ লক্ষ টাকার জালিয়াতির অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অভিযুক্তরা হলেন- শান্তনু প্রধান ওরফে বাবু (২৮), সৌগত বড়পাণ্ডা (২৯) এবং নব কুমার পাত্র (২৯)। এরা সকলেই পূর্ব মেদিনীপুরের এগড়ার বাসিন্দা। এদের বিরুদ্ধে ১৮ জানুয়ারি আইপিসি ধারা ৪২০ (প্রতারণা ও জালিয়াতি) এবং ৪০6 (বিশ্বাসের লঙ্ঘন) এর অধীনে মামলা দায়ের করা হয়েছিল। সৌগত এবং নব কুমার একজন মোবাইল পরিষেবা সরবরাহকারীতে কাজ করেন এবং আরেকজন একজন বিক্রয়কর্মী।

Read the full story in English

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Web Title: 7 detained for extortion three held for rs 11 lakh fraud

Next Story
মিছিল থেকে ইটবৃষ্টি, পাল্টা পুলিশের লাঠিচার্জ, নবান্ন অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র ধর্মতলা
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com