scorecardresearch

বড় খবর

এনআরএসে হোমগার্ডকে চড়! বিজেপি নেতা দেবদত্ত মাঝির বিরুদ্ধে এন্টালি থানায় অভিযোগ

Post Poll Violence: ভোট পরবর্তী হিংসায় নিহত বিজেপি কর্মী দেহ আনতে গিয়েই বচসায় জড়ান ওই বিজেপি নেতা।

west bengal bjp announces new state committee leaders name
শেষ পর্যন্ত কলকাতা পুরভোটে ভরাডুবির পর সংগঠনের শীর্ষ পদে ব্যাপক বদল করল বঙ্গ বিজেপি।

Post Poll Violence in Bengal: হোম গার্ডকে চড় মারার ঘটনায় অভিযুক্ত বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের। বুধবারের ওই ঘটনার পর বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত দেবদত্ত মাঝির বিরুদ্ধে এন্টালি থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। উলটোডাঙা থানার ওই হোমগার্ড এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে উল্লেখ, এনআরএস-এর অটোপ্সি বিভাগের সামনে হোমগার্ডকে চড় মারেন ওই বিজেপি নেতা। করোনা বিধি মেনে ভিড় সরানোর সময়ে তাঁর ওপর এই হামলা হয়েছে। অভিযুক্ত দেবদত্তের বিরুদ্ধে করোনা বিধি লঙ্ঘন, সরকারি কাজে বাধা-সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। আক্রান্ত হোমগার্ড এনআরএস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।   এই প্রসঙ্গে উল্লেখ, ভোট পরবর্তী হিংসায় নিহত বিজেপি কর্মী দেহ আনতে গিয়েই বচসায় জড়ান ওই বিজেপি নেতা। তাঁকে উপস্থিত পুলিশের প্রতি হম্বিতম্বি করতেও দেখা গিয়েছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ধুন্ধুমার কাণ্ড এনআরএস হাসপাতালে। কাঁকুরগাছির নিহত বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকারের দেহ হস্তান্তরে দেরি ঘিরে গন্ডগোল হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার দেহ হস্তান্তরে টালবাহানার অভিযোগ ঘিরে তুমুল অশান্তি এনআরএসের মর্গ চত্বরে। পুলিশকে ধাক্কা, গালিগালাজের অভিযোগ। বিশাল পুলিশবাহিনী এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। শেষমেশ নির্ধারিত সময়ের বেশ কিছু পরে এদিন মৃতদেহ তুলে দেওয়া হয় পরিবারের হাতে।

ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের বলি কাঁকুরগাছির বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকার। মৃত্যুর পরেও আইনি জটিলতা চলতে থাকায় তাঁর দেহ রাখা হয়েছিল এনআরএস হাসপাতালের মর্গে। আদালতের নির্দেশে বৃহস্পতিবার সকালে অভিজিৎ সরকারের মরদেহ তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। সেই মতো এদিন সকালেই বিজেপি নেতা অর্জুন সিং, সজল ঘোষ, প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালরা দলের অন্য নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে চলে আসেন হাসপাতালে। এনআরএস হাসপাতালে পৌঁছে যায় অভিজিতের পরিবারও।

এদিন সকাল ১০টা নাগাদ অভিজিৎ সরকারের দেহ তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। তবে নির্ধারিত সময়ের পরেও দেহ হস্তান্তর না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন বিজেপি নেতারা। এদিন সকালে হাসপাতালে ঢুকতেও অর্জুন সিং, সজল ঘোষদের পুলিশ বাধা দেয় বলে অভিযোগ। বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, দেহ হস্তান্তরে এনওসি দেওয়ায় ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি করা হয়। এদিন এই বিষয়টি নিয়ে এনআরএস মর্গ চত্বরে চেঁচামেচি শুরু করে দেন বিজেপি নেতারা। ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতা-কর্মীদের সামলানোর চেষ্টা করে পুলিশ। তবে পুলিশের সঙ্গে তুমুল ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়ে যায় বিজেপি কর্মীদের। পরে অবশ্য নিহত অভিজিৎ সরকারের দেহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার কেওড়াতলা শ্মশানে শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে অভিজিতের।  

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলা এখন টেলিগ্রামে, পড়তে থাকুন

Stay updated with the latest news headlines and all the latest Kolkata news download Indian Express Bengali App.

Web Title: Bjp leader booked for alleged attack to a home guard in kolkata state