বড় খবর

বৌবাজার মেট্রো বিপর্যয়ের আঁচ পড়ল ‘তাপস রায়ের কালীপুজোয়’

“মায়ের পুজো, তাই যে পরিস্থিতেই থাকি না কেন, পুজো মা করিয়ে নেন। হাজার বাধা-বিপত্তি থাকা সত্ত্বেও পুজো হবে,” জানালেন রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী তাপস রায়।

বৌবাজারের মেট্রো বিপর্যয়ের প্রভাব পড়ল ৪৮ পল্লি যুবশ্রীর কালীপুজোয়, দীর্ঘদিন ধরেই যা ‘তাপস রায়ের কালীপুজো’ বলে পরিচিত। আলোর রোশনাই, বাজির গন্ধ এবছর অনেক ফিকে। মেট্রোর সুড়ঙ্গ তৈরি হচ্ছে, খালি করতে হয়েছে বাড়ির পর বাড়ি। গৃহহারা মানুষগুলোর মন মেজাজ ঠিক নেই। মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই, ভবিষ্যতের অন্ধকার গ্রাস করেছে তাঁদের। চোখের সামনে দেখছেন, জেসিবি মেশিনের এক ঘায়ে তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ছে মাথার ওপরের ছাদ। কলকাতায় তাবড় তাবড় নেতার পুজো যেমনভাবে হয়ে থাকে, সেইরকম জাঁকজমকপূর্ণভাবে এবার হবে না বৌবাজারের ৪৮ পল্লি যুবশ্রীর কালীপুজো।

আরও পড়ুন: দূষণ কমাতে শহরে বদলে যাচ্ছে বাজির রসায়ন

রাজ্যের বড়-ছোট একঝাঁক এমন নেতা রয়েছেন, যাঁদের নাম বিভিন্ন কালীপুজোর সঙ্গে জড়িত। তাঁদের মধ্যেই একজন রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী তাপস রায়। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বাংলার কাছে বৌবাজারের কালীপুজো নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি। তাপসবাবু বলেন, “মায়ের পুজো, তাই যে পরিস্থিতেই থাকি না কেন, পুজো মা করিয়ে নেন। হাজার বাধা-বিপত্তি থাকা সত্ত্বেও পুজো হবে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, বহু মানুষ এই এলাকায় এখন ঘরছাড়া। আমিও এখন অস্থায়ীভাবে গর্ভমেন্ট অ্যাকোমোডেশনে রয়েছি। এগুলোকে এখন ‘পার্ট অফ লাইফ’ ভেবে নিয়েছি। তাই পুজো হবে। কারণ এই পুজোর সঙ্গে জড়িয়ে আছে আমার ছোটবেলার স্মৃতি।”

তিনি আরও বলেন, “স্কুলে পড়তে পড়তে বৌবাজারের ৪৮ পল্লির কালীপুজোর সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিলাম। তখন আমি স্বেচ্ছাসেবক হয়ে কাজ করতাম। সেই সময় থেকেই কালী ঠাকুরের ভক্ত হয়ে উঠি। শক্তির আরাধনা করি। প্রায় চল্লিশ বছর ধরে এই পুজোর দায়িত্ব সামলাচ্ছি আমি। তাই এবারও কষ্ট করে হলেও সেই দায়িত্ব সামলাব।”

Web Title: Bowbazar east west metro tapas ray kali puja 48 pally yubashree

Next Story
সোশ্যাল মিডিয়া ও ‘মি টু’ অভিযোগ; কোথায় দাঁড়িয়ে সমাজ, কী বলছে আইন?
The moderation of comments is automated and not cleared manually by bengali.indianexpress.com